বঙ্গবন্ধুর জন্মশতবার্ষিকী উপলক্ষে বিশেষ অধিবেশনের উদ্যোগ

প্রকাশ : ২১ সেপ্টেম্বর ২০২০, ০০:০০

সংসদ প্রতিবেদক

বঙ্গবন্ধু শেখ মুজিবুর রহমানের জন্মশতবার্ষিকী উপলক্ষে পুনরায় নতুন করে সংসদের বিশেষ অধিবেশন আহ্বানের প্রস্তুতি শুরু হয়েছে। এর আগে গত ২২ ও ২৩ মার্চ এ অধিবেশনের সব প্রস্তুতি সম্পন্ন করেও প্রাণ সংহারী করোনার বিস্তারে স্থগিত হয়। করোনা পরিস্থিতি ধীরে ধীরে স্বাভাবিক হয়ে আসায় নতুন করে উদ্যোগ শুরু করতে যাচ্ছে সংসদ সচিবালয়।

আগামী ৭ নভেম্বর এই বিশেষ অধিবেশন বসতে পারে এমন আভাস পাওয়া গেছে। মুজিববর্ষ উপলক্ষে জাতীয় সংসদের সংশোধিত কর্মসূচি নিয়ে আয়োজিত বৈঠকে এ তথ্য উঠে এসেছে। গতকাল রোববার সংসদ ভবনে আয়োজিত সংসদ সচিবালয়ের সিনিয়র সচিবের সভাপতিত্বে এসংক্রান্ত বৈঠক হয়। বৈঠকে উপস্থিত একাধিক কর্মকর্তা এ তথ্য নিশ্চিত করেছেন। জানা যায়, ভেস্তে যাওয়া আগের অধিবেশনের প্রস্তুতির মতো এবারো বিদেশি অথিদের এই বিশেষ অধিবেশনে আমন্ত্রণ জানানো হবে। তবে সবকিছু নির্ভর করছে করোনা পরিস্থিতির ওপর।

এ ছাড়াও মুজিববর্ষ উপলক্ষে ১০টি কর্মসূচি নিয়েছে জাতীয় সংসদ। এর মধ্যে এখন বৃক্ষরোপণ চলমান রয়েছে। নভেম্বরে মুজিববর্ষের ওয়েবসাইট উদ্বোধন, স্মারক ডাকটিকিট উন্মোচন, ৪ নভেম্বর সংবিধান দিবস উদ্যাপন, মাসব্যাপী আলোকচিত্র ও প্রামাণ্য দলিল প্রদশর্নী, ‘সংসদে বঙ্গবন্ধু’ বই প্রকাশনা, শিশুমেলাসহ বিভিন্ন কর্মসূচি পালন করবে। এর আগে বঙ্গবন্ধু শেখ মুজিবুর রহমানের জন্মশতবার্ষিকী ‘মুজিববর্ষ’ উপলক্ষে জাতীয় সংসদের বিশেষ অধিবেশন স্থগিত করা হয়েছে। ২২ ও ২৩ মার্চ এই অধিবেশন চালানোর কথা ছিল। বিশ্বব্যাপী ছড়িয়ে পড়া করোনাভাইরাসের কারণে উদ্ভূত পরিস্থিতিতে জনস্বাস্থ্যের ঝুঁকির বিষয়টি বিবেচনা করে অধিবেশন স্থগিত করা হয়।

গত ৩ মার্চ রাষ্ট্রপতি আবদুল হামিদ সংবিধানের ৭২(১) ধারা অনুযায়ী দুই দিনের এই বিশেষ অধিবেশনের ডাক দিয়েছিলেন। দুই দিনের বিশেষ অধিবেশনে ভারতের সাবেক রাষ্ট্রপতি প্রণব মুখার্জী ও নেপালের রাষ্ট্রপতি বিদ্যা দেবী ভান্ডারির ভাষণ দেওয়ার কথা ছিল। তবে, প্রণব মুখার্জী সম্প্রতি প্রয়াত হয়েছেন। এখন বঙ্গবন্ধু সম্পর্কে অভিজ্ঞ এমন কাউকে আমন্ত্রণ জানানোর চেষ্টা থাকতে পারে সংসদের পক্ষ থেকে।

`

 

 

"