টিয়া পাখির মুখে কুকথা!

প্রকাশ : ০১ অক্টোবর ২০২০, ০০:০০

আন্তর্জাতিক ডেস্ক

সব সময় নোংরা কথা। ফলে দর্শনার্থীদের সামনে আর রাখার উপায় নেই। ইংল্যান্ডের এক চিড়িয়াখানা থেকে তাই পাঁচ টিয়াকে ভাষা শিক্ষার জন্য অন্যত্র পাঠানো হলো। ব্রিটিশ সংবাদমাধ্যম বিবিসি ও দৈনিক গার্ডিয়ান জানায়, খারাপ কথা ভুলে ভালো কথা না শেখা পর্যন্ত টিয়াগুলো কোয়ারেন্টাইনে থাকতে হবে। এতে পাঁচ টিয়া পৃথক থেকে ‘কুকথা’ ভুলে ‘ভদ্র’ ও ‘সভ্য’ হবে!

বিবিসির প্রতিবেদন অনুযায়ী যুক্তরাজ্যের লিঙ্কনশায়ার ওয়াইল্ডলাইফ পার্ক কর্তৃপক্ষ জানিয়েছে, নোংরা ভাষার কারণে পাঁচটি আফ্রিকান টিয়াকে আপাতত আর চিড়িয়াখানায় আসা দর্শনার্থীদের সামনে রাখা হবে না।

পাঁচ টিয়াকে আলাদা আলাদা পাঁচজনের কাছে পাঠানো হয়েছে বলেও নিশ্চিত করেছে চিড়িয়াখানা কর্তৃপক্ষ। সেখান থেকে নিজেদের সংশোধন করে ফেরার পরে ফের তাদের দর্শনার্থীদের মুখোমুখি হতে দেওয়া হবে।

মার্কিন সংবাদমাধ্যম সিএনএন এক প্রতিবেদনে জানিয়েছে, চিড়িয়াখানা থেকে অন্যত্র সরানো এই পাঁচ টিয়ার নাম এরিক, জেড, এলসি, টাইসন ও বিল্লি। কিছুদিন থেকে একসঙ্গে হলেই ‘নোংরা’ ভাষায় কথা বলে টিয়াগুলো। তবে কী ধরনের ‘নোংরা’ কথা টিয়াগুলো বলে এ ব্যাপারে চিড়িয়াখানা কর্তৃপক্ষের তরফে কিছু জানানো হয়নি। চিড়িয়াখানার কর্মকর্তা স্টিভ নিকোলাস বলেন, ‘শিশুদের সামনে টিয়াগুলোর কথা নিয়ে আমরা চিন্তিত হয়ে পড়েছিলাম। তাই সব বিবেচনা করে এমন সিদ্ধান্ত নিতে বাধ্য হয়েছি। এখন অপেক্ষা, কবে এই পাঁচ টিয়ার ‘সুশিক্ষা’ কার্যক্রম শেষ হবে। কেননা এরপরই তারা ফিরবে চিড়িয়াখানায়।

 

 

"