ক্রীড়া প্রতিবেদক

  ১১ সেপ্টেম্বর, ২০২১

মিরপুরে নাদির শাহকে শ্রদ্ধা

বেঁচে থাকলে এবং সুস্থ থাকলে হয়তো বাংলাদেশ-নিউজিল্যান্ডের সিরিজের কোনো ম্যাচেও আম্পায়ার হিসেবে দেখা যেত নাদির শাহকে। তবে না থেকেও আইসিসি প্যানেলের সাবেক এই আম্পায়ার মিরপুর শেরেবাংলা ক্রিকেট স্টেডিয়ামে উপস্থিত থাকলেন। খেলা শুরুর আগে জায়ান্ট স্ক্রিনে ভেসে উঠল তার ছবি। এক মিনিট নীরবতায় শ্রদ্ধা জানালেন দুই দলের ক্রিকেটার ও ম্যাচসংশ্লিষ্ট সবাই।

গতকাল বাংলাদেশ-নিউজিল্যান্ড পঞ্চম টি-টোয়েন্টি ম্যাচ শুরুর ঠিক আগে ক্রিকেটাররা সারিবদ্ধভাবে দাঁড়িয়ে পালন করেন নীরবতা। প্রেসবক্সে থাকা সাংবাদিকরাও যোগ দেন শ্রদ্ধা নিবেদনে। ভিআইপি বক্স থেকে বোর্ড সভাপতি নাজমুল হাসান ও বিসিবি কর্তারা শামিল হন তাতে।

এদিন সকালেই খবর আসে তার প্রয়াণের। ভোর পৌনে ৪টার দিকে রাজধানীর আনোয়ার খান মডার্ন হাসপাতালে চিকিৎসাধীন অবস্থায় শেষ নিঃশ্বাস ত্যাগ করেন তিনি। তার বয়স হয়েছিল ৫৭ বছর।

দুই বছর ধরে ফুসফুসের ক্যানসারে ভুগছিলেন দেশের ইতিহাসের প্রখ্যাত এই আম্পায়ার। ২০১৯ সালে জাতীয় লিগের এক ম্যাচ চলাকালীন হঠাৎ অসুস্থ হয়ে পড়েন। এরপর জানা যায় তার রোগের কথা।

অসুস্থতার জন্য আম্পায়ারিং ছেড়ে দিতে হয় তাকে। উন্নত চিকিৎসার জন্য দেশের বাইরেও গিয়েছিলেন। কিন্তু লাভ হয়নি। এক সপ্তাহ ধরে ভীষণ অসুস্থ হয়ে পড়ায় তাকে ভর্তি করা হয় ধানমন্ডির একটি হাসপাতালে। সেখানে দুদিন ধরে লাইফ সাপোর্টে থাকার পর ইতি হয়ে যায় তার জীবনের।

নাদির শাহর বড় ভাই জাহাঙ্গীর শাহ খেলতেন বাংলাদেশ জাতীয় দলে। জাতীয় দলে না খেললেও ঘরোয়া ক্রিকেটে নিয়মিত মুখ ছিলেন তিনি। খেলেছেন ভিক্টোরিয়া, বিমান, আবাহনী, মোহামেডানের মতো ক্লাবের হয়ে। ছিলেন লেগ স্পিনার ও মিডল অর্ডার ব্যাটসম্যান।

২০০৬ সালে বগুড়ায় বাংলাদেশ-কেনিয়া ম্যাচ দিয়ে আন্তর্জাতিক অঙ্গনে আম্পায়ারিংয়ের শুরু নাদির শাহর। ৪০ ওয়ানডে ম্যাচের সঙ্গে ৩ টি-টোয়েন্টি ম্যাচ পরিচালনা করেছেন তিনি।

সাবেক ক্রিকেটার ও আম্পায়ারিংয়ের বাইরে আমুদে চরিত্র হিসেবে পরিচিত ছিলেন তিনি। আড্ডায় বসলে মাতিয়ে রাখতেন চারপাশ।

 

 

"

প্রতিদিনের সংবাদ ইউটিউব চ্যানেলে সাবস্ক্রাইব করুন
আরও পড়ুন
  • সর্বশেষ
  • পাঠক প্রিয়
close