বিনোদন প্রতিবেদক

  ২৭ নভেম্বর, ২০২০

সুনীতির ব্র্যান্ড অ্যাম্বাসেডর দীপা

সুনীতির ব্র্যান্ড অ্যাম্বাসেডর হলেন জনপ্রিয় নাট্যাভিনেত্রী দীপা খন্দকার। বিলস, গণসাক্ষরতা অভিযান, হ্যালোটাস্ক, নারীমৈত্রী, রেড অরেঞ্জ ও ইউসেপ বাংলাদেশ যৌথভাবে অক্ষফ্যাম ইন বাংলাদেশের সহযোগিতায় ও গ্লোবাল অ্যাফেয়ার্স কানাডার অর্থায়নে গৃহশ্রমিকদের অধিকার, মর্যাদা ও সুরক্ষায় ‘সুনীতি’ ২০১৯ থেকে ২০২৩ সাল পর্যন্ত দীর্ঘ চার বছর মেয়াদি একটি প্রকল্প পরিচালনা করে আসছেন। সুনীতিরই ব্র্যান্ড অ্যাম্বাসেডর হয়ে ‘বিলস’ (বাংলাদেশ ইনস্টিটিউট অব লেবার স্টাডিজ) আয়োজিত একটি সেমিনারে অতিথি হিসেবে অংশ নিয়েছেন দীপা খন্দকার। গেল ২৫ নভেম্বর ‘সিক্সটিন ডে অ্যাক্টিভিজম’ উপলক্ষে রাজধানীর জাতীয় প্রেস ক্লাবে এক সেমিনারে অংশ নেন তিনি।

এতে অংশগ্রহণ প্রসঙ্গে দীপা খন্দকার বলেন, ‘সুনীতির চার বছরের এই প্রকল্পের লক্ষ্য ও উদ্দেশ্য হচ্ছে নারী গৃহশ্রমিকদের প্রশিক্ষণ ও কর্মসংস্থানের মাধ্যমে তাদের অধিকার ও মর্যাদা প্রতিষ্ঠায় সংগঠিত করা, তাদের নিরাপদ ও শোভন কর্ম পরিবেশন নিশ্চিত করা, গৃহকর্মকে একটি প্রাতিষ্ঠানিক কাজ হিসেবে অন্তর্ভুক্তি ও রাষ্ট্রীয় স্বীকৃতি এবং নীতিনির্ধারক, সরকার ও সমাজে গৃহকর্মের সম্মানজনক অবস্থান তৈরির মাধ্যমে বাংলাদেশের নারী গৃহশ্রমিকদের সার্বিক কল্যাণ সাধন করা। সুনীতির হয়ে নারীদের পাশে আছি আমি। তাদের অধিকার আদায়ে আমি যত দিন পারি, সুনীতির সঙ্গে থেকে কাজ করে যাব। আমাকে ব্র্যান্ড অ্যাম্বাসেডর হিসেবে নির্বাচিত করায় আমি গর্বিত, আনন্দিত। শুধু শিল্পী হিসেবেই নয়, সমাজের একজন মানুষ হিসেবে আমি আমার অবস্থান থেকে দায়িত্ব পালন করে যেতে চাই সব সময়।’

------
উল্লেখ্য, জাতীয় আন্তর্জাতিক পর্যায়ে প্রতি বছর ২৫ নভেম্বর থেকে ১০ নভেম্বর পর্যন্ত নারী নির্যাতন প্রতিরোধ পক্ষ অর্থাৎ সিক্সটিন ডে অ্যাক্টিভিজম পালিত হয়ে আসছে। এ বছর সুনীতি প্রকল্পের পক্ষ থেকে বিলসের উদ্যোগে সেমিনারের আয়োজন করা হয়।

এদিকে দীপা খন্দকার নিয়মিত নাটকে অভিনয় করছেন। এরই মধ্যে তিনি মাজনুন মিজানের পরিচালনায় ‘যৌথ প্রযোজনা’ নাটকের কাজ শেষ করেছেন। এ ছাড়াও মীর সাব্বিরের প্রযোজনায় তিনি ‘ডকুড্রামা’ ‘ভালোবাসার বাগান’-এর কাজও শেষ করেছেন।

 

 

"

আরও পড়ুন -
  • সর্বশেষ
  • পাঠক প্রিয়