ভূরুঙ্গামারী (কুড়িগ্রাম) প্রতিনিধি

  ১১ সেপ্টেম্বর, ২০২১

ভূরুঙ্গামারীতে নালা ভরাট করে বাড়ি

৭০০ একর ফসলি জমিতে জলাবদ্ধতা

কুড়িগ্রামের ভূরুঙ্গামারীতে সরকারি নালায় মাটি ভরাট ও বাঁধ দিয়ে বাড়ি নির্মাণ ও পুকুর খনন করায় প্রায় ৭০০ একর ফসলি জমিতে জলাবদ্ধতার সৃষ্টি হয়েছে। জলাবদ্ধতার কারণে আমন ও বোরো ধানের চারা রোপণ করতে পারেননি প্রায় ২০০ কৃষক। প্রতিকার চেয়ে ভুক্তভোগীরা ইউএনওসহ ঊর্ধ্বতন কর্মকর্তা বরাবর লিখিত অভিযোগ করেছেন।

অভিযোগ সূত্রে জানা গেছে, উপজেলার সদর ইউনিয়নের কামাত আঙ্গারিয়া ও নলেয়া গ্রামের কুড়ারপার, শর্ষারডারা ও মরা দুধকুমর এলাকার বৃষ্টির পানি সলকডারা দিয়ে দুধকুমর নদে গিয়ে নামত। কিন্তু সরকারি নালায় বাঁধ ও বাড়ি নির্মাণ করায় ৭০০ একর জমিতে জলাবদ্ধতার সৃষ্টি হয়েছে।

ক্ষতিগ্রস্ত কৃষক সুলতান, আবদুল হাকিম ও নজরুল ইসলাম বলেন, সলকের ডারাটি সরকারি খাসজমি। এই এলাকার পানি নিষ্কাশনের জন্য একমাত্র নালাটি গ্রামের কয়েক ব্যক্তি বাঁধ দিয়ে ভরাট করে বাড়ি নির্মাণ ও পুকুর খনন করায় চলতি মৌসুমে আমন চারা রোপণ করতে পারেনি।

কৃষক আনিছুর রহমান জানান, মৃত দেলোয়ার হোসেন নামের এক ব্যক্তি সলকের ডারার কিছু অংশ লিজ নেন। পরে মজিবর, হেকমত ও মোতালেবের কাছে বিক্রি করেন।

উপজেলা কৃষি কর্মকর্তা আসাদুজ্জামান জানান, অভিযোগ পাওয়ার পর সরেজমিনে পরিদর্শন করা হয়েছে। প্রশাসনিক হস্তক্ষেপ ছাড়া সমাধান সম্ভব নয়। ইউএনও দীপক কুমার দেব শর্মা জানান, বিষয়টি তদন্তপূর্বক ব্যবস্থা গ্রহণের জন্য একজন কর্মকর্তাকে দায়িত্ব দেওয়া হয়েছে। তবে এখনো তদন্ত রিপোর্ট পাওয়া যায়নি।

 

 

"

প্রতিদিনের সংবাদ ইউটিউব চ্যানেলে সাবস্ক্রাইব করুন
আরও পড়ুন
  • সর্বশেষ
  • পাঠক প্রিয়
close