নিজস্ব প্রতিবেদক

  ১৩ সেপ্টেম্বর, ২০২১

অনুষ্ঠানে আইনমন্ত্রী

খালেদাকে মুক্তির আবেদন জেলে গিয়ে করতে হবে

আইনমন্ত্রী আনিসুল হক বলেছেন, বিদেশে যেতে হলে বিএনপি চেয়ারপারসন খালেদা জিয়াকে প্রথমে জেলে যেতে হবে। এরপর সেখান থেকে বিদেশে চিকিৎসার বিষয়ে আবেদন করতে হবে। গতকাল রবিবার রাজধানীর বিচার প্রশাসন প্রশিক্ষণ ইনস্টিটিউশনে আইন কমিশনের রজতজয়ন্তীর অনুষ্ঠানে বক্তব্য দেন তিনি।

আইনমন্ত্রী বলেন, খালেদা জিয়ার সাজা স্থগিতের মেয়াদ আরো ছয় মাস বাড়ানোর সুপারিশ স্বরাষ্ট্রমন্ত্রী বিদেশ সফর শেষে দেশে ফেরার পর কার্যকরে সিদ্ধান্ত হবে। যে আবেদনপত্রের ওপর এই সিদ্ধান্ত নেওয়া হয়েছে সেই আবেদনপত্রটি কিন্তু নিষ্পত্তি করা হয়েছে। এই অবস্থায় এটাকে পরিবর্তন করার আইন নেই। যদি এটা করতে হয় তবে তাকে (খালেদা জিয়াকে) জেল খানায় ফিরে গিয়ে এটা করতে হবে। তারপর নতুন আইন করতে হবে। স্বরাষ্ট্রমন্ত্রী দেশে ফিরলে এটা প্রধানমন্ত্রীর অনুমোদনের জন্য যাবে।

কয়েক দিন আগে বিএনপি চেয়ারপারসন খালেদা জিয়ার শর্তহীন মুক্তি চেয়ে স্বরাষ্ট্র মন্ত্রণালয়ে আবেদন করেন তার ছোট ভাই শামীম এস্কান্দর। কারণ আগামী ১৫ সেপ্টেম্বর খালেদা জিয়ার সাজা স্থগিতের মেয়াদ শেষ হচ্ছে। এর মধ্যে আবেদনের মতামত দিয়েছে আইন মন্ত্রণালয়।

জানা গেছে, খালেদা জিয়ার দণ্ড স্থগিত করে দেওয়া মুক্তির মেয়াদ আরো ছয় মাস বাড়ানোর মতামত দিয়েছে আইন মন্ত্রণালয়।

দুর্নীতি মামলায় অভিযুক্ত হয়ে ২০১৮ সালের ৮ ফেব্রুয়ারি করাগারে যান বিএনপি চেয়ারপারসন। গত বছরের ২৫ মার্চ সরকারের নির্বাহী আদেশে ৬ মাসের জন্য মুক্তি পান খালেদা জিয়া।

 

 

"

প্রতিদিনের সংবাদ ইউটিউব চ্যানেলে সাবস্ক্রাইব করুন
আরও পড়ুন
  • সর্বশেষ
  • পাঠক প্রিয়
close