চট্টগ্রাম ব্যুরো

  ১০ মে, ২০২২

চট্টগ্রামে ১৮ হাজার লিটার মজুদ সয়াবিন জব্দ

চট্টগ্রামে গত দুদিনে প্রায় সাড়ে ১৮ হাজার লিটার সয়াবিন তেল জব্দ করা হয়েছে। গতকাল সোমবার চট্টগ্রামের পাহাড়তলী বাজারের এক মুদি দোকানির গুদামে ১৫ হাজার লিটার সয়াবিন তেল জব্দ করেছেন ভোক্তা অধিকার সংরক্ষণ অধিদপ্তরের কর্মকর্তারা। জব্দ এসব তেল সরকারিভাবে নতুন দর নির্ধারণের আগেই কিনে গুদামজাত করা হয়েছিল এবং বাজারে তেলের সংকটের মধ্যে ওই দোকানি বোতলজাত সয়াবিনগুলো বিক্রি না করে গুদামে তালাবদ্ধ করে রেখেছিল বলে জানিয়েছেন অধিদপ্তরের কর্মকর্তারা।

গতকাল বাজারের মেসার্স সিরাজ স্টোরে অভিযান চালায়। সিরাজ সওদাগর নামে পরিচিত ওই প্রতিষ্ঠানের মালিকের তিনটি গোডাউনে মজুদকৃত এসব তেলের সন্ধান পায় জাতীয় ভোক্তা অধিকার সংরক্ষণ অধিদপ্তর। এ সময় তালাবদ্ধ গুদামগুলো থেকে বিভিন্ন ব্র্যান্ডের বোতলজাত ১৫ হাজার লিটার সয়াবিন তেল জব্দ করা হয়।

জাতীয় ভোক্তা অধিদপ্তর চট্টগ্রাম বিভাগীয় উপপরিচালক মোহাম্মদ ফয়েজউল্লাহ বলেন, গোপন সংবাদের ভিত্তিতে সিরাজ সওদাগরের মুদি দোকানে অভিযান চালানো হয়। সেখানে সামান্য তেল বিক্রির জন্য রাখা হয়েছিল। আমরা তার তিনটি গুদাম একে একে পরিদর্শন করি। তালাবদ্ধ গুদামগুলো থেকে বিভিন্ন ব্র্যান্ডের বোতলজাত ১৫ হাজার লিটার সয়াবিন তেল পেয়ে সেগুলো জব্দ করি। জব্দ তেল সরকারিভাবে নতুন দর নির্ধারণের আগে অর্থাৎ ঈদুল ফিতরের আগে কিনে গুদামজাত করা হয়েছিল বলে অভিযানকারী টিমের কাছে দোকানি স্বীকার করেছেন।

তিনি জানান, তেল মজুদ করায় সিরাজ সওদাগরকে ১ লাখ ৭০ হাজার টাকা জরিমানা করা হয়েছে।

এ নিয়ে গত দুদিনে চট্টগ্রামে প্রায় সাড়ে ১৮ হাজার লিটার সয়াবিন তেল উদ্ধার করা হয়েছে। গত রবিবার দুপুরে নগরীর ষোলশহরে কর্ণফুলী মার্কেটের ‘মেসার্স খাজা স্টোরে’ অভিযান চালিয়ে একটি গোপন কুঠুরিতে রাখা ১ হাজার ৫০ লিটার বোতলজাত সয়াবিন তেল উদ্ধার করে ভোক্তা অধিকার সংরক্ষণ অধিদপ্তর। এর আগের রাতে চট্টগ্রামের ফটিকছড়ি উপজেলার বাগানবাজার এলাকার দক্ষিণ গজারিয়া গ্রামে মুদি দোকানি আকতার হোসেনের বাড়িতে অভিযান চালিয়ে ২ হাজার ৩২৮ লিটার সয়াবিন তেল উদ্ধার করে স্থানীয় প্রশাসন।

"

প্রতিদিনের সংবাদ ইউটিউব চ্যানেলে সাবস্ক্রাইব করুন
  • সর্বশেষ
  • পাঠক প্রিয়
close