সিংগাইর (মানিকগঞ্জ) প্রতিনিধি

  ১৩ সেপ্টেম্বর, ২০২১

বিয়ের ফাঁদে ফেলে সম্পর্ক ও গর্ভপাত ঘটান ইউপি চেয়ারম্যান

পারিবারিক অভাব ও নানা সমস্যাকে পুঁজি করে বিয়ের ফাঁদে পেলে এক তরুণীর সঙ্গে সম্পর্কে জড়ান মানিকগঞ্জের সিংগাইরের এক ইউপি চেয়ারম্যান। অতঃপর তার গর্ভপাত ঘটানো এবং হত্যাচেষ্টার অভিযোগে আদালতে মামলা করেছেন ভুক্তভোগী ওই তরুণী (২১)।

সোমবার ভুক্তভোগী তরুণীর আইনজীবী মো.জাকির হোসেন প্রতিদিনের সংবাদকে বিষয়টি নিশ্চিত করেছেন।

তিনি বলেন, সিংগাইর উপজেলার জামশা ইউনিয়নের চেয়ারম্যান মো. মিজানুর রহমান মিঠুর (৫০) বিরুদ্ধে হত্যাচেষ্টা, প্রতারণা, ধর্ষণ ও গর্ভপাত ঘটানোর অভিযোগে ৫ সেপ্টেম্বর মানিকগঞ্জ নারী ও শিশু নির্যাতন দমন ট্রাইব্যুনালে মামলা দায়ের করেছেন ভুক্তভোগী ওই নারী। মামলাটি আমলে নিয়ে আদালত জুডিশিয়াল তদন্তের জন্য নির্দেশ দিয়েছেন।

মামলার এজাহার সূত্রে জানা যায়, ইউপি চেয়ারম্যান মিজানুর রহমান মিঠু  ওই তরুণীর পারিবারিক সমস্যাকে পুঁজি করে তার সঙ্গে প্রেমের সম্পর্ক গড়ে তোলেন। পরে ২০১৯ সালের ১ জুলাই ইউনিয়ন পরিষদের একটি কক্ষে নিয়ে তাকে অনৈতিক প্রস্তাব দেন। এতে ওই নারী রাজি না হলে এফিডেফিটের মাধ্যমে বিয়ের ফাঁদে ফেলে তার সঙ্গে দৈহিক সম্পর্ক গড়ে তোলেন। একপর্যায়ে চেয়ারম্যান মিঠূ ওই নারীকে নিয়ে একটি ভাড়া বাসায় উঠে দুজন একত্রে বসবাস করতে থাকেন। এরই মধ্যে ওই নারী অন্তঃসত্ত্বা হলে কৌশলে ওষুধ প্রয়োগ করে তার গর্ভপাত ঘটান।

এদিকে ওই নারী ইউপি চেয়ারম্যানকে বিয়ের চাপ দিতে থাকলে ২০২০ সালে ২৪ মার্চ তাকে বিষ প্রয়োগের মাধ্যমে হত্যার চেষ্টা করেন।

এসব অভিযোগের বিষয়ে জানতে চাইলে জামশা ইউপি চেয়ারম্যান মো. মিজানুর রহমান মিঠু ওই নারীর সঙ্গে তার বিয়ের বিষয় স্বীকার করেন। তবে তার বিরুদ্ধে প্রতারণা, গর্ভপাত ঘটানো এবং হত্যাচেষ্টার বিষয় অস্বীকার করেন।

ইউপি চেয়ারম্যান মিঠু বলেন, আমি ওই নারীকে বৈধভাবে বিয়ে করে তিন বছর যাবৎ তার ভরণপোষণসহ সকল দায়িত্ব পালন করছি। আসন্ন ইউপি নির্বাচনকে ঘিরে আমার প্রতিপক্ষ গ্রুপ তাকে ব্যবহার করে আমার বিরুদ্ধে সাজানো মামলা দায়ের করেছেন। যাতে আমি আগামী নির্বাচনে নৌকার মনোয়ন থেকে বঞ্চিত হই।

পিডিএসও/ জিজাক

প্রতিদিনের সংবাদ ইউটিউব চ্যানেলে সাবস্ক্রাইব করুন
ইউপি চেয়ারম্যান,গর্ভপাত,বিয়ের ফাঁদে
আরও পড়ুন
  • সর্বশেষ
  • পাঠক প্রিয়
close