নাঙ্গলকোট (কুমিল্লা) প্রতিনিধি

  ৩০ নভেম্বর, ২০২২

নাঙ্গলকোটে বিষপানে নববধূকে হত্যা

ছবি : প্রতিদিনের সংবাদ

বিয়ের চার মাসের মাথায় পপি আক্তার (১৬) নামে এক নববধূকে বিষপানে হত্যার অভিযোগ উঠেছে স্বামী জাফরের বিরুদ্ধে। মঙ্গলবার (২৯ নভেম্বর) রাতের কোনো এক সময় পৌর সদরের শ্রীহাস্য গ্রামের মোবাশ্বেরের ভাড়া বাড়িতে এ ঘটনা ঘটে। বুধবার (৩০ নভেম্বর) মরদেহ উদ্ধার করে ময়নাতদন্তের জন্য কুমিল্লা মেডিকেল কলেজ হাসপাতাল মর্গে পাঠিয়েছে পুলিশ।

নিহতের পরিবার জানায়, চার মাস আগে উপজেলার হেসাখাল ইউপির হেসাখাল গ্রামের আমির হোসেনের ছেলে জাফরের সঙ্গে হিয়াজোড়া গ্রামের আলী আরশাদের মেয়ে পপি আক্তারের বিয়ে হয়। বিয়ের পরে জাফর বেশ কয়ের বার পপিকে মারধর করেন। এনিয়ে এলাকায় সালিশও হয়। সে বিভিন্ন ভয় দেখিয়ে পপির পরিবারের ৭০ হাজার টাকা নিয়ে যায়। এরপর জাফর কাউকে কিছু না জানিয়ে পৌর সদরের শ্রীহাস্য গ্রামের মোবাশ্বেরের বাড়ি ভাড়া নেন। সেখানে ১০-১৫ দিন ধরে রয়েছেন। মঙ্গলবার রাতের কোনো এক সময় পপিকে রুটির সঙ্গে বিষ খাওয়ায় জাফর। পরে সে অসুস্থ হয়ে গেলে বুধবার সকালে নাঙ্গলকোট উপজেলা স্বাস্থ্য কমপ্লেক্সে ভর্তি করা হয়। তবে চিকিৎসক পপিকে মৃত ঘোষণা করলে জাফর পালিয়ে যায়।

নিহতের বাবা আলী আরশাদ বলেন, জাফর জোর করে তার মেয়েকে বিয়ে করেন। বিয়ের পর থেকে পপিকে বেশ কয়েক বার মারধর করে সে। বুধবার সকালে ফোন আসে মেয়ে অসুস্থ তাকে হাসপাতালে ভর্তি করা হয়েছে। ওখানে গিয়ে শুনি বিষপান করেছে। হাসপাতালে নিয়ে গেলে তার মৃত্যু হয়। পরে তাদের ভাড়া বাসায় গিয়ে দেখি বিষ মাখা রুটি। জাফর বিষ মাখা রুটি খাইয়ে আমার মেয়েকে হত্যা করেছে।

নাঙ্গলকোট থানার ওসি মো. ফারুক হোসেন বলেন, ময়নাতদন্তের জন্য মরদেহ কুমিল্লা মেডিকেল কলেজ হাসপাতাল মর্গে পাঠানো হয়েছে। ময়নানতদন্তের রিপোর্ট আসলে মৃত্যুর সঠিক কারণ জানা যাবে। তখন প্রয়োজনীয় ব্যবস্থা নেওয়া হবে।

প্রতিদিনের সংবাদ ইউটিউব চ্যানেলে সাবস্ক্রাইব করুন
পপি আক্তার,নাঙ্গলকোট,নববধূ,বিষপান
আরও পড়ুন
  • সর্বশেষ
  • পাঠক প্রিয়
close