পূজায় হরেক রকমের মিষ্টান্ন

আসছে সনাতন ধর্মাবলম্বীদের সবচেয়ে বড় ধর্মীয় উৎসব দুর্গাপূজা। এ উপলক্ষে নানা আয়োজনের মধ্যে থাকবে হরেক রকমের মিষ্টান্ন, যা তৈরি হবে বেশ যতœ নিয়ে। এগুলোর মধ্যে হালুয়া, নাড়ু, বরফি ও ফিরনির নাম আসে প্রথমে। যথাযথ উপকরণের সঙ্গে পরিমাণমতো চিনি, দুধ ও নারকেলের মিশ্রণে তৈরি হবে এসব মিষ্টান্ন। পূজার দিনে মা-বোনদের সময় বাঁচাতে চটজলদি মিষ্টান্ন তৈরি নিয়ে থাকছে আজকের আয়োজন। রন্ধনশিল্পী তানজিন তিপিয়া

প্রকাশ : ০৯ অক্টোবর ২০২০, ০০:০০

অনলাইন ডেস্ক

নারকেলের নাড়ু

উপকরণ : নারকেল বাটা ২টি, গুড় ১ চাক গ্রেট করা, লবণ ৫ চিমটি।

প্রস্তুত প্রণালি : উপকরণগুলো কড়াইতে নাড়তে থাকুন, যতক্ষণ দলা পাকিয়ে না যায়। দলা বেঁধে গেলে হালকা ঠাণ্ডা হতে দিন, অল্প অল্প হাতে নিয়ে গোলাকৃতি দিলেই নারকেলের নাড়– তৈরি।

বি:দ্র: এখানে দুধ, চিনির পরিমাপ চায়ের বড় কাপে করা হয়েছে। তাই প্রতিটি পরিমাণ একই কাপ দিয়ে করবেন।

 

মুগডাল ফিরনি

উপকরণ : মুগডাল ২৫০ গ্রাম, ১টি নারকেলের অর্ধেক কোরানো (এলাচ, তেজপাতা, লবঙ্গ, দারুচিনি ২টি করে দিয়ে ডাল সেদ্ধ করার পর নারকেলসহ ব্লেন্ডারে অল্প পানি দিয়ে পিষে নেওয়া), চিনি দেড় কাপ, গুঁড়োদুধ ১ কাপ, লবণ ৩ চিমটি, ঘি ৪ টেবিল চামচ।

প্রস্তুত প্রণালি : ঘি গরম করে সব উপকরণ একত্রে দিয়ে নাড়তে থাকুন। হালকা শুকিয়ে ঘন হয়ে এলেই মুগডাল ফিরনি তৈরি।

 

সুজির হালুয়া

উপকরণ : সুজি দেড় কাপ, শুকনো নারকেলের গুঁড়ো আধা কাপ, চিনি ২ কাপ, গুঁড়োদুধ ১ কাপ, লবণ ৪ চিমটি।

প্রস্তুত প্রণালি : সুজি বাদামি করে ভেজে বাকি সব উপকরণ দিয়ে নাড়ুন, দলা পাকিয়ে এলে জ্বাল বন্ধ করে তেল মাখা পাত্রে ঢেলে দিন, হাতে চ্যাপ্টা করে বসিয়ে, ঠা-া হওয়ার অপেক্ষা শেষে মনের মতো করে কাটলেই সুজির হালুয়া তৈরি।

 

চালের বরফি

উপকরণ : আতপ চালের গুঁড়ো ১ কাপ, পানি ৩ কাপ, জাফরান ৩-৪ পাপড়ি, গুঁড়োদুধ ২ কাপ, চিনি দেড় কাপ, এলাচ, তেজপাতা, দারুচিনি, লবঙ্গ ১টি করে, কিশমিশ, বাদাম, খোরমা আধা কাপ করে, গোলাপজল ১ টেবিল চামচ, লবণ ৩ চিমটি, ঘি ২ টেবিল চামচ।

প্রস্তুত প্রণালি : সব উপকরণ একত্রে কড়াইতে মিশিয়ে নাড়ুন যতক্ষণ না দলা পাকিয়ে না যায়, ঘি মাখা পাত্রে চ্যাপ্টা করে বসিয়ে, ঠা-া করে কাটলেই জাফরানি বরফি তৈরি।

 

 

"