প্রতিদিনের সংবাদ ডেস্ক

  ১৪ সেপ্টেম্বর, ২০২১

আফগানিস্তানের জন্য ৬০ কোটি ডলার চায় জাতিসংঘ

আফগানিস্তানে মানবিক বিপর্যয় মোকাবিলায় ৬০ কোটি মার্কিন ডলারের তহবিল সংগ্রহ করতে চায় জাতিসংঘ। এজন্য সুইজারল্যান্ডের জেনেভায় সংস্থাটি এক সম্মেলনের আয়োজন করেছে। জাতিসংঘ আগেই সতর্ক করে বলেছে, আফগানিস্তান তালেবানের নিয়ন্ত্রণে যাওয়ার পরিপ্রেক্ষিতে দেশটিতে মানবিক সংকট দেখা দিয়েছে। খবর বিবিসি ও রয়টার্সের।

আফগানিস্তানে তালেবান ক্ষমতা দখলের পর থেকে খাদ্য সংকটের কারণে মানবিক বিপর্যয় শুরু হয়েছে। যদিও এর আগে থেকেই মোট জনসংখ্যার অর্ধেকই সাহায্যের ওপর নির্ভরশীল ছিল। খরা, নগদ অর্থ এবং খাদ্য সংকটের কারণে পরিস্থিতি আরো খারাপ হতে পারে বলে জাতিসংঘের কর্মকর্তা এবং বিভিন্ন সাহায্য সংস্থার প্রতিনিধিরা সতর্ক করেছেন।

পশ্চিমা সমর্থিত সরকারের হঠাৎ পতনের কারণে দেশটিতে বিলিয়ন ডলারের সহায়তা বন্ধ হয়ে গেছে। এর ফলে জাতিসংঘ পরিচালিত কর্মসূচির ওপর বিরূপ প্রভাব পড়ছে।

জাতিসংঘ মহাসচিব অ্যান্তনিও গুতেরেস শুক্রবার সাংবাদিকদের বলেন, আফগানিস্তানে জাতিসংঘ অর্থ সংকটে পড়েছে। এমনকি তারা নিজেদের কর্মীদের বেতনও দিতে পারছেন না।

জেনেভার সম্মেলনে জাতিসংঘ মহাসচিব, আন্তর্জাতিক রেড ক্রসের প্রধান এবং জার্মান পররাষ্ট্রমন্ত্রী হেইকো মাস ছাড়াও বেশকিছু দেশের প্রতিনিধি অংশগ্রহণ করেছেন। জাতিসংঘের পক্ষ থেকে বলা হয়েছে, আন্তর্জাতিক সম্প্রদায়ের কাছে যে ৬০০ মিলিয়ন মার্কিন ডলার অর্থ সহায়তা চাওয়া হয়েছে, তার এক-তৃতীয়াংশ খরচ করা হবে জাতিসংঘের বিশ্ব খাদ্য কর্মসূচিতে (ডব্লিউএফপি)।

আগস্ট ও সেপ্টেম্বর মাসে ১ হাজার ৬০০ আফগানের ওপর একটি জরিপ পরিচালনা করে ডব্লিউএফপি। এই জরিপে দেখা যায়, ৯৩ শতাংশ আফগান পর্যাপ্ত খাবার পায় না। কারণ দেশটির বেশির ভাগ মানুষের কাছে খাবার কেনার মতো অর্থ নেই।

ডব্লিউএফপির আঞ্চলিক উপপরিচালক অ্যানথিয়া ওয়েব বলেন, আফগানদের জীবন বাঁচাতে তাদের কাছে সাহায্য পৌঁছে দিতে সময়ের সঙ্গে পাল্লা দিয়ে কাজ করতে হচ্ছে। দেশটিতে খাবারের মজুদ ফুরিয়ে যাচ্ছে। এই সংকট এড়াতে আক্ষরিক অর্থেই সহায়তা প্রার্থনা করছেন। তারা ঋণ নিচ্ছেন।

 

 

"

প্রতিদিনের সংবাদ ইউটিউব চ্যানেলে সাবস্ক্রাইব করুন
আরও পড়ুন
  • সর্বশেষ
  • পাঠক প্রিয়
close