ক্রীড়া প্রতিবেদক

  ১২ অক্টোবর, ২০২১

ফাইনালের স্বপ্ন বাংলাদেশের

তিনটি দল এরই মধ্যে পয়েন্ট তালিকায় এগিয়ে গেছে। তবে তাতে বাংলাদেশের সুযোগ হাতছাড়া হয়ে যায়নি। ফাইনালের ভাগ্য এখনও জামাল-জিকোদের হাতেই আছে। নেপালকে হারালেই নিশ্চিত হয়ে যাবে সেরা দুইয়ে বাংলাদেশের থাকা।

এ মুহূর্তে ৬ করে পয়েন্ট নেপাল ও মালদ্বীপের। এই দুই দলের গোল ব্যবধানও সমান (+২)। তিন ম্যাচে ৫ পয়েন্ট নিয়ে তৃতীয় স্থানে সাফের রেকর্ড সাতবারের চ্যাম্পিয়ন ভারত, গোল পার্থক্য (+১)। ৪ পয়েন্ট নিয়ে চতুর্থ স্থানে থাকা বাংলাদেশের গোল পার্থক্য (-১)।

শেষ রাউন্ডে বাংলাদেশের প্রতিপক্ষ নেপাল। আরেক ম্যাচে মালদ্বীপের বিপক্ষে খেলবে ভারত।

পাঁচ দলের মধ্যে শুধু শ্রীলঙ্কারই বিদায় ঘণ্টা বেজে গেছে। বাকি চার দলেরই সুযোগ আছে সাফ চ্যাম্পিয়নশিপের ফাইনালে খেলার। দুটি করে জয় পাওয়া মালদ্বীপ ও নেপাল আছে একটু সুবিধাজনক স্থানে। ড্র করলেই ফাইনালে যাবে এই দুই দল। তবে হারলে বিদায় নিতে হবে, অন্য ম্যাচে ফল যাই হোক।

৫ পয়েন্ট নিয়ে তিনে থাকা ভারত ও ৪ পয়েন্ট নিয়ে চারে থাকা বাংলাদেশের জয়ের কোনো বিকল্প নেই।

নেপালের বিপক্ষে ড্র করলে বাংলাদেশের পয়েন্ট হবে ৫। এই পয়েন্ট নিয়ে সর্বোচ্চ তৃতীয় হতে পারবে তারা।

মালদ্বীপ ও ভারতের ম্যাচে ড্র হলে বর্তমান চ্যাম্পিয়নদের পয়েন্ট হবে ৭, টুর্নামেন্টের সফলতম দল ভারতের পয়েন্ট হবে ৬। এই পয়েন্ট নিয়ে তাদের সেরা দুইয়ে থাকার সুযোগ নেই। বাংলাদেশ ফুটবল ফেডারেশন সভাপতি কাজী সালাউদ্দিন সাফে বাংলাদেশের তিন ম্যাচ দেখে দেশে ফিরেছেন। বাফুফে ভবনে গতকাল সাংবাদিকদের সঙ্গে কথা বলেছেন সাফ ও বাংলাদেশ দল নিয়ে।

সাফে কোন দুই দল ফাইনাল খেলবে এখনো ঠিক হয়নি। শ্রীলঙ্কা বাদে বাকি চার দলেরই সম্ভাবনা আছে। সাফের এই অবস্থাকে সালাউদ্দিন সেমিফাইনাল হিসেবে দেখছেন, ‘টুর্নামেন্ট এখন যে অবস্থায় সেটি এখন সেমিফাইনালের মতো। যারা জিতবে তারা ফাইনাল খেলবে, হারলে বিদায়। যেন নকআউট পর্ব।’ সাফের মান বাড়ছে বলে মনে করেন বাফুফে ও সাফের সভাপতি সালাউদ্দিন, ‘আমার ভাইয়ের সঙ্গে আজ কথা হলো। সে সাফের খেলা দেখেছে। তার পর্যবেক্ষণ বাংলাদেশের খেলার উন্নতি হয়েছে। সাফের অন্য দেশের খেলারও উন্নতি হয়েছে।’

সাফে বাংলাদেশ গ্রুপ পর্ব পার হতে পারে না ২০০৯ সাল থেকে। এবার লিগ পর্বের খেলা হওয়ায় ফাইনাল খেলার সম্ভাবনা তৈরি হয়েছে। বাংলাদেশ ফাইনাল খেললে অথবা চ্যাম্পিয়ন হলে কেমন পুরস্কার থাকতে পারে এ প্রসঙ্গে সালাউদ্দিন বলেন, ‘কিছুদিন আগেও বলেছি, যতবার পুরস্কার ঘোষণা করেছি, দিতে পারিনি। এবার ওরা ভালো করুক অনেক কিছু দেব, যা ওরা কল্পনাও করেনি।’

সাফে বাংলাদেশের তিন ম্যাচ সম্পর্কে সালাউদ্দিনের মূল্যায়ন, ‘প্রথম ম্যাচ ঠিক আছে। দ্বিতীয় ম্যাচে আমরা ১০ জন নিয়ে খেললেও ম্যাচটি জেতার মতো ছিল। তৃতীয় ম্যাচটি খেলোয়াড়রা ক্লান্ত ছিল। এক সপ্তাহের মধ্যে তিন ম্যাচ ছিল আর মালদ্বীপ পাঁচ দিন পর খেলেছে।’

বাংলাদেশি অনেক সমর্থক মালদ্বীপের ম্যাচে টিকিট নিয়েও প্রবেশ করতে পারেনি। এই প্রসঙ্গে সালাউদ্দিন বললেন, ‘বাংলাদেশি হিসেবে আমার কাছে বিষয়টি খুব খারাপ লেগেছে কিন্তু মালদ্বীপ যেটা করেছে সেটা আন্তর্জাতিক নিয়ম থেকে। তারা ২৫০ টিকিট দিয়েছে। দূতাবাসের রাষ্ট্রদূত তাদের ক্রীড়ামন্ত্রীকে বলেছে- আমি ও সাধারণ সম্পাদক ফেডারেশনের সাধারণ সম্পাদক ও সভাপতিকে বলেছি- এতে আরো কিছু বাড়তি টিকিট এসেছিল।’

 

 

"

প্রতিদিনের সংবাদ ইউটিউব চ্যানেলে সাবস্ক্রাইব করুন
আরও পড়ুন
  • সর্বশেষ
  • পাঠক প্রিয়
close