নিজস্ব প্রতিবেদক

  ১৩ সেপ্টেম্বর, ২০২১

নারী নির্যাতনের মামলা, কাউন্সিলর চিত্তরঞ্জন পলাতক

রাজধানীর সবুজবাগ থানা আওয়ামী লীগের সাধারণ সম্পাদক এবং ঢাকা দক্ষিণ সিটি করপোরেশনের ৫ নম্বর ওয়ার্ডের কাউন্সিলর চিত্তরঞ্জন দাসের বিরুদ্ধে নারী ও শিশু নির্যাতন দমন আইনে মামলা করেছেন এক ভুক্তভোগী। ওই নারীর সঙ্গে আপত্তিকর একটি ভিডিও সামাজিক যোগাযোগ মাধ্যমে ছড়িয়ে পড়ার পর শনিবার রাতে সবুজবাগ থানায় এ মামলা করা হয়।

সবুজবাগ থানার পরিদর্শক (তদন্ত) শেখ আমিনুল বাসার বিষয়টি নিশ্চিত করে বলেন, চিত্তরঞ্জন দাসের একটি আপত্তিকর ভিডিও ভাইরাল হয়। ওই ভিডিওতে থাকা ভুক্তভোগী নারী থানায় এসে নারী ও শিশু নির্যাতন আইনে মামলা করেছেন। মামলায় উল্লেখ করা হয়, গত ৯ সেপ্টেম্বর বৃহস্পতিবার রাত ৯টার দিকে ওই নারী একটি কাজের জন্য ঢাকা দক্ষিণ সিটি করপোরেশন ৫ নম্বর ওয়ার্ড কাউন্সিলয় অফিসে যান। পরে কাউন্সিলর চিত্তরঞ্জন তাকে একটি কক্ষে নিয়ে অশালীন ও অশোভন আচরণ করেন। এ ঘটনা বাইরে কাউকে প্রকাশ করলে আরো ভয়াবহ খারাপ পরিণতি হবে বলে হুমকি দেন তিনি।

সামাজিক যোগাযোগমাধ্যমে ভাইরাল হওয়া ভিডিওতে দেখা যায়, এক নারীকে চিত্তরঞ্জন দাস নিজের কাছে ডাকছেন। ওই নারী তার কাছে আসার পর তিনি তাকে জড়িয়ে ধরেন। ভিডিওটি সামাজিক যোগাযোগমাধ্যমে পোস্ট হওয়ার পরই ভাইরাল হয়ে যায় ভিডিওটি। আর এ ঘটনার পরপরই সবুজবাগ থানায় মামলা করেন ভুক্তভোগী ওই নারী।

ডিএসসিসি ৫ নম্বর ওয়ার্ড কাউন্সিলর চিত্তরঞ্জনকে আইনের আওতায় আনার ব্যাপারে সবুজবাগ থানার ভারপ্রাপ্ত কর্মকর্তা (ওসি) মুরাদুল ইসলাম বলেন, মামলা হওয়ার পর থেকে কাউন্সিলর চিত্তরঞ্জন পলাতক রয়েছেন। তবে তাকে গ্রেপ্তারের চেষ্টা চলছে বলেও জানান তিনি।

ডিএসসিসি ৫ নম্বর ওয়ার্ড কাউন্সিলর চিত্তরঞ্জনের অফিসে এবং তার ব্যক্তিগত মোবাইল ফোনে যোগাযোগ করেও তার কোনো বক্তব্য পাওয়া যায়নি।

 

 

"

প্রতিদিনের সংবাদ ইউটিউব চ্যানেলে সাবস্ক্রাইব করুন
আরও পড়ুন
  • সর্বশেষ
  • পাঠক প্রিয়
close