প্রতিদিনের সংবাদ ডেস্ক

  ২১ নভেম্বর, ২০২১

করোনার বিধিনিষেধ নিয়ে বিক্ষোভে উত্তাল নেদারল্যান্ডস

করোনার নতুন বিধিনিষেধের বিরোধিতায় বিক্ষোভে উত্তাল নেদারল্যান্ডসের শহর রটারডাম। প্রতিবাদকারীরা রাস্তায় নামলে সংঘাতে জড়িয়ে পড়ে নিরাপত্তা বাহিনী। এ সময় ফাঁকা গুলি এবং জলকামান ব্যবহার করে পুলিশ। এতে বেশ কয়েকজন আহত হন। বিক্ষোভকারীরা বেশ কয়েকটি গাড়িতে আগুন দেন এবং পুলিশকে লক্ষ্য করে পাথরও ছোড়েন। খবর বিবিসির।

আন্দোলনকারীরা বলছেন, সরকার ‘কোভিড পাস’ কার্ডের পরিকল্পনা নিয়েছে। এছাড়া আসন্ন নববর্ষ উপলক্ষে আতশবাজি নিষিদ্ধের সিদ্ধান্ত নেওয়ায় ক্ষুব্ধ সাধারণ মানুষ। নেদারল্যান্ডসে করোনার সংক্রমণ বেড়ে যাওয়ায় সম্প্রতি তিন সপ্তাহের জন্য লকডাউনও ঘোষণা করে সরকার।

সরকারের এসব সিদ্ধান্তের প্রতিবাদে শুক্রবার রাতে রাস্তায় নামে সাধারণ মানুষ। আন্দোলনকারীদের দমাতে পুলিশ ফাঁকা গুলিও ছোড়ে। এতে পরিস্থিতির আরো অবনতি হয়। একপর্যায়ে পুলিশের গাড়িতে এবং রাস্তায় আগুন জ্বালিয়ে দেন বিক্ষুব্ধরা। সহিংসতায় জড়িত থাকায় ঘটনাস্থল থেকে বেশ কয়েকজনকে আটক করা হয়েছে।

পুলিশ জানিয়েছে, জনগণের সম্পত্তি রক্ষায় বাধ্য হয়ে সতর্কীকরণ গুলি চালায় নিরাপত্তা বাহিনী। এতে দুজন আহত হয়েছেন। সহিংসতার কারণে রটারডাম শহর জরুরি অবস্থার আওতায় রেখেছে প্রশাসন। এছাড়া প্রধান স্টেশন বন্ধ ঘোষণা রয়েছে। পরিস্থিতি পর্যবেক্ষণে রেখেছে প্রশাসন।

পুলিশের মুখপাত্র প্যাট্রিসিয়া ওয়েসেলস বলেন, ‘সতর্ক করতে (উপরের দিকে) গুলি ছুড়েছিলাম, বিক্ষোভকারীদের লক্ষ্য করেও গুলি ছুড়তে হয়েছে, কেননা পরিস্থিতি তখন ঝুঁকিপূর্ণ হয়ে উঠেছিল।’

তিনি বলেন, ‘আমরা জেনেছি অন্তত দুজন আহত হয়েছেন, সম্ভবত সতর্কীকরণ গুলিতে তারা আহত হয়েছেন। তবে প্রকৃত কারণ বের করতে হবে।’

সামাজিক যোগাযোগমাধ্যমে অনেকে পুলিশের গুলিতে আহত একজনের ছবি পোস্ট করলেও পুলিশ জানিয়েছে, যার ছবি দেখা যাচ্ছে তিনি কীভাবে আহত হয়েছেন তা এখনো নিশ্চিত হতে পারেননি তারা।

রটারডামের মেয়র আহমেদ আবু তালেব শনিবার এক সংবাদ সম্মেলনে সহিংসতার তীব্র নিন্দা জানিয়েছেন।

"

প্রতিদিনের সংবাদ ইউটিউব চ্যানেলে সাবস্ক্রাইব করুন
আরও পড়ুন
  • সর্বশেষ
  • পাঠক প্রিয়
close