নিজস্ব প্রতিবেদক

  ১২ এপ্রিল, ২০২১

অমর একুশে গ্রন্থমেলা-২০২১

বিদায় বেলায়ও ফাঁকা

করোনা সংক্রমণ বাড়ায় অমর একুশে গ্রন্থমেলা এবার নির্ধারিত সময়ের দুদিন আগেই আজ সোমবার শেষ হচ্ছে। শেষ দিকে কোথায় ক্রেতা-বিক্রেতায় পরিপূর্ণ থাকবে মেলা তা না হয়ে গতকাল রবিবার মেলাজুড়ে বিরাজ করছে নিস্তব্ধতা আর শূন্যতা। করোনা সংক্রমণ বেড়ে যাওয়ায় এ পরিস্থিতির সৃষ্টি হয়েছে বলে মনে করেন সংশ্লিষ্টরা।

গতকাল বাংলা একাডেমি প্রাঙ্গণে বইমেলা ঘুরে দেখা যায়, ফাঁকা স্টলগুলোয় অলস সময় পার করছেন বিক্রেতারা। হাতেগোনা কয়েকজনকে দেখা গেলেও তাদের বেশির ভাগই বিভিন্ন স্টলে শুধু বই দেখছেন। দুপুর ১২টায় মেলা শুরু হলেও ২টা পর্যন্ত পাঠকসমাগম দেখা যায়নি।

------
সোহরাওয়ার্দী উদ্যানের বর্ধিত অংশে অবস্থিত সুলেখা প্রকাশনীর স্টলের মালিক কামরুল হাসান বলেন, ‘এবারের মেলা নিয়মরক্ষা ও গুটিকয়েক প্রকাশকের ব্যবসা রক্ষার বইমেলা হলো। এবার মেলাটা না হলেই ভালো হতো।’

বেহুলা বাংলা প্রকাশনীর বিক্রয় প্রতিনিধি নায়না আফসিন জানান, ‘মেলা শেষ হওয়ার আগের দিনে দুপুর গড়িয়ে বিকাল হতে চলল, এখনো মেলা জমে ওঠেনি। আমি টানা সাত বছর বইমেলার স্টলে বিক্রয় প্রতিনিধির কাজ করে আসছি। বিগত বছরগুলোয় মেলার শেষ সপ্তাহে যে ব্যস্ততা থাকে, এবার মেলা শেষ হওয়ার আগের দিন এসেও তা প্রায় সম্পূর্ণ বিপরীত চিত্র।’

কাকলী প্রকাশনীর বিক্রয়কর্মী শহিদ বলেন, ‘করোনায় দেশের পরিস্থিতি ভালো না। এ কারণে পাঠকদের সাড়া নেই। মূলত এ বছর মেলা হয়েছে প্রকাশকদের মেলা; পাঠকদের মেলা হয়নি। পাঠক আসার মতো পরিবেশই হয়নি। পাঠক আসে ৫টার পরে কিন্তু সে সময় তো বন্ধ থাকছে। আমরা এবার হতাশ।’

মেলায় আসা বেশির ভাগ পাঠক এসেছেন ঘুরতে। কয়েকজন এসেছেন শেষ বেলায় প্রয়োজনীয় বই কিনতে। তীব্র রোদে কাহিল হয়ে বেশির ভাগই ছায়া খুঁজে বিশ্রাম নিচ্ছিলেন। মেলার ‘লেখক বলছি’ মঞ্চে গিয়ে দেখা যায়, রোদে ক্লান্ত পাঠকরা বিশ্রাম নিচ্ছেন।

 

 

"

প্রতিদিনের সংবাদ ইউটিউব চ্যানেলে সাবস্ক্রাইব করুন
আরও পড়ুন
  • সর্বশেষ
  • পাঠক প্রিয়
close