গাইবান্ধা ও চাঁপাইনবাবগঞ্জ প্রতিনিধি

  ২৮ ফেব্রুয়ারি, ২০২১

মায়ের ঘরে পড়ে ছিল ছাত্রীর রক্তাক্ত লাশ

ছেলের হাতে বাবা খুন

সাঘাটা উপজেলার দক্ষিণউল্যা গ্রামে কলেজছাত্রী আতিকা সুলতানা সাদিয়াকে (১৭) শুক্রবার বিকালে ধারালো অস্ত্র দিয়ে কুপিয়ে হত্যা করা হয়েছে। সাঘাটা থানা পুলিশ সংবাদ পেয়ে ঘটনাস্থলে গিয়ে মায়ের শয়ন ঘরের ভেতর থেকে রক্তাক্ত অবস্থায় সাদিয়ার লাশ উদ্ধার করে। এ ঘটনার সঙ্গে জড়িত থাকার সন্দেহে নিহতের মা হামিদা বেগমকে আটক করেছে পুলিশ। নিহত সাদিয়া ভরতখালী ইউনিয়নের দক্ষিণউল্যা গ্রামের আমিনুল ইসলামের মেয়ে এবং উদয়ন মহিলা কলেজের প্রথম বর্ষের ছাত্রী। এ ঘটনায় নিহতের বাবা আমিনুল ইসলাম (৪১) বাদী হয়ে স্ত্রী হামিদা বেগম এবং বড় ছেলে তানজিল আহম্মেদকে (২১) আসামি করে থানায় একটি হত্যা মামলা করেছেন।

গতকাল শনিবার সকালে হামিদা বেগমকে পুলিশ জেলহাজতে পাঠায়। মামলার তদন্ত কর্মকর্তা এসআই নয়ন কুমার সাহা জানান, প্রেমঘটিত কারণে সাদিয়াকে হত্যা করা হয়েছে বলে প্রাথমিভাবে ধারণা করা হচ্ছে। স্থানীয় লোকজন এবং নিহত সাদিয়ার বাবার তথ্যের ভিত্তিতে সাদিয়ার মা হামিদা বেগমকে আটক করা হয়েছে। নিহতের ভাই তানজিল আহম্মেদ পলাতক রয়েছে।

------
এদিকে চাঁপাইনবাবগঞ্জ প্রতিনিধি জানান, সদর উপজেলার রানীহাটি ইউনিয়নের রামচন্দ্রপুরহাট এলাকায় বখাটে ছেলে সুজনের (২৫) হাতে বাবা তরিকুল ইসলাম (৫৬) খুন হয়েছেন। তিনি একই এলাকার মৃত আহসান আলীর ছেলে। গতকাল শনিবার বিকাল ৩টার দিকে তরিকুল ইসলামের নিজ বাড়িতে ঘটনাটি ঘটে। পুলিশ লাশ উদ্ধার করে ময়নাতদন্তের জন্য আধুনিক সদর হাসপাতাল মর্গে প্রেরণ করেছে।

স্থানীয় সূত্রে জানা গেছে, তরিকুল ইসলামের বখাটে ছেলে সুজন তার বাবা তরিকুল ইসলামের কাছে ট্রলি কেনার জন্য টাকা চাইলে তিনি দিতে অপারগতা প্রকাশ করেন। এ নিয়ে বিকাল ৩টার দিকে সুজন তার বাবার সঙ্গে বাকবিতন্ডায় জড়িয়ে পড়ে। এক পর্যায়ে সুজন তার বাবার স্পর্শকাতর স্থান চেপে ধরলে তরিকুল অজ্ঞান হয়ে পড়েন। পরে তিনি মৃত্যুকোলে ঢলে পড়েন। খবর পেয়ে সদর মডেল থানা পুলিশ লাশ উদ্ধার করে মর্গে প্রেরণ করে।

সদর মডেল থানার ওসি মোজাফ্ফর হোসেন জানান, ময়নাতদন্ত রিপোর্ট পাওয়া গেলে মৃত্যুর সঠিক কারণ জানা যাবে। তবে সুজন পলাতক রয়েছে।

 

"

প্রতিদিনের সংবাদ ইউটিউব চ্যানেলে সাবস্ক্রাইব করুন
আরও পড়ুন
  • সর্বশেষ
  • পাঠক প্রিয়
close