শাহজাদপুর (সিরাজগঞ্জ) প্রতিনিধি

  ০২ ডিসেম্বর, ২০২০

ফেসবুকে ভিডিও ছড়িয়ে দেয়ার ভয় দেখিয়ে

চতুর্থ শ্রেণির ছাত্রীকে ১মাস ধরে গণধর্ষণ, আটক ১

ফেসবুকে ভিডিও ছড়িয়ে দেওয়ার ভয় দেখিয়ে সিরাজগঞ্জের শাহজাদপুর উপজেলার পোরজনা গুচ্ছ গ্রামের ১৪ বছর বয়সী এক ৪র্থ শ্রেণির ছাত্রীকে ১ মাস ধরে পালাক্রমে ধর্ষণের অভিযোগ পাওয়া গেছে। এ ঘটনার সাথে জড়িত একই গ্রামের ধর্ষক ইউসুফ আলীকে (১৮) বুধবার দুপুরে এলাকাবাসী আটক করে পুলিশে সোপর্দ করেছে। সে ওই গ্রামের আলহাজ আলীর ছেলে ও পেশায় ভ্যান চালক।

এ ঘটনার সাথে জড়িত একই গ্রামের মিন্টু প্রামানিকের ছেলে জীবন (১৭) ও মানিক হোসেনের ছেলে ফয়সালকে (১৭) গ্রেপ্তারের চেষ্টা করছে পুলিশ

এ বিষয়ে নির্যাতিতা মেয়েটির মা পাঁচতোলা খাতুন, বাবা আবুল কালাম প্রামানিক ও খালা শুকু খাতুন জানান, গত ১ মাস আগে স্কুলে যাওয়ার সময় ইউসুফ, জীবন ও ফয়সাল মেয়েটিকে রাস্তা থেকে জোরপূর্বক ধরে নিয়ে গিয়ে ফয়সালের নির্জন বাড়ির একটি ঘরে ৩ জন মিলে গণধর্ষণ করে।

এসময় ইউসুফের মোবাইল ফোনে ফয়সাল এ ধর্ষণচিত্র ধারণ করে। এরপর ওই ভিডিও ফেসবুকে ছড়িয়ে দেওয়ার ভয় দেখিয়ে ৩জন ১ মাস ধরে প্রতিদিন রাতে মেয়েটিকে জোরপূর্বক ডেকে নিয়ে পালাক্রমে ধর্ষণ করে।

মঙ্গলবার রাত ৯ টার দিকে তারা মেয়েটিকে ধর্ষণের উদ্দেশ্যে আবারও জোরপূর্বক টেনে নিয়ে যাওয়ার চেষ্টা করে। এ সময় মেয়েটির চিৎকারে আশপাশের লোকজন ছুটে এসে ইউসুফকে হাতেনাতে আটক করে। লোকজনের উপস্থিতি টের পেয়ে ফয়সাল ও জীবন দৌড়ে পালিয়ে যায়।

এ বিষয়ে শাহজাদপুর থানার এসআই আবুল হোসেন ও এসআই মেহেদী হাসান বলেন, বিষয়টির তদন্ত চলছে। এছাড়া অপর আসামিদের গ্রেপ্তারে চেষ্টা চলছে।

এ ঘটনায় মেয়েটির বাবা আবুল কালাম প্রামানিক বাদী হয়ে শাহজাদপুর থানায় মামলা দায়েরের প্রস্তুতি চলছে। এদিকে ধর্ষণের ঘটনা এলাকায় ছড়িয়ে পড়লে এলাকাবাসী বিক্ষুব্ধ প্রতিক্রিয়ার সৃষ্টি হয়।

পিডিএসও/এসএম শামীম

 

ছাত্রীকে,গণধর্ষণ
আরও পড়ুন -
  • সর্বশেষ
  • পাঠক প্রিয়