ঘাটাইল (টাঙ্গাইল) প্রতিনিধি

  ১৬ সেপ্টেম্বর, ২০২১

একটু বৃষ্টিতেই ঘর ভিজে সয়লাব

ঘাটাইলের চার আশ্রয়ণ প্রকল্প

বড় বড় ফুটায় ব্যবহার করা হয়েছে ছেঁড়া কাঁথা ও পলিথিন। মরিচা পড়ে টিন আর আস্ত নেই। টিনের ঘরের চালা দিয়ে আকাশ দেখা যায়। সামান্য বৃষ্টিতে উঠান ভেজার আগেই ঘর ভিজে যায়। ঘর নির্মাণের পর আর মেরামত করা হয়নি। এমন বেহাল দশা টাঙ্গাইলের ঘাটাইল উপজেলার চারটি পুরোনো আশ্রয়ণ প্রকল্পের। কর্তৃপক্ষ বলছে বছর দুয়েক আগে মেরামত-সংস্কারের জন্য প্রকল্প প্রস্তুত করে ওপরে পাঠানো হয়েছে।

উপজেলার পুরোনো চারটি আশ্রয়ণ প্রকল্প হলোপাঁচটিকড়ী, দেওপাড়া, কাজলা ও লক্ষিন্দর ইউনিয়নের সানবান্দা আশ্রয়ণ প্রকল্প। নির্মাণের পর অদ্যাবধি কোনো সংস্কার কাজ হয়নি। সানবান্দ আশ্রয়ণ প্রকল্পের অবস্থা সবচেয়ে বেহাল। সানবান্দ আশ্রয়ণে ছবি তুলতে গেলে তেড়ে আসেন মর্জিনা বেগম (৪০) নামের একজন বাসিন্দা। বাধা দেন ছবি তুলতে। পরিচয় জানার পর ক্ষোভ নিয়ে বলতে থাকেন, ‘মেলা মানুষ আহে এইহানে, ফটো তুলে, যাওয়ার বেলা কইয়া যায় কাম অইবো, আমাগো ঘরের কিছুই অয়না। ঘরে কারেন্ট নাই, আমাগো সোলার দিছাল, তাও নষ্ট হইয়া গেছে। আইতে অন্ধকারে থাকন লাগে। আশ্রয়ণটির বয়স প্রায় ১৭ বছর। মোট ঘর রয়েছে ৬০টি। এমন দশায় অনেকই চলে গেছেন। যাদের যাওয়ার কোনো জায়গা নেই, তাদের মতো এখনো বসবাস করছে ২৬টি পরিবার।’

লক্ষিন্দর ইউনিয়নের সানবান্দা এলাকার ইউপি সদস্য বাহাদুর মিয়া জানান, উপজেলা প্রশাসনকে বিষয়টি জানানো হয়েছে। এখন পর্যন্ত কোনো পদক্ষেপ নেওয়া হয়নি। সরেজমিনে গিয়ে দেখা যায়, প্রায় একই অবস্থা উপজেলায় আরো তিনটি পুরোনো আশ্রয়ণ প্রকল্পের।

এদিকে উপজেলা প্রকল্প বাস্তবায়ন অফিস সূত্রে জানা যায়, ২০১৯ সালের ২৬ সেপ্টেম্বর চারটি আশ্রয়ণ প্রকল্পের মেরামত-সংস্কার নিমিত্তে এলজিইডি কর্তৃক প্রকল্প প্রস্তুত করে প্রয়োজনীয় ব্যবস্থা গ্রহণের জন্য ঊর্ধ্বতন মহলে পাঠানো হয়েছে। মেরামত ব্যয় ধরা হয়েছে ২ কোটি ৭৫ লাখ ৬২ হাজার টাকা। প্রকল্প বাস্তবায়ন কর্মকর্তা এনামুল হক বলেন, সরেজমিন পরিদর্শন করে সংস্কারের জন্য প্রকল্প প্রস্তুত করে প্রায় দুই বছর আগে প্রকল্প পরিচালক বরাবর পাঠানো হয়েছে। এটি পাস হয়ে আসলে সংস্কার করা হবে। ইউএনও সোহাগ হোসেন বলেন, আমি উপজেলায় সদ্য যোগদান করেছি, আশ্রয়ণ প্রকল্পগুলো পরিদর্শন করব এবং স্থানীয়ভাবে যেগুলোর সমধান করা সম্ভব তা করা হবে। আগের নথিগুলো দেখে এ বিষয়ে ওপরে কথা বলবেন বলে জানান তিনি।

 

 

"

প্রতিদিনের সংবাদ ইউটিউব চ্যানেলে সাবস্ক্রাইব করুন
আরও পড়ুন
  • সর্বশেষ
  • পাঠক প্রিয়
close