শিলান্যাস : অযোধ্যায় প্রথম প্রধানমন্ত্রী মোদিই

প্রকাশ : ০৫ আগস্ট ২০২০, ১৬:১০

পার্থ মুখোপাধ্যায়, কলকাতা

নরেন্দ্র মোদিই দেশের প্রথম প্রধানমন্ত্রী, যিনি অযোধ্যায় রাম জন্মভূমি পরিদর্শন করলেন। এর আগে কোনও প্রধানমন্ত্রী রাম জন্মভূমিতে যাননি বলে জানিয়েছে উত্তর প্রদেশ সরকার। দীর্ঘ ২৯ বছর পর আবার অযোধ্যায় গেলেন মোদি। বুধবার ভূমি পুজো হলো অযোধ্যার রাম মন্দিরের। কড়া নিরাপত্তার মধ্যে দিয়ে রাম মন্দিরের শিলান্যাস করলেন প্রধানমন্ত্রী। ১৯৯২ সালে শেষবার অযোধ্যা গিয়েছিলেন নরেন্দ্র মোদি। তখনই তিনি প্রতিজ্ঞা করেছিলেন যে উত্তরপ্রদেশে এই শহরে তিনি তখনই আবার ফিরবেন, যদি কোনওদিন এখানে রাম মন্দির প্রতিষ্ঠিত হয়। নিজের প্রতিজ্ঞা রেখে দীর্ঘ ২৯ বছর পর রাম মন্দিরের শিলান্যাস অনুষ্ঠানে যোগ দিলেন তিনি।

১৯৯২ সালে শেষবার যখন অযোধ্যা গিয়েছিলেন নরেন্দ্র মোদি, তখন তিনি ছিলেন মূরলি মনোহর জোশির তিরঙ্গা যাত্রার আহ্বায়ক। সংবিধানের ৩৭০ ধারা খারিজ করে জম্মু-কাশ্মীরের বিশেষ মর্যাদা প্রত্যাহার করার দাবিতে এই তিরঙ্গা যাত্রার আয়োজন করা হয়েছিল। গত বছর লোকসভা নির্বাচনের আগে একটি জনসভায় যোগ দিতে ফৈজাবাদ-আম্বেদকরনগরে গিয়েছিলেন মোদী। কিন্তু অযোধ্যা সফর এড়িয়ে গিয়েছিলেন তিনি। অযোধ্যায় প্রধানমন্ত্রী নরেন্দ্র মোদির হাত ধরেই ধূমধাম করে রাম মন্দিরের ভূমি পূজন হয়েছে। করোনা আবহে বিশাল আয়োজন করা হয়েছে।

এরই মধ্যে সকালেই বৈচিত্র্যের মধ্যে ঐক্যের বার্তা দিয়েছেন পশ্চিমবঙ্গের মুখ্যমন্ত্রী মমতা বন্দ্যোপাধ্যায়। ট্যুইটে দেশের সর্বধর্ম সমন্বয়ের কথা তুলে ধরেছেন মমতা। বুধবার সকালে ট্যুইটে মুখ্যমন্ত্রী লিখেছেন, হিন্দু, মুসলিম, শিখ, খ্রিস্টান -একে অপরের ভাই-ভাই! আমার ভারত মহান, মহান আমার হিন্দুস্তান! আমাদের দেশ তার চিরায়ত বৈচিত্রের মধ্যে ঐক্যের ঐতিহ্যকে বহন করে চলেছে, এবং আমাদের শেষ নিঃশ্বাস পর্যন্ত ঐক্যবদ্ধভাবে এই ঐতিহ্যকে সংরক্ষিত রাখব।