অন্ধ্র প্রদেশে করোনা চিকিৎসাকেন্দ্রে আগুনে ১১ জনের মৃত্যু

প্রকাশ : ১০ আগস্ট ২০২০, ০০:০০

আন্তর্জাতিক ডেস্ক

ভারতের অন্ধ্রপ্রদেশ রাজ্যে বিজয়বাডা এলাকায় কোভিড রোগীদের চিকিৎসাকেন্দ্রে অগ্নিকা-ে ১১ জন মারা গেছেন। স্বর্ণ প্যালেস নামে হোটেলটি কোভিড-১৯ রোগের চিকিৎসাকেন্দ্র হিসেবে ব্যবহার করা হচ্ছিল। ওই হোটেলে ৩০ জন কোভিড রোগীকে চিকিৎসা দেওয়া হচ্ছিল। খবর টাইমস অব ইন্ডিয়ার। এনডিটিভির খবরে জানা যায়, কর্মকর্তারা বলছেন, ধারণা করা হচ্ছে, হোটেলের নিচতলায় আগুন লেগেছে। পরে এটি দ্বিতীয় ও তৃতীয় তলায় ছড়িয়ে যায়। অন্ধ্র প্রদেশ সরকার এ ঘটনার তদন্তের নির্দেশ দিয়েছে।

প্রাথমিক তদন্তে জানা গেছে, শর্টসার্কিট থেকে আগুন লাগতে পারে। ভোর পাঁচটার দিকে আগুন লাগে।

কর্মকর্তারা বলছেন, আগুন লাগার পর ওই ভবনে থাকা রোগীরা আতঙ্কিত হয়ে পড়েন। দুজন রোগী জীবন বাঁচাতে ভবন থেকে লাফিয়ে পড়েন। ওই রোগীদের এক স্বজন জানান, মাত্র দুদিন আগে তাঁদের একজনকে হাসপাতাল থেকে কোয়ারেন্টিনের সুবিধার জন্য হোটেলে রাখা হয়। লাফিয়ে পড়ে যাওয়ায় ওই রোগীর গোড়ালির হাড়ে চিড় ধরেছে।

ভোর ৫টা ৯ মিনিটের দিকে পুলিশ ও অগ্নিনির্বাপণ বাহিনী ঘটনাস্থলে যায়। পুলিশ কমিশনার বি শ্রীনিবাসুলু বলেন, সকাল পৌনে ছয়টার দিকে আগুন নিয়ন্ত্রণে আসে। ওই হোটেলে ৩০ জন কোভিড রোগী ও হাসপাতালের ১০ জন কর্মী ছিলেন।

 

কৃষ্ণ জেলা কালেক্টর মোহাম্মদ ইমতিয়াজ বলেন, ‘হাসপাতালে ২২ জন রোগীকে চিকিৎসা দেওয়া হচ্ছে। আমরা পুরো ভবন খালি করে দিয়েছি।’ তিনি বলেন, প্রাথমিকভাবে জানা গেছে, শর্টসার্কিটের কারণে আগুন লাগে।

 

কোভিড রোগীদের চিকিৎসা দিতে রমেশ হাসপাতাল স্বর্ণ প্যালেস হোটেলটি লিজ নিয়েছিল।

 

রাজ্যের মুখ্যমন্ত্রী ওয়াই এস জগন্মোহন রেড্ডি এ ঘটনায় শোক ও সমবেদনা জানান। তিনি ঘটনার তদন্তের জন্য কর্মকর্তাদের নির্দেশ দেন। রাজ্য সরকার অগ্নিকা-ে নিহত প্রত্যেক পরিবারকে ৫০ লাখ রুপি আর্থিক সহায়তার ঘোষণা দিয়েছে।

 

ভারতের প্রধানমন্ত্রী নরেন্দ্র মোদি এক টুইটে মুখ্যমন্ত্রীকে সব ধরনের সহযোগিতার আশ্বাস দিয়েছেন।

 

এই মাসে ভারতে এ নিয়ে দ্বিতীয় অগ্নিকা-ের ঘটনা ঘটল। গত বৃহস্পতিবার গুজরাটের আহমেদাবাদে বেসরকারি এক হাসপাতালের নিবিড় পরিচর্যা কেন্দ্রে অগ্নিকা-ে আটজন কোভিড রোগী মারা যান।

 

রাজ্যের স্বাস্থ্য কর্মকর্তাদের তথ্য অনুসারে অন্ধ্র প্রদেশে এ পর্যন্ত কোভিড রোগীর সংখ্যা ২ লাখ ১৭ হাজার ৪০। এনডিটিভির খবর বলছে, আজ সকালে ভারতে ৬৪ হাজার ৩৯৯ জন করোনাভাইরাসে সংক্রমিত হয়েছেন। এ নিয়ে দেশটিতে কোভিড রোগীর সংখ্যা ২১ লাখ ছাড়াল।

 

"