অনলাইন ডেস্ক
  ২৩ জানুয়ারি, ২০২১

দেশে প্রথম টিকা পাবেন একজন নার্স

আগামী ২৭ জানুয়ারি দেশে বহুকাঙিক্ষত কোভিড-১৯ টিকাদান শুরু হচ্ছে। এদিন একজন নার্সকে প্রয়োগের মাধ্যমে এই কর্মসূচি শুরু হচ্ছে। পরদিন ঢাকার পাঁচটি হাসপাতালে কয়েকশ জনকে টিকা দিয়ে দেখার পর ৮ ফেব্রুয়ারি সারাদেশে টিকাদান শুরু হবে বলে জানিয়েছেন স্বাস্থ্য সচিব আবদুল মান্নান।

তিনি শনিবার শ্যামলীতে কিডনি হাসপাতাল পরিদর্শনে গিয়ে সাংবাদিকদের বলেন, প্রধানমন্ত্রী শেখ হাসিনা ২৭ জানুয়ারি টিকা দেওয়ার কার্যক্রম ভার্চুয়ালি উদ্বোধন করবেন।

তিনি বলেন, কুর্মিটোলা জেনারেল হাসপাতালে প্রথম টিকা দেওয়া হবে একজন নার্সকে। এছাড়া আরও ২৪ জনকে টিকা দেওয়া হবে। এদের মধ্যে করোনাভাইরাসের সময় কাজ করা সম্মুখযোদ্ধা স্বাস্থ্যকর্মী, বীর মুক্তিযোদ্ধা, শিক্ষক, চিকিৎসক এবং সাংবাদিকরা থাকবেন।

আরও পড়ুনবুধবার থেকে দেশে ভ্যাকসিন দেয়া শুরু

ঢাকায় ২৮ জানুয়ারি ঢাকা মেডিকেল কলেজ হাসপাতাল, কুর্মিটোলা জেনারেল হাসপাতাল, মুগদা জেনারেল হাসপাতাল, কুয়েত মৈত্রী হাসপাতাল ও বঙ্গবন্ধু শেখ মুজিব মেডিকেল বিশ্ববিদ্যালয়ে টিকা দেওয়া হবে।

সচিব বলেন, সেখানে ৪০০ থেকে ৫০০ জনের উপর টিকা প্রয়োগ করা হবে। তাদেরকে এক সপ্তাহ পর্যবেক্ষণে রাখার পর ৮ ফেব্রুয়ারি থেকে সারাদেশে টিকাদান শুরু হবে।

ভারত থেকে উপহার হিসেবে বৃহস্পতিবার সেরাম ইনস্টিটিউটে তৈরি অক্সফোর্ড-অ্যাস্ট্রাজেনেকার ২০ লাখ ডোজ টিকা আসার পরই টিকাদান শুরুর চূড়ান্ত সিদ্ধান্ত হয়।

বাংলাদেশ সরকারিভাবেও ভারতের সেরাম ইনস্টিটিউট থেকে তিন কোটি ডোজ টিকা কিনছে, যার প্রথম চালানে ৫০ লাখ ডোজ টিকা ২৫ জানুয়ারির মধ্যে পৌঁছাবে বলে আশা করা হচ্ছে।

শুরুতে ফেব্রুয়ারির প্রথম ভাগে টিকাদান শুরুর পরিকল্পনা হলেও টিকা আগে পাওয়ায় প্রয়োগের সময়ও এগিয়ে আনা হল।

ভারতে এই টিকার পার্শ্ব প্রতিক্রিয়া তেমন দেখা না গেলেও সতর্কতা হিসেবে শুরুতে ৪০০-৫০০ জনকে দিয়ে প্রতিক্রিয়া দেখতে চায় সরকার।

টিকা বিতরণের পরিকল্পনা ইতোমধ্যেই করে ফেলা হয়েছে।

করোনাভাইরাস,টিকা,নার্স,বাংলাদেশ
আরও পড়ুন
  • সর্বশেষ
  • পাঠক প্রিয়
close