ফরিদপুর প্রতিনিধি

  ১০ অক্টোবর, ২০২১

মোবাইলে গেম খেলাকে কেন্দ্র করে বসতবাড়ি ভাঙচুর

ফরিদপুরের আলফাডাঙ্গায় মোবাইলে গেম খেলাকে কেন্দ্র করে প্রতিপক্ষের হামলায় বসতবাড়ি ভাঙচুরের ঘটনা ঘটেছে। রবিবার (১০ অক্টোবর) ভোরে আলফাডাঙ্গা সদর ইউনিয়নের বারইপাড়া গ্রামে এ ঘটনা ঘটে। এ ঘটনায় ৪ জনকে আটক করেছে পুলিশ।

জানা যায়, সদর ইউনিয়নের বারইপাড়া গ্রামের খলিল সরদার ও হুমাউন সরদারের বাড়ির লোকজনের মধ্যে বেশ কয়েক বছর ধরে বিরোধ চলছিল। ৪ অক্টোবর খলিল সরদারের ছেলে ৭ম  শ্রেণির ছাত্র রিফাত সরদার ও একই গ্রামের হুমাউন সরদারের ছেলে ১০ম শ্রেণির ছাত্র আবিদ সরদারের মধ্যে মোবাইলে গেম খেলাকে কেন্দ্র করে কথা কাটাকাটি হয়ে সংঘাতের সৃষ্টি হয়। এ ঘটনায় দু’পক্ষ থেকে ওই দিনই থানায় লিখিত অভিযোগ দেন। পুলিশ ঘটনাস্থলে গিয়ে দু’পক্ষের লোকজনকে সংঘাত না করার অনুরোধ করেন।

ওই ঘটনার জের ধরে রবিবার ভোর ৬ টায় হুমাউন সরদারের পক্ষের প্রায় ৪০-৫০ জনের একটি দল খলিল সরদারের বাড়িতে প্রবেশ করে ভাঙচুর করে। খবর পেয়ে পুলিশ ঘটনাস্থলে পৌঁছে পরিস্থিতি নিয়ন্ত্রণে আনে। তবে এ ঘটনায় কোন হতাহত হয়নি। 

অভিযোগ অস্বীকার করে হুমাউন সরদার বলেন, খলিল সরদারের স্ত্রী তার পক্ষের লোকজন নিয়ে নিজ বাড়ি ভাঙচুর করে আমাদের ফাঁসানোর চেষ্টা করছে। কিছুদিন আগে আমাকে তারা মেরে আহত করেছিল। এ ঘটনায় দু’পক্ষের লোকজন মামলার প্রস্তুতি নিচ্ছেন বলে জানা যায়। 

ওসি মো. ওয়াহিদুজ্জামান জানান, স্থানীয় আধিপত্য বিস্তার নিয়ে দু’পক্ষের মধ্যে বিরোধ চলে আসচ্ছে। ৪ অক্টোবর বাচ্চাদের মোবাইলে গেম খেলাকে কেন্দ্র করে তাদের মধ্যে কথা কাটাকাটি হয়ে সংঘাতের সৃষ্টি হয়। পুলিশ ঘটনাস্থলে গিয়ে তাদের সংঘাত না করার অনুরোধ করে। রবিবার ভোরে সংঘর্ষের খবর শুনে পুলিশ গিয়ে পরিস্থিতি নিয়ন্ত্রণে নেয়। এ সময় ঘটনাস্থলে থেকে ৪ জনকে আটক করা হয়।

প্রতিদিনের সংবাদ ইউটিউব চ্যানেলে সাবস্ক্রাইব করুন
মোবাইল গেম,বসতবাড়ি ভাঙচুর
আরও পড়ুন
  • সর্বশেষ
  • পাঠক প্রিয়
close