অনলাইন ডেস্ক
  ১৬ জানুয়ারি, ২০২১

পৃথিবীর বৃহত্তম টিকাদান কর্মসূচির উদ্বোধন

ভারতের টিকাদান কর্মসূচির উদ্বোধন করেছেন দেশটির প্রধানমন্ত্রী নরেন্দ্র মোদী। বিশ্বের বৃহত্তম এই টিকাদান কর্মসূচির সূচনা করে মোদি সবাইকে দুই ডোজ নিয়ে স্বাস্থ্যবিধি মানার আহ্বান জানিয়েছেন।

‘ভ্যাকসিন তৈরি হতে অনেক সময় লাগে। কিন্তু দেশের বিজ্ঞানীরা দিন-রাত এক করে পরিশ্রম করেছেন। তাদের প্রশংসা প্রাপ্য,’ মন্তব্য করে মোদি বলেন, ‘৩ কোটি স্বাস্থ্যকর্মীকে ভারত সরকার বিনা মূল্যে টিকা দেবে। করোনার বিরুদ্ধে লড়াই চালিয়ে যাওয়া কর্মীদের আগে টিকা দিয়ে দেশ ঋণ শোধ করবে। দ্বিতীয় দফায় ৩০ কোটি মানুষ টিকা পাবেন। ধীরে ধীরে সব দেশবাসীকেই টিকা দেওয়া হবে।’

একই সঙ্গে মোদি বলেন, ‘ভ্যাকসিনের দুটি ডোজ রয়েছে। এক মাসের মধ্যেই এই দুটি ডোজ নিতে হবে। ভ্রান্তির কোনো স্থান নেই। প্রথম ডোজ দুই সপ্তাহের মধ্যেই কাজ করবে।’

তার কথায়, ‘আপনারা করোনার সময়ে ধৈর্য দেখিয়েছিলেন, টিকা দেওয়ার সময় একই ধৈর্য প্রদর্শন করুন।’

তার সতর্কবাণী, ‘টিকাদানের পরও মাস্ক পরতে হবে, ২ গজের দূরত্ববিধি মানতে হবে। গা ঢিলে দিলে পরিণতি কঠিন হতে পারে।’

ব্রিটিশ-সুইডিশ সংস্থা অ্যাস্ট্রাজেনেকা এবং অক্সফোর্ড ইউনিভার্সিটির প্রযুক্তি নিয়ে সিরাম ইনস্টিটিউটের তৈরি কোভিশিল্ড এবং ভারত বায়োটেকের কোভ্যাক্সিন, এই দু’টি প্রতিষেধক নিয়েই ভারতে টিকাদান কর্মসূচি শুরু হল শনিবার। তার জন্য সব রাজ্য এবং কেন্দ্রশাসিত অঞ্চলে ৩ হাজার ৬টি টিকাকরণ কেন্দ্র গড়ে তোলা হয়েছে। প্রথম দফায় সরকারি ও বেসরকারি স্বাস্থ্যকর্মীদেরই অগ্রাধিকার দেওয়া হয়েছে। প্রথম দিনে প্রতিটি কেন্দ্রে ১০০ জনের শরীরে প্রতিষেধক প্রয়োগের লক্ষ্য রাখা হয়েছে। অর্থাৎ প্রথম দিনেই প্রায় ৩ লাখ স্বাস্থ্যকর্মী প্রতিষেধক নেবেন।

পিডিএসও/ জিজাক

টিকাদান কর্মসূচি,করোনাভাইরাস,মোদী
আরও পড়ুন
  • সর্বশেষ
  • পাঠক প্রিয়
close