সেভ ইয়ুথের দ্বিতীয় সামিট অনুষ্ঠিত

প্রকাশ : ২৪ সেপ্টেম্বর ২০২০, ০০:০০

অনলাইন ডেস্ক

‘করোনা মোকাবিলায় বাংলাদেশের তরুণদের নেতৃত্ব’ স্লোগানকে ধারণ করে অনলাইনেই অনুষ্ঠিত হলো দেশের তরুণদের নিয়ে কাজ করা সংগঠন স্টুডেন্টস এগেইন্সট ভায়োলেন্স এভ্রিহয়ার (সেভ ইয়ুথ) বাংলাদেশের ন্যাশনাল সামিট।

দেশি-বিদেশি গবেষক, অধ্যাপক আর দেশের চার শতাধিক শিক্ষার্থীর অংশগ্রহণে তরুণ নেতৃত্ব বিকাশের লক্ষ্যে দ্বিতীয়বারের মতো সামিটটি অনুষ্ঠিত হয়। ঢাকা বিশ্ববিদ্যালয়ের সামাজিক বিজ্ঞান অনুষদ, মাইক্রো গভার্নেন্স রিসার্চ ইনিশিয়েটিভ ও সেভ ইয়ুথ বাংলাদেশের যৌথ উদ্যোগে দুই দিনব্যাপী ন্যাশনাল ইয়ুথ প্রমিজ লিডারশিপ শীর্ষক এ সামিটের উদ্বোধন হয় মঙ্গলবার ১৫ সেপ্টেম্বর সন্ধ্যায়। প্রধান অতিথি হিসেবে সামিটের উদ্বোধন করেন শিক্ষা উপমন্ত্রী ব্যারিস্টার মহিবুল হাসান চৌধুরী নওফেল। তিনি তরুণদের সমতার মূল্যবোধ নিয়ে জীবনযাপনের আহ্বান জানান।

তিনি বলেন, ‘৪৮ বছর আগে যখন আমরা দেশের জন্য যেভাবে লড়াই করেছিলাম, বর্তমান তরুণদের সেই চেতনায় ফিরে যেতে হবে। তবেই নিপীড়ন থেকে মুক্তি, মূল্যবোধ প্রতিষ্ঠা এবং সমতা নিশ্চিতকরণ সম্ভব। বঙ্গবন্ধু সব সময় তরুণদের এভাবে দেখতে চেয়েছেন।’

মহামারির সময় দেশের তরুণদের অসাধারণ ভূমিকার প্রশংসা করে তিনি বলেন, ‘মহামারি থেকে আমাদের তরুণরা অনেক কিছু শিখেছে। এখনই আমাদের তরুণদের সময় বৈশ্বিক নাগরিক হওয়ার।’ এ ছাড়াও করোনাকালে যেসব তরুণরা স্বঃপ্রণোদনায় উদ্যোক্তা হয়ে বেড়ে উঠেছে তাদের তিনি অভিনন্দন জানান।

সামিটের প্রথম দিন অক্সফোর্ড বিশ্ববিদ্যালয়ের অধ্যাপক ড. এন্ডি ম্যাককেই, কলম্বিয়া বিশ্ববিদ্যালয়ের সাবেক অধ্যাপক ড. রওনক জাহান, বাংলাদেশ এন্টারপ্রাইজ ইনস্টিটিউটের ভারপ্রাপ্ত সভাপতি অ্যাম্বাসেডর হুমাউন কবির, ঢাকা বিশ্ববিদ্যালয়ের সামাজিক বিজ্ঞান অনুষদের ডিন অধ্যাপক ড. সাদেকা হালিম, ইন্টারন্যাশনাল ফাউন্ডেশন ফর ইলেকট্ররাল সিস্টেমের এশিয়া প্যাসিপিক এর রিজিওনাল ডিরেক্টর ভাসু মোহন, সংগঠনটির বাংলাদেশ ও শ্রীলংকার কান্ট্রি ডিরেক্টর সিলজা প্যাসিলিনা প্রমুখ বক্তব্য রাখেন। এ ছাড়াও বিভিন্ন বিশ্ববিদ্যালয়ের শিক্ষক, তরুণ শিক্ষার্থী, উন্নয়ন সহযোগী প্রতিষ্ঠানের ১৩ জন গবেষক বক্তব্য উপস্থাপন করেন।

সামিটের দ্বিতীয় দিনের প্রথম পর্বে করোনাকালীন তরুণ গবেষকদের করা গবেষণাকর্ম উপস্থাপন করা হয়। দ্বিতীয় পর্বে যুক্তরাষ্ট্রের হার্ভার্ড বিশ্ববিদ্যালয়ের গবেষকসহ বাংলাদেশের বিভিন্ন বিশ্ববিদ্যালয়ের তরুণ শিক্ষক ও সেভ ইয়ুথ ফেলো উপস্থিত ছিলেন।

দুই দিনের এই আয়োজনে অক্সফোর্ড, হার্ভার্ড বিশ্ববিদ্যালয়সহ দেশের খ্যাতিমান গবেষক থেকে শুরু করে বিভিন্ন বিশ্ববিদ্যালয়ের তরুণ শিক্ষক এবং ১০ বিশ্ববিদ্যালয় থেকে ৩২ জন ইয়ুথ ফেলো, ৪৫২ জন অংশগ্রহণকারী, ৮টি সেশন এবং ৪৩টি গবেষণা প্রবন্ধ উপস্থাপিত হয়। সেভ ইয়ুথ? বাংলাদেশের মডারেটর ও ঢাকা বিশ্ববিদ্যালয়ের রাষ্ট্রবিজ্ঞান বিভাগের সহযোগী অধ্যাপক ড. আইনুল ইসলাম বলেন, ‘সময়ের সব বাস্তব অবস্থার সঙ্গে পরিচিত করাতে এবং খাপখাইয়ে নিতে দেশীয় তরুণদের একত্র করার উদ্দেশ্যে আয়োজিত এ সামিটে ঢাকা বিশ্ববিদ্যালয়, রাজশাহী বিশ্ববিদ্যালয়, চট্টগ্রাম বিশ্ববিদ্যালয়, জগন্নাথ বিশ্ববিদ্যালয়, খুলনা বিশ্ববিদ্যালয়, ইসলামী বিশ্ববিদ্যালয়, শাহজালাল বিজ্ঞান ও প্রযুক্তি বিশ্ববিদ্যালয়, বরিশাল বিশ্ববিদ্যালয়, জাতীয় কবি কাজী নজরুল ইসলাম বিশ্ববিদ্যালয়সহ মোট ১০টি বিশ্ববিদ্যালয়ের প্রায় ৪৫০ জন শিক্ষার্থী অংশগ্রহণ করেছেন।’

উল্লেখ্য, ‘সেভ ইয়ুথ বাংলাদেশ’ দেশের তরুণদের নিয়ে কাজ করা একটি সংগঠন; যা ২০১৮ সাল থেকে নিয়মিত কার্যক্রম চালিয়ে যাচ্ছে। সংবাদ বিজ্ঞপ্তি।

 

 

"