নিজস্ব প্রতিবেদক

  ১৩ সেপ্টেম্বর, ২০২১

স্কুলের চাপ সড়কে

স্কুল-কলেজ খোলার প্রথম দিনের চাপ পড়েছে রাজধানীর সড়কে। বিভিন্ন পয়েন্টে যানজটও ছিল লক্ষণীয়। তবে বিশেষ করে স্কুল প্রতিষ্ঠানসংলগ্ন এলাকায় যানজট ছিল লক্ষণীয়। গতকাল রবিবার রাজধানীর বিভিন্ন সড়কে যান চলাচলে ধীরগতি দেখা যায়।

গতকাল সকাল সাড়ে ১০টার দিকে বিজয় সরণি মোড়ে দেখা যায়, ট্রাফিক পুলিশ সড়কে গাড়ির চাপ সামলাতে দুটি লেনের গাড়ি একসঙ্গে ছেড়েছে। বিজয় সরণি মোড়ে যান চলাচল নিয়ন্ত্রণ ও নির্বিঘ্ন করতে তাদের তটস্থ থাকতে দেখা যায়। উত্তর বাড্ডা সরকারি প্রাথমিক বিদ্যালয় ও মধ্য বাড্ডা সরকারি প্রাথমিক বিদ্যালয়ের সামনে যানজট ছিল।

এ ছাড়াও মিরপুর সড়কের শ্যামলী থেকে আসাদগেট পর্যন্ত ছিল দীর্ঘ যানজট। মোহাম্মদপুর আইডিয়াল স্কুল ও মোহাম্মদপুর মডেল স্কুল অ্যান্ড কলেজ, ঢাকা রেসিডেনসিয়াল মডেল কলেজ, মোহাম্মদপুর প্রিপারেটরি স্কুল অ্যান্ড কলেজ (বালিকা শাখা) এলাকায় গাড়ির চাপ বেড়ে যায়। অন্য দিনের মতো গতকালও বিজয় সরণি মোড়ে দীর্ঘ যানজট দেখা গেছে। ট্রাফিক সিগন্যালের কারণে প্রত্যেকটি লেনে গাড়ির চাপ বেড়ে যায়। এ ছাড়া বিমানবন্দর সড়ক, মিরপুর রোড, প্রগতি সরণিসহ প্রধান সড়কগুলোর পাশাপাশি শিক্ষাপ্রতিষ্ঠান বহুল এলাকায় যানবাহনের চাপ বেশি ছিল। স্টপেজগুলো ছাড়াও যেখানে সেখানে বাস দাঁড় করিয়ে যাত্রী ওঠা-নামায় সড়ক বিশৃঙ্খল অবস্থায় ছিল।

ধানমন্ডি, বেইলি রোড, মতিঝিল, প্রগতি সরণি, মিরপুর, মোহাম্মদপুরসহ স্কুলবহুল এলাকায় প্রাইভেট কার চলাচল ছিল বেশি। প্রাইভেট কার, মাইক্রোবাস, জরুরি সেবা সংস্থার গাড়ি, অফিসের কর্মীদের বহনের গাড়িতে যানজটের পূর্ণ অবয়বে ফিরেছে রাজধানী। যানজট দেখা গেছে, দৈনিক বাংলা, আরামবাগ, কমলাপুর, কাকরাইল, পল্টন, শাহবাগ, বাংলামোটর, কারওয়ানবাজার, ফার্মগেটেও। শাহবাগ, কারওয়ানবাজার, ফার্মগেট এলাকায় মেট্রোরেল প্রকল্পের জন্য সড়কের বেশির ভাগ অংশ বন্ধ রয়েছে। এর সঙ্গে সকাল থেকে গাড়ির চাপ বেড়ে যাওয়ায় যান চলাচলের গতি আরো কমে গিয়েছিল।

শিকড় পরিবহনের যাত্রী পুষ্প সাহা বলেন, মিরপুর থেকে যাত্রাবাড়ী যেতে বাসে উঠেছি। মিরপুর থেকে ফার্মগেট আসতেই ঘণ্টা শেষ। যাত্রাবাড়ী যেতে কতক্ষণ লাগবে জানি না।

শেরেবাংলা নগর ট্রাফিক বিভাগের সার্জেন্ট মোর্তজা মোশাররফ বলেন, সড়কে গাড়ি বাড়াবে এমন ধারণা ছিল। তবে সেভাবে এর প্রভাব পড়েনি। ট্রাফিক বিভাগ থেকে বিশেষ ব্যবস্থা নেওয়া হয়েছে। অতিরিক্ত পুলিশ কাজ করছেন। মূল সড়কের সঙ্গে লাগোয়া অলিগলি মুখেও ট্রাফিক পুলিশ অবস্থান করছেন। যাতে অহেতুক বিশৃঙ্খলা তৈরি না হয়। পরিস্থিতি আপাতত স্বাভাবিক।

ডিএমপির অতিরিক্ত কমিশনার মো. মুনিবুর রহমান বলেন, দীর্ঘদিন পর সরাসরি ক্লাসরুমে ফিরল শিক্ষার্থীরা। স্বাভাবিকভাবেই রাজধানীতে দীর্ঘদিন পর বাড়তি চাপ তৈরি হয়েছে। তবে ট্রাফিক বিভাগের পক্ষ থেকে বিশেষ ব্যবস্থা নেওয়ায় যানজট ভোগান্তিতে রূপ নেয়নি।

 

 

"

প্রতিদিনের সংবাদ ইউটিউব চ্যানেলে সাবস্ক্রাইব করুন
আরও পড়ুন
  • সর্বশেষ
  • পাঠক প্রিয়
close