আমতলীতে ঘর তুলে খাসজমি দখল

প্রকাশ : ২৬ সেপ্টেম্বর ২০২০, ০০:০০

বরগুনা প্রতিনিধি

বরগুনার আমতলী উপজেলা শহরের গুরুত্বপূর্ণ সরকারি-বেসরকারি স্থাপনা ও স্কুল-কলেজের সামনে ঘর তুলে খাস জমি দখল করে পরিবেশ নষ্ট করা হচ্ছে। এক শ্রেণির প্রভাবশালীদের দাপটে প্রশাসনও অসহায়। পেশিশক্তির জোরে চলছে দখলদারিত্ব। বরগুনা জেলার আমতলী উপজেলা পরিষদ ও ইউএনওর কার্যালয়ের প্রধান ফটক ঘেঁষে খাস জমিতে ঘরগুলো নির্মিত হয়েছে। দখলদারদের কেউ কেউ ওইসব ঘরভাড়া দিয়ে মোটা অঙ্কের টাকা আয় করছে। এদের কারণে এলাকার পরিবেশ দূষিত হচ্ছে। বাতাসে দুর্গন্ধ ছড়িয়ে পড়ায় বাড়ছে দুর্ভোগ।

এদিকে দক্ষিণাঞ্চলের ঐতিহ্যবাহী মফিজ উদ্দিন বালিকা পাইলট মাধ্যমিক বিদ্যালয়ের সামনে সদর রোডের পাশের খাস জমি দখলের পাঁয়তারা চলছে। বিদ্যালয়ের সামনের রাস্তার পাশের খাস জমির ওপর ব্যবসাপ্রতিষ্ঠানের নির্মাণকাজ বন্ধের দাবি জানিয়ে লিখিত আবেদন করেছে আমতলী মফিজ উদ্দিন বালিকা পাইলট মাধ্যমিক বিদ্যালয়ের প্রধান শিক্ষক মো. শাহ আলম কবির। তিনি শিক্ষা মন্ত্রী, শিক্ষা সচিব ও বরগুনা জেলা প্রশাসক বরাবর পৃথক আবেদন করেছেন। আবেদনে তিনি উল্লেখ করেন আমতলী উপজেলার প্রাণকেন্দ্র মফিজ উদ্দিন বালিকা পাইলট মাধ্যমিক বিদ্যালয়ের সামনের রাস্তার পাশের খাস জমি দখল হয়ে গেলে ছাত্রীদের পড়ালেখার পরিবেশ নষ্ট হবে, দূষিত হবে এলাকা। বাড়বে বখাটেদের উৎপাত। এ বিদ্যালয়ের সামনে জেলা পরিষদ ও বিদ্যালয়ের কিছু জমি আছে। জেলা পরিষদের জমিতে বিভিন্ন প্রতিষ্ঠান ঘর তুলতে গিয়ে মফিজ উদ্দিন বালিকা পাইলট মাধ্যমিক বিদ্যালয়ের জমি দখল করছে। শিক্ষাপ্রতিষ্ঠানের সামনে ব্যবসাপ্রতিষ্ঠান হলে বিদ্যালয়ের ছাত্রীরা নিরাপত্তাহীন হয়ে পড়বে।

স্থানীয় বাসিন্দা এসএস প্লাজার মালিক আলহাজ এস এম শাহজাহান কবির বলেন, আমরা যারা এখানে বসবাস করছি, পরিবেশ দূষণের ফলে আমাদের জীবনযাপন কষ্টসাধ্য হয়ে পড়েছে। উপজেলা পরিষদ ও উপজেলা নির্বাহী অফিসারের কার্যালয়ের সামনে এমন নোংরা পরিবেশ নিয়ে উপজেলা ভূমি কমিটির সভায় বিষয়টি বারবার উত্থাপন করলেও আজ অবধি কোনো ব্যবস্থা নেয়নি প্রশাসন। বরগুনা জেলা পরিষদ সদস্য শাহিনুর তালুকদার জানান, আমরা কিছু জমি লিজ দিয়েছি। কিছু জমি লিজ দেওয়ার প্রক্রিয়া চলছে। পরিবেশ নষ্ট করায় এ সপ্তাহে সভা ডেকে বিষয়টি নিয়ে আলোচনা হবে। এ ব্যাপারে আমতলী উপজেলা নির্বাহী অফিসার আসাদুজ্জামান বলেন, এটি দীর্ঘদিনের সমস্যা। প্রয়োজনীয় ব্যবস্থা নেওয়া হবে বলে জানান তিনি।

 

 

"