আদমদীঘি (বগুড়া) প্রতিনিধি

  ১২ অক্টোবর, ২০২১

ওদের কোনো দেশ নেই

ভারত থেকে দলছুট হয়ে বগুড়ায় এসেছে একটি হনুমান। গত পাঁচ দিন ধরে হনুমানটি আদমদীঘির সান্তাহার পৌর শহরের বিভিন্ন জায়গায় ঘুরে বেড়াচ্ছে। কিছু মানুষ তার দিকে খাবার ছুড়ে দিলেও খাবারগুলো খাচ্ছে না। সবচেয়ে বড় সমস্যা হচ্ছে মানুষের ভিড়। দেশ ও সীমানা ভুলে আসা হনুমানটি যেখানেই যাচ্ছে সেখানেই শত শত মানুষ ভিড় করছে। এ কারণে সে ভীত হয়ে পড়েছে। পাঁচ দিন ধরে হনুমানটি শহরের বিভিন্ন স্থানে ঘুরে বেড়ালেও বন বিভাগের কেউ উদ্ধার করতে আসেননি।

সরেজমিনে রবিবার দুপুরে এটিকে দেখা যায় সান্তাহার স্টেশন রোডের একটি দোকানের সামনে। শত শত মানুষ সেখানে ভিড় করেছে। সান্তাহার স্টেশন রোডের ব্যবসায়ী হিটলার বলেন, পাঁচ দিন ধরে হনুমানটি ঘুরে বেড়াচ্ছে। হনুমানটি দ্রুত উদ্ধার করার জন্য বন বিভাগের কর্মকর্তাদের দৃষ্টি আকর্ষণ করেন তিনি।

স্টেশন এলাকার আরেক ব্যবসায়ী সবুজ হোসেন বলেন, হনুমানটি উদ্ধার না করলে অনাহারে মারা যেতে পারে। সান্তাহার বিপি উচ্চবিদ্যালয়ের সহকারী শিক্ষক মোহসিন আলী বলেন, ‘ভারত থেকে মালবাহী ট্রাকে করে আসা দলছুট এই হনুমান এখন চরম বিপাকে পড়েছে। অবিলম্বে বন বিভাগের কর্মকর্তাদের দৃষ্টি আকর্ষণ করছি, যেন হনুমানটি দ্রুত উদ্ধার করা হয়। তাহলে হয়তো হনুমানটি বেঁচে যেতে পারে।’ গত পাঁচ দিন ধরে হনুমানটিকে উদ্ধার না করায় বন বিভাগের দায়িত্বপ্রাপ্ত কর্মকর্তার প্রতি তিনি ক্ষোভ প্রকাশ করেন।

আদমদীঘি উপজেলা প্রাণিসম্পদ কর্মকর্তা (ভারপ্রাপ্ত) ডা. কামরুন্নাহার বলেন, ‘কোনো প্রাণী অসুস্থ হয়ে পড়লে তাদের চিকিৎসা দেওয়ার দায়িত্ব আমাদের। ফলে এ বিষয়ে আমাদের কিছুই করার নেই।’ আদমদীঘি উপজেলার দায়িতপ্রাপ্ত বন কর্মকর্তা আক্তারুজ্জামান ফোনে বলেন, ‘হনুমানটি উদ্ধারের কোনো সরঞ্জাম না থাকায় এটিকে উদ্ধার করা সম্ভব হচ্ছে না। তবে রাজশাহী বন্যপ্রাণী সংরক্ষণ বিভাগে বিষয়টি জানানো হয়েছে।’

 

 

"

প্রতিদিনের সংবাদ ইউটিউব চ্যানেলে সাবস্ক্রাইব করুন
আরও পড়ুন
  • সর্বশেষ
  • পাঠক প্রিয়
close