ক্রীড়া প্রতিবেদক

  ১৩ সেপ্টেম্বর, ২০২১

ক্রিকেটারদের ভুল হবেই

টানা ১০টি টি-টোয়েন্টিতে বাংলাদেশ দলের ব্যাটসম্যানদের পারফরম্যান্স প্রশ্নবিদ্ধ। অস্ট্রেলিয়ার পর নিউজিল্যান্ড সিরিজ একমাত্র মাহমদুউল্লাহ রিয়াদের একটি ফিফটি ছোঁয়া ইনিংস বাদ দিলে সুবিধা করতে পারেননি কেউই। উইকেটে থিতু হয়েও ইনিংস বড় করতে না পারার আক্ষেপে পুড়তে হয়েছে। স্বাভাবিকভাবেই আসন্ন টি-টোয়েন্টি বিশ্বকাপের আগে ভাবাচ্ছে বাংলাদেশ দলের ব্যাটসম্যানদের ফর্ম।

তবে বরাবরের মতো এই দুই সিরিজে ব্যাটসম্যানদের দায়িত্ব বা ধারাবাহিকতা নিয়ে প্রশ্ন তুলতে মানা করলেন অলরাউন্ডার সাকিব আল হাসান। গতকাল রাজধানীর একটি হোটেলের ডিবিএল টাইলসের শুভেচ্ছা দূত হিসেবে দায়িত্ব বুঝে নিতে এসে সংবাদমাধ্যমের মুখোমুখি হয়ে সাকিব জানালেন, ব্যাটসম্যানদের ভুল না ধরে ভালোর দিকে নজর দেন।

সাকিব বলছিলেন, ‘দেখুন আপনি যদি ভুল ধরতে চান, যেকোনো জিনিসেরই ভুল ধরা সম্ভব। সো ভুলটা একটু কম দেখে ভালোর দিকে যদি তাকান। তাহলে অনেক ভালো কিছু দেখতে পাবেন। আপনার দেখার দৃষ্টিটা আসলে কেমন সেটা বুঝতে হবে।’ দলে জুনিয়র ক্রিকেটারদের ভূমিকা নিয়ে এই অলরাউন্ডারের ভাবনা, ‘আমার কাছে মনে হয় সব ক্রিকেটার কমবেশি পারফরম্যান্স করছে এবং একটা টিম হিসেবে খেলতে পারছি। এটাই জেতার বড় কারণ।’

এদিকে প্রশ্ন উঠেছে বাংলাদেশ দলের সহ-অধিনায়ক ইস্যুতে। দীর্ঘদিন ধরে দলে নেই কোনো সহ-অধিনায়ক। এমনকি আসন্ন টি-টোয়েন্টি বিশ্বকাপেও অধিনায়ক মাহমুদউল্লাহ রিয়াদের ডেপুটির নাম ঘোষণা করেনি বাংলাদেশ ক্রিকেট বোর্ড। বোর্ডের এমন ভাবনা কীভাবে দেখছেন সাকিব?

সাকিব আল হাসানের ব্যাখ্যা, ‘যেহেতু এটা একটা ঐতিহ্য, হয়তো (সহ-অধিনায়ক) থাকলে ভালো হতো। নাই বলে যে খুব একটা সমস্যা, সেটা আমার কাছে কখনোই মনে হয় না। স্বাভাবিকভাবেই পাঁচ-ছয়জন আছে যারা লিডারশিপ গ্রুপের পার্ট, আমি মনে করি। তারা সবাই মিলেই যেকোনো ক্রাইসিস মোমেন্ট বা যেকোনো ডিফিকাল্ট ডিসিশন মেক করতে হয়, সবার আলোচনার মাধ্যমেই হয়।’

অস্ট্রেলিয়ার পর ঘরের মাঠে নিউজিল্যান্ডকেও টি-টোয়েন্টি সিরিজে হারিয়েছে বাংলাদেশ। তবে ফরম্যাটটা টি-টোয়েন্টি হলেও ব্যাটসম্যানদের হাত খুলে খেলার উপায় ছিল না। রীতিমতো ধুঁকেছেন তারা।

সিরিজ জয়ের পরও তাই উইকেট নিয়ে আলোচনা থামেনি। টি-টোয়েন্টি বিশ্বকাপের আগে এমন উইকেটে খেলে বাংলাদেশের প্রস্তুতি কতটা আদর্শ হলো সেই প্রশ্নও রয়েই গেছে।

আগেও বলেছেন। আরো একবার উইকেট নিয়ে মুখ খুললেন বিশ্বসেরা অলরাউন্ডার সাকিব আল হাসান। রাজধানীর এক অনুষ্ঠানে সাকিব খোলাখুলিই বলে ওঠেন, এমন উইকেট একটা ব্যাটসম্যানের ক্যারিয়ার শেষ করে দিতে পারে।

সাকিব বলেন, ‘দেখুন, এই ৯-১০টা ম্যাচ যারা খেলেছে, সবাই অফফর্মে আছে। উইকেটটাই এমন। এখানে কেউ খুব একটা ভালো করেনি। ব্যাটসম্যানদের এই পারফরম্যান্স গণ্য না করাই ভালো। এ রকম উইকেটে কোনো ব্যাটসম্যান ১০-১৫টা ম্যাচ খেললে তার ক্যারিয়ার শেষ হয়ে যাবে, এটা খুবই স্বাভাবিক। কাজেই এই হিসাব (রানের) না করি আমরা। যারা দলে আছে, সবাই দেশকে জেতানোর সামর্থ্য রাখে। যার যার জায়গা থেকে সবাই শতভাগ চেষ্টা করছে।’

যদিও এই উইকেটে খেলে প্রস্তুত হতে পারেনি বাংলাদেশ, তেমনটা মানছেন না সাকিব। তার কথা, ‘আমাদের প্রস্তুতি খুবই ভালো হয়েছে। এর বড় কারণ হচ্ছে গত তিনটা সিরিজ আমরা জিততে পেরেছি। হয়তো পিচ, উইকেট, লো স্কোর নিয়ে অনেক সমালোচনা হয়েছে। কিন্তু জয়ের কোনো বিকল্প নেই। একটা দল যখন জিততে থাকে জয়ের মানসিকতা থাকে। তা অন্য পর্যায়ের আত্মবিশ্বাস দেয়। আপনি অনেক ভালো খেলে ম্যাচ হারলে এই আত্মবিশ্বাস থাকবে না। এই আত্মবিশ্বাস নিয়ে আমরা বিশ্বকাপে যেতে চাই।’

বিশ্বকাপের আগে ওমানে কন্ডিশনিং ক্যাম্প করবে বাংলাদেশ। সেই ক্যাম্পে নিজেদের প্রস্তুত করে নেওয়ার জন্য যথেষ্ট সময় পাওয়া যাবে বলেই মনে করেন বিশ্বসেরা অলরাউন্ডার। সাকিব বলেন, ‘আমরা বিশ্বকাপ শুরুর ১৫-১৬ দিন আগে যাব, প্রস্তুতির যথেষ্ট সময় থাকবে। ওই কন্ডিশন ও উইকেটের সঙ্গে মানিয়ে নেওয়ার যথেষ্ট সময় পাব। আমার মনে হয় না এখানকার পিচ-কন্ডিশন ওখানে খুব বেশি প্রভাব ফেলবে। আমাদের জয়ের মানসিকতা তৈরি হয়েছে। যে আত্মবিশ্বাস আছে, সেটা নিয়ে বিশ্বকাপে যেতে পারব।’

 

 

"

প্রতিদিনের সংবাদ ইউটিউব চ্যানেলে সাবস্ক্রাইব করুন
আরও পড়ুন
  • সর্বশেষ
  • পাঠক প্রিয়
close