নিরাপদ দেশে খেলতে চায় বাংলাদেশ

শ্রীলঙ্কা সফর নিয়ে আশার আলো, ডিসেম্বর-জানুয়ারিতে হতে পারে বিপিএল

প্রকাশ : ০৬ আগস্ট ২০২০, ০৯:৫৯ | আপডেট : ০৬ আগস্ট ২০২০, ১০:২৫

ক্রীড়া প্রতিবেদক

তিন ম্যাচের টেস্ট সিরিজ খেলতে গত জুলাইয়ে শ্রীলঙ্কা সফর করার কথা ছিল বাংলাদেশ ক্রিকেট দলের। কিন্তু মহামারি করোনাভাইরাস সব আয়োজনে জল ঢেলে দিয়েছে। তবে দক্ষিণ এশিয়ার দেশগুলোর মধ্যে শ্রীলঙ্কার করোনা পরিস্থিতি অনেকটা অনুকূলে চলে আসায় নতুন করে আশার আলো দেখছে বাংলাদেশ ক্রিকেট বোর্ড (বিসিবি)। লঙ্কানদের বিপক্ষে স্থগিত হয়ে থাকা সিরিজটি আয়োজিত হতে পারে আগামী অক্টোবরে। এ বিষয়ে দুই বোর্ডের মধ্যে আলোচনা চলছে। কদিনের মধ্যেই আসতে পারে চূড়ান্ত সিদ্ধান্ত। আর দ্বীপরাষ্ট্র থেকে ফিরে ডিসেম্বর-জানুয়ারিতে বিপিএল আয়োজনের চিন্তা-ভাবনা নিয়ে এগোচ্ছে বিসিবি।

বোর্ড পরিচালক ও মিডিয়া কমিটির চেয়ারম্যান জালাল ইউনুস জানালেন শুধু শ্রীলঙ্কার সঙ্গে নয়, আন্তর্জাতিক ক্রিকেট খেলতে আরো বেশ কয়েকটি দেশের সঙ্গে আলোচনা চালিয়ে যাচ্ছে বিসিবি, ‘আমরা কয়েকটি দেশের সঙ্গে যোগযোগ করেছি খেলার জন্য। যেসব দেশে খেলা নিরাপদ সেখানে আমরা খেলতে যেতে চাচ্ছি। করোনার প্রকোপ কম কিংবা নেই বললেই চলে সেসব দেশে আমরা খেলতে যেতে পারি কিনা, সেসব নিয়ে আলোচনা চলছে। আমাদের প্রধান নির্বাহী (নিজামউদ্দীন চৌধুরী) জানিয়েছেন, শ্রীলঙ্কা সফর নিয়ে আলোচনা হচ্ছে। আমরাও শ্রীলঙ্কা সফর নিয়ে আশাবাদী।’

গত মার্চ থেকে প্রতিযোগিতামূলক ক্রিকেটের বাইরে বাংলাদেশি ক্রিকেটাররা। জালাল ইউনিস জানালেন, বিসিবি বসে নেই। কীভাবে ক্রিকেটে ফেরা যায় সেই চিন্তা অনেক আগ থেকেই করছে দেশের ক্রিকেটের নিয়ন্ত্রক সংস্থাটি, ‘ঘরোয়া ও আন্তর্জাতিক ক্রিকেট ফেরানোর চিন্তা অনেক দিন ধরেই আমাদের মাথায় আছে। আমরা অনেক দিন ধরেই পরিকল্পনা করছি কীভাবে এটা করা হয়। এরই মধ্যে ব্যক্তিগত অনুশীলনের অনুমতি দিয়েছি কড়া স্বাস্থ্যবিধি মেনে। সামাজিক দূরত্ব মেনে অনুশীলনের সুযোগ দেওয়া হয়েছে। একটি পর্ব হয়েছে। সামনেও হবে। এ ছাড়া জাতীয় দলের স্কোয়াডে যারা আছে তাদেরও আস্তে আস্তে যুক্ত করা হবে। শিগগিরই তারা মাঠে নামবে। সবকিছুর আগে তাদের সুরক্ষার কথা চিন্তা করতে হবে। তাদের নিরাপত্তার কথা মাথায় রেখে শুরু করতে হবে।’

টাইগারদের নিউজিল্যান্ড সফর নিয়েও কথা বলেছেন জালাল ইউনুস, ‘বিশ্বকাপ খেলতে যাওয়ার আগে নিউজিল্যান্ডে টি-টোয়েন্টি সিরিজ খেলার কথা ছিল। এ বছরই যদি কোনো সুযোগ পাই, নয়তো পরের বছর যদি সুযোগ আসে, তাহলে আমরা খেলতে যাব।’

করোনার কারণে টাইগারদের একের পর এক সিরিজ স্থগিত হচ্ছে। বাংলাদেশ সফর করার কথা ছিল অস্ট্রেলিয়া ও নিউজিল্যান্ড ক্রিকেট দলের। টাইগারদের সিরিজ খেলতে যাওয়ার কথা ছিল পাকিস্তান, আয়ারল্যান্ড ও শ্রীলঙ্কাতে। করোনা সব আটকে দিয়েছে। এশিয়া কাপ ও টি-টোয়েন্টি বিশ্বকাপও পিছিয়ে গেছে মহামারির কারণে। একের পর এক সিরিজ-টুর্নামেন্ট পেছানোতে প্রশ্ন উঠছে বিপিএল হবে তো?

জালাল ইউনুসের মতে, এখনই বিপিএল আয়োজনের বিষয়ে চিন্তা করছে না বোর্ড। তবে তিনি এটাও বলেছেন, আগামী ডিসেম্বর-জানুয়ারিতে টুর্নামেন্টটি আয়োজনের চেষ্টা করবে বিসিবি, ‘বিপিএলকে ঘরোয়া টুর্নামেন্ট হিসেবে বিবেচনা করলেও এখানে অনেক আন্তর্জাতিক ক্রিকেটার এসে খেলেন। যে পরিস্থিতি (করোনাভাইরাস) তাতে এখনে আন্তর্জাতিক ক্রিকেটাররা আসবে কী আসবে না সেটা বড় প্রশ্ন। ফ্র্যাঞ্চাইজিগুলো প্রস্তুত কিনা সেটাও জানা জরুরি। এ নিয়ে সেপেটম্বরে আমরা চিন্তা-ভাবনা করব। ডিসেম্বর-জানুয়ারিতে আমাদের ফাঁকা সময় আছে। তখন বিপিএল আয়োজনের চেষ্টা করব।’

বিপিএলের আকাশে শঙ্কার কালো মেঘ জমতে থাকলেও অন্যান্য ফ্র্যাঞ্চাইজিভিত্তিক টুর্নামেন্টগুলোর কার্যক্রম কিন্তু দারুণভাবেই এগোচ্ছে। ১৮ আগস্ট থেকে শুরু হচ্ছে ক্যারিবিয়ান প্রিমিয়ার লিগ (সিপিএল)। ২৮ আগস্ট থেকে শুরু হবে লঙ্কান প্রিমিয়ার লিগ। ফ্র্যাঞ্চাইজিভিত্তিক টুর্নামেন্টগুলোর মধ্যে সবচেয়ে জাকজমকপূর্ণ আসর ইন্ডিয়ান প্রিমিয়ার লিগ (আইপিএল) শুরু হচ্ছে ১৯ সেপ্টেম্বর থেকে। ওদিকে, করোনাকালে ইংল্যান্ড আন্তর্জাতিক ক্রিকেট শুরু করেছে অনেক আগেই। দেখা যাক, বিসিবি তাদের দেখে কতটা উজ্জীবিত হয়।

পিডিএসও/হেলাল