প্রতিদিনের সংবাদ ডেস্ক

  ১০ মে, ২০২১

কুমিরেরও শিং ছিল

শিং নেই তবু নাম তার সিংহ! আর শিং ছিল তবু তার নাম কোনো দিনই সিংহ ছিল না। তাকে বরং কুমিরের স্বগোত্রই ধরা হতো। এ নিয়ে বিতর্ক ছিল। সেই বিতর্ক এখন দূর হয়েছে। আমেরিকান মিউজিয়াম অব ন্যাচারাল হিস্ট্রিতে সংরক্ষণ করা আছে একটি হর্নড ক্রোকোডাইল বা শিংবিশিষ্ট কুমিরের নিদর্শন। হর্নড ক্রোকোডাইলকে আদতে কুমির প্রজাতির তালিকাভুক্ত করা হবে কি না তা নিয়ে অবশ্য একমত নন বিজ্ঞানীরা।

নিউইয়র্কের ফোর্ডহ্যাম ইউনিভার্সিটির গবেষকরা আমেরিকান মিউজিয়ম অব ন্যাচারাল হিস্ট্রিতে যে নিদর্শনটি সংগ্রহ করা ছিল তার ডিএনএ টেস্ট করে দেখেছেন, হর্নড ক্রোকোডাইল এবং কুমিরের জিনের গঠনে কোনো তফাত নেই। ফলে এবার আর এদের কুমিরের গোত্রভুক্ত করতে কোনো অসুবিধা থাকার কথা নয় বলেই দাবি ফোর্ডহ্যাম ইউনিভার্সিটির অধ্যাপক এবং গবেষণাপত্রের প্রধান লেখক এভন হেকালার।

------
বিজ্ঞানীদের খটকার কারণও ছিল, পৃথিবীতে জলে ও জলভূমিতে যখন শিংওয়ালা কুমির ঘুরে বেড়াত, সেই সময়টাকে চিহ্নিত করা হয়েছে প্রথম দিকের জুরাসিক যুগ হিসেবে। জীববিদদের অনেকেরই দাবি ছিল, জুরাসিক যুগের এই জলজন্তুর সঙ্গে কুমিরের মিল থাকলেও আদতে একে ডাইনোসর প্রজাতির অন্তর্ভুক্ত করাই ঠিক হবে! এবার অবশ্য সব সন্দেহ দূর হলো।

সেই জুরাসিক যুগ থেকে কুমিরদের শারীরিক গড়ন তেমন বদলায়নি। তাই এদের জীবন্ত জীবাশ্ম বলে উল্লেখ করে থাকেন বিজ্ঞানীরা। শিংওয়ালা কুমিররা মোটামুটি ৯ হাজার বছর আগে পৃথিবী থেকে অবলুপ্ত হয়েছে। এদের দেখা মিলত মাদাগাস্কারে। আমেরিকান মিউজিয়াম অব ন্যাচারাল হিস্ট্রিতে যে নিদর্শনটি সংরক্ষিত তাও মাদাগাস্কারে একটি অভিযান চালানোর সময়েই আবিষ্কৃত হয়।

 

 

"

প্রতিদিনের সংবাদ ইউটিউব চ্যানেলে সাবস্ক্রাইব করুন
আরও পড়ুন
  • সর্বশেষ
  • পাঠক প্রিয়
close