পাঁচবিবি (জয়পুরহাট) প্রতিনিধি

  ১২ সেপ্টেম্বর, ২০২১

কম দামে বিপাকে আলু ব্যবসায়ীরা

লাভের আশায় এ বছর হিমাগারে আলু মজুদ রেখে ক্ষতির মুখে পড়েছেন জয়পুরহাটের পাঁচবিবি উপজেলাসহ আশপাশের আলু ব্যবসায়ীরা। প্রতি বস্তা আলুর ক্রয়মূল্য, হিমাগর ভাড়া ও শ্রমিক খরচ বাবদ ব্যবসায়ীদের এক হাজার টাকা খরচ হয়েছে। প্রতি বস্তার পাইকারি মূল্য এখন ৫৫০ থেকে ৬০০ টাকা। এতে প্রতি বস্তায় সাড়ে ৪০০ থেকে ৪৫০ টাকা ক্ষতি হচ্ছে। ব্যবসায়ীদের পাশাপাশি কিছু প্রান্তিক চাষিও হিমাগারে বীজের আলু রেখেছেন বলে জানা গেছে।

উপজেলার আমিরপুর গ্রামের মৃত মতিয়ার রহমানের ছেলে আলু ব্যবসায়ী মেহেদী হাসান প্রতি বছরের মতো এ বছরও পাঁচবিবির চানপাড়ার আফিয়া কোল্ড স্টোরেজে ৫০০ বস্তা আলু মজুদ করেন। একই এলাকার মৃত মহির উদ্দিনের ছেলে তোজাম্মেল হকও ৫০০ বস্তা কার্টিনাল জাতের আলু রাখেন। মৌসুম এলে ষ্টোরে রাখা আলুগুলো বাজারে বিক্রয় করে তারা মুনাফার বিষয়ে আশাবাদী ছিলেন। কিন্তু এখন বাজারে আলুর দাম ক্রয়মূল্যের চেয়েও কম হওয়ায় বড়ধরণের ক্ষতির আশঙ্কা করছেন সংশ্লিষ্টরা।

উপজেলা কৃষি কর্মকর্তা কৃষিবিদ মো. লুৎফর রহমান বলেন, উপজেলার মাটি আলু চাষের জন্য খুবই উপযোগী। প্রতিবছর প্রচুর পরিমাণ আলু উৎপাদন হয়ে থাকে। গত বছর ৭ হাজার হেক্টর জমিতে দেশী-বিদেশী বিভিন্ন জাতের আলুর চাষ করেছেন কৃষকরা। বাজারে এখন দাম কম থাকায় ক্ষতির আশঙ্কা করছেন চাষিরা। তবে সামনে আলুর দাম বাড়বে বলে মনে করেন তিনি।

 

 

"

প্রতিদিনের সংবাদ ইউটিউব চ্যানেলে সাবস্ক্রাইব করুন
আরও পড়ুন
  • সর্বশেষ
  • পাঠক প্রিয়
close