কুষ্টিয়া প্রতিনিধি

  ০৬ ডিসেম্বর, ২০২০

বঙ্গবন্ধুর ভাস্কর্য ভাঙচুর বিক্ষোভ-প্রতিবাদ

ঢাকায় বঙ্গবন্ধুর ভাস্কর্য স্থাপনে হেফাজতে ইসলামসহ কয়েকটি ইসলামপন্থি দলের বিরোধিতার মধ্যে কুষ্টিয়ায় জাতির পিতার নির্মাণাধীন এক ভাস্কর্য ভাঙচুর করেছে দুর্বৃত্তরা।

গত শুক্রবার রাতের আঁধারে ওই ভাস্কর্যের ডান হাত, পুরো মুখম-ল ও বাঁ হাতের অংশ বিশেষ ভেঙে ফেলা হয়। গতকাল শনিবার সকালে বিষয়টি দৃষ্টিগোচর হলে শহরের বঙ্গবন্ধু সুপার মার্কেট চত্বর ও থানা মোড়ে আওয়ামী লীগ জাসদসহ বিভিন্ন রাজনৈতিক ও সামাজিক সংগঠন বিক্ষোভ সমাবেশ, মিছিল ও মানববন্ধন করে।

------
কুষ্টিয়া পৌরসভার নির্বাহী প্রকৌশলী রবিউল ইসলাম জানান, পৌরসভার উদ্যোগে শহরের প্রাণকেন্দ্র পাঁচ রাস্তার মোড়ে বঙ্গবন্ধুর ভাস্কর্য নির্মাণের কাজ শুরু হয়েছে গত মাসে। একই বেদিতে বঙ্গবন্ধুর তিন ধরনের তিনটি ভাস্কর্য নির্মাণের উদ্যোগ নেওয়া হয়েছে। এছাড়া এই বেদিতে জাতীয় চার নেতার ভাস্কর্যও থাকবে। এরই মধ্যে বঙ্গবন্ধুর একটি ভাস্কর্য স্থাপনের কাজ প্রায় সম্পন্নের পথে। হঠাৎ করে গত শুক্রবার রাতে দুর্বৃত্তরা ভাস্কর্যটির ডান হাত, পুরো মুখম-ল ও বাঁ হাতের অংশ বিশেষ ভেঙে ফেলে। গতকাল শনিবার সকালে এ ঘটনা জানাজানি হলে জনমনে ক্ষোভের সৃষ্টি হয়। ভাস্কর্য ভাঙচুরের প্রতিবাদে মানববন্ধন সমাবেশে কুষ্টিয়া জেলা জাসদের সভাপতি হাজি গোলাম মহসিন বলেন, ভাস্কর্য অপসারণে ধর্মপ্রাণ মুসুল্লিদের উসকে দেওয়া হচ্ছে। স্বাধীনতার স্থপতি বঙ্গবন্ধু শেখ মুজিবুর রহমানের ভাস্কর্য ধ্বংস ও উচ্ছেদের ষড়যন্ত্রে একটি মহল লিপ্ত হয়েছে বলে অভিযোগ করেন তিনি।

কুষ্টিয়া জেলা আওয়ামী লীগের জ্যেষ্ঠ সহসভাপতি পৌর মেয়র আনোয়ার আলী এক প্রতিক্রিয়ায় জানান, মুক্তিযুদ্ধে পরাজিত শক্তি সমাজ ও রাষ্ট্রের নানা স্তরে ঘাপটি মেরে আছে। এরা সুযোগ পেলেই হিংস্র ছোবল মারে। বঙ্গবন্ধুর ভাস্কর্য ভেঙে বিজয়ের মাসে ওরা আস্ফালনের অস্তিত্ব জানান দিচ্ছে। এভাবে ভাস্কর্য ভেঙে বাঙালির হৃদয়ে লালিত ঐতিহ্যকে ধ্বংস করা যাবে না।

কুষ্টিয়া-৩ সদর আসনের সংসদ সদস্য ও বাংলাদেশ আওয়ামী লীগের যুগ্ম সাধারণ সম্পাদক মাহবুব উল আলাম হানিফ প্রতিক্রিয়া ব্যক্ত করে জানান, স্বাধীনতাবিরোধী পরাজিত শক্তি বিজয়ের মাসে বঙ্গবন্ধুর ভাস্কর্য ভাঙচুরের স্পর্ধা দেখিয়েছে। এমন কাপুরুষোচিত নোংড়া কাজের তীব্র নিন্দা ও প্রতিবাদ জানায়। সেইসঙ্গে সংশ্লিষ্ট আইন প্রয়োগকারী সংস্থাকে নির্দেশ দিয়েছি, যারা বঙ্গবন্ধুর ভাস্কর্য ভেঙেছে তাদের দৃষ্টান্তমূলক শাস্তি নিশ্চিতের সব রকম ব্যবস্থা করতে হবে। যাতে ভবিষ্যতে এমন আস্ফালন ও স্পর্ধা দেখানোর সাহস কেউ না পায়।

কুষ্টিয়ার পুলিশ সুপার এস এম তানভির আরাফাত জানান, সিসি টিভির ফুটেজ দেখে ঘটনায় জড়িতদের চিহ্নিত করা হয়েছে। শিগগিরই তাদের আইনের আওতায় আনা হবে।

কুষ্টিয়া জেলা প্রশাসক আসলাম হোসেন বলেন, মহান মুক্তিযুদ্ধের বিজয় মাসে জাতির পিতা ও স্বাধীন বাংলাদেশের স্থপতি বঙ্গবন্ধু শেখ মুজিবুর রহমানের ভাস্কর্য ভেঙে ফেলার বিষয়টি গুরুত্ব সহকারে দেখা হচ্ছে। যারাই এই ভাস্কর্য ভাঙচুরের সঙ্গে জড়িত থাক তাদের চিহ্নিত করে আইনগত ব্যবস্থা নেওয়া হবে।

 

 

"

আরও পড়ুন -
  • সর্বশেষ
  • পাঠক প্রিয়