লক্ষ্মীপুর প্রতিনিধি

  ২১ সেপ্টেম্বর, ২০২১

বর্ধিত সভায় যুবলীগের দু’পক্ষের সংঘর্ষ, আহত ১২

লক্ষ্মীপুরে জেলা যুবলীগের বর্ধিত সভাকে কেন্দ্র করে কেন্দ্রীয় নেতাদের শুভেচ্ছা জানাতে অপেক্ষা করার সময় যুবলীগের দু’পক্ষের মধ্যে সংঘর্ষের ঘটনা ঘটে। এতে জেলা যুবলীগের পদ প্রত্যাশী সাবেক জেলা ছাত্রলীগ সাধারণ সম্পাদক নুরুল আজিম বাবর, জেলা যুবলীগ সভাপতি সালাহ উদ্দিন টিপুসহ উভয়পক্ষের অন্তত ১২ জন নেতা-কর্মী আহত হয়েছেন।

মঙ্গলবার (২১ সেপ্টেম্বর) বেলা ১২টার দিকে রামগঞ্জ-লক্ষ্মীপুর সড়ক এলাকার বাগবাড়ী ও জেলেপল্লী এলাকায় এ ঘটনা ঘটে। আহতদের লক্ষ্মীপুর সদর হাসপাতালে চিকিৎসা দেয়া হচ্ছে। এদিকে এ ঘটনাকে কেন্দ্র করে শহর জুড়ে চরম উত্তেজনা ও আতঙ্ক বিরাজ করছে। বিভিন্ন পয়েন্টে অতিরিক্ত পুলিশ মোতায়েন করা হয়েছে।

দলীয় সূত্র ও প্রত্যক্ষদর্শীরা জানান, জেলা যুবলীগের বর্ধিত সভাকে ঘিরে পদ প্রত্যাশী যুবলীগ ও ছাত্রলীগের সাবেক অন্তত ১০ জন নেতা প্রার্থিতা ঘোষণা করে নেতাদের শুভেচ্ছো জানিয়ে শহরে বিলবোর্ড, প্লেকার্ড, ব্যানার- ফেস্টুন দিয়ে নেতাদের শুভেচ্ছা জানান। শহরের সোনার বাংলা চাইনিজ রেস্টুরেন্টে মঙ্গলবার দুপুরে এ সভার আয়োজন করে জেলা যুবলীগ।

এ উপলক্ষে কেন্দ্রীয় নেতাদের বরণ করতে বেলা ১২টা থেকে পদ প্রত্যাশীরা নিজ নিজ কর্মী সমর্থকদের নিয়ে রামগঞ্জ-লক্ষ্মীপুর সড়কসহ শহরের বিভিন্ন পয়েন্টে অবস্থান নেন। এসময় জেলা যুবলীগ সভাপতি টিপু ও সাধারণ সম্পাদক নোমান নেতাদের বরণ করতে ওই সড়কে তাদের কর্মী সমর্থকদের নিয়ে যাওয়ার পথে জেলা যুবলীগের শীর্ষ পদ প্রত্যাশী রুপম ও বাবর সমর্থকদের মধ্যে পৃথক (বাগবাড়ী ও জেলে পল্লী এলাকায়) সংঘর্ষ বাধে।

এতে জেলা যুবলীগ সভাপতি সালাহ উদ্দিন টিপু, পদ প্রত্যাশী নুরুল আজিম বাবর, রুপম, কর্মী মনির হোসেন, জামাল, মামুন, খোরশেদ, সবুজ, আব্দুল হাশিমসহ ১২ জন নেতাকর্মী আহত হন। পরে তাদের হাসপাতালে ভর্তি করানো হয়। টিপু প্রাথমিক চিকিৎসা নিয়ে সভায় যোগ দেন বলে জানা যায়।

পরিস্থিতি নিয়ন্ত্রণে শহরে অতিরিক্ত পুলিশ মোতায়েন করা হয়েছে। এদিকে দুপুর ২ টা থেকে বর্ধিত সভা শুরু হয়। সভায় কেন্দ্রীয় যুবলীগের প্রেসিডিয়াম সদস্য হাবিবুর রহমান পবন, যুগ্ম-সাধারণ সম্পাদক ব্যারিস্টার শেখ ফজলে নাঈমসহ দলের কেন্দ্রীয় নেতারা অতিথি হিসেবে অংশ নেন।

জেলা যুবলীগ সভাপতি সালাহ উদ্দিন টিপু অভিযোগ করে বলেন, দলীয় সমর্থকদের ভেতরে বিএনপি জামায়াত ঢুকে বিশৃঙ্খলাতা দেখাতে গেলে আমরা সিনিয়ররা তা চিহ্নিত করতে গেলে তিনিসহ কয়েকজন আহত হয়েছেন। দলীয় কোন গ্রুপিং নেই বলেও দাবি করেন তিনি।

লক্ষ্মীপুর সদর থানার ওসি তদন্ত শিপন বড়ুয়া জানান, বিপুল সংখ্যক লোকের সমাগমে কিছু বিশৃঙ্খলাতা (হাতাহাতি) হয়েছে। কোন সংঘর্ষ হয়নি বলে জানান তিনি।

প্রতিদিনের সংবাদ ইউটিউব চ্যানেলে সাবস্ক্রাইব করুন
লক্ষ্মীপুর,যুবলীগ,সংঘর্ষ
আরও পড়ুন
  • সর্বশেষ
  • পাঠক প্রিয়
close