খুবির ৫ গবেষকের পিএইচডি ডিগ্রি লাভ

প্রকাশ : ১৪ সেপ্টেম্বর ২০২০, ১৩:৫৩ | আপডেট : ১৪ সেপ্টেম্বর ২০২০, ১৪:০২

অনিরুদ্ধ বিশ্বাস, খুবি প্রতিনিধি

খুলনা বিশ্ববিদ্যালয় (খুবি) সিন্ডিকেটের ২০৬তম সভায় বোর্ড অব অ্যাডভান্সড স্টাডিজ এবং একাডেমিক কাউন্সিলের সুপারিশক্রমে ৫ জন গবেষককে তাদের ভিন্ন ভিন্ন বিষয়ে মৌলিক গবেষণার জন্য ডক্টর অব ফিলোসফি (পিএইচডি) ডিগ্রির চূড়ান্ত অনুমোদন দেওয়া হয়েছে। বায়োটেকনোলজি অ্যান্ড জেনেটিক ইঞ্জিনিয়ারিং ডিসিপ্লিনের গবেষক আবদুল জলিল ও ইমদাদুল ইসলাম, এনভায়রনমেন্টাল সায়েন্স ডিসিপ্লিনের গবেষক শরিফুল ইসলাম ও মেহেদী আল মাসুদ এবং  এগ্রোটেকনোলজি ডিসিপ্লিনের গবেষক জাহান আল মাহামুদ এই ডিগ্রি লাভ করেছেন।

বিশ্ববিদ্যালয় সূত্রে জানা গেছে, আবদুল জলিল তার ‘মলিক্যুলার ক্যারেক্টারাইজেশন অব প্রোবায়োটিক ব্যাকটেরিয়া অ্যান্ড ডিভেলপমেন্ট অব প্রোবায়োটিক প্রোডাক্টস ফর হিউম্যান’ শীর্ষক অভিসন্দর্ভের জন্য এই ডিগ্রি প্রাপ্ত পেয়েছেন। তাঁর গবেষণা তত্ত্ববধায়ক ছিলেন একই ডিসিপ্লিনের প্রফেসর ড. খোন্দকার মোয়াজ্জেম হোসেন। ইমদাদুল ইসলামের অভিসন্দর্ভের বিষয় ছিল ‘ইনভেস্টিগেশন অব অ্যান্টিঅক্সিড্যান্ট, অ্যান্টি-ইনফ্ল্যাম্যাটোরি অ্যান্ড ১৫-লাইপোজিজেনাস ইনহিবিটরি অ্যাক্টিভিটিস অব সিলেক্টেড ম্যানগ্রোভ প্ল্যান্টস অব সুন্দরবনস্’। তার গবেষণা তত্ত্বাবধায়ক ছিলেন একই ডিসিপ্লিনের প্রফেসর ড. এস এম মাহাবুবুর রহমান। শরিফুল ইসলামের অভিসন্দর্ভের বিষয় ছিল ‘নলেজ অ্যান্ড প্র্যাকটিস ফর রিডিউসিং দি এফেক্টস্ অব ডাইজেস্টার অন হেলথ ইন সাউথ ওয়েস্ট বাংলাদেশ’। তার গবেষণা তত্ত্বাবধায়ক ছিলেন একই ডিসিপ্লিনের প্রফেসর ড. মুজিবুর রহমান। মেহেদী আল মাসুদের অভিসন্দর্ভের বিষয় ছিল ‘টাইডাল রিভার ম্যানেজমেন্ট অ্যান্ড ইটস ইমপ্যাক্ট ইন দ্য সাউথওয়েস্ট রিজিওন অব বাংলাদেশ’। তার গবেষণা তত্ত্বাবধায়ক ছিলেন একই ডিসিপ্লিনের প্রফেসর ড. আবুল কালাম আজাদ। এবং জাহান আল মাহামুদ তার অভিসন্দর্ভ ‘হেলথ স্ট্যাটাস অব লেন্টিল সিড ইন মেজর লেন্টিল গ্রোয়িং এরিয়াস অব বাংলাদেশ অ্যান্ড ডিটারমিন্যাশন অব কন্ট্রোল মিজারস এগেইনেস্ট লেন্টিল  ডিজিসেস’র জন্য পিএইচডি ডিগ্রি লাভ করেছেন। 

বিশ্ববিদ্যালয়ের উপাচার্য প্রফেসর ড. ফায়েক উজ্জামানের সভাপতিত্বে অনুষ্ঠিত সিন্ডিকেট সভায় পিএইচডি ডিগ্রিপ্রাপ্ত গবেষকদের আন্তরিক শুভেচ্ছা জানিয়ে আশা করা হয়—গবেষকগণ নিজ নিজ কর্মক্ষেত্রে এই গবেষণার বিষয় কাজে লাগিয়ে দেশের অগ্রগতিতে অবদান রাখতে সক্ষম হবেন। একই সাথে গবেষণা তত্ত্বাবধায়কদেরকেও ধন্যবাদ জানানো হয়।

পিডিএসও/হেলাল