প্রতিদিনের সংবাদ ডেস্ক

  ১১ সেপ্টেম্বর, ২০২১

সামরিক শাসককে সম্মান নয়

যুক্তরাষ্ট্রের সড়ক থেকে সরল জিয়ার নাম

যুক্তরাষ্ট্রের মেরিল্যান্ডের বাল্টিমোর শহরের সড়ক থেকে জিয়াউর রহমানের সরিয়ে দিয়েছে মেয়র অফিস। এর মধ্য দিয়ে সামরিক শাসক জিয়াউর রহমানের নাম মুছে ফেলা হয়েছে বলে জানিয়েছেন যুক্তরাষ্ট্র আওয়ামী লীগের নেতারা। তারা বলেন, মেয়রের কার্যালয় স্পষ্ট করে দিয়েছে যে, তারা একজন সামরিক স্বৈরশাসককে সম্মান জানাবে না। গত বৃহস্পতিবার দুপুরে নামফলকটি সরানো হয়। যুক্তরাষ্ট্র আওয়ামী লীগের দপ্তর সম্পাদক মোহাম্মদ আলী সিদ্দিকীর সই করা সংবাদ বিজ্ঞপ্তিতে এ তথ্য জানানো হয়।

এর আগে আওয়ামী লীগ নেতারা জিয়াউর রহমানের নাম মুছে ফেলার জন্য মেয়রের কার্যালয়ে আবেদন করেন। বৃহস্পতিবার সেই আবেদনের শুনানি হয় মেরিল্যান্ড রাজ্যের বাল্টিমোর শহরের মেয়রের কার্যালয়ে। যুক্তি ছিল যে, জেনারেল জিয়া একজন সামরিক স্বৈরশাসক ছিলেন। যিনি রক্তাক্ত অভ্যুত্থানের মাধ্যমে ক্ষমতায় এসেছিলেন এবং তাকে আমেরিকার দ্বারা স্বীকৃতি দেওয়া উচিত নয়। বাল্টিমোর সিটি কর্তৃপক্ষ আমাদের দাবির সঙ্গে একমত হয়ে শুনানির পর তার নাম মুছে ফেলে বলে সংবাদ সম্মেলনে জানান আওয়ামী লীগ নেতারা।

এ সময় মিটিংয়ে সংযুক্ত ছিলেন ড. প্রদীপ রঞ্জন কর, শামীম চৌধুরী, প্রকৌশলী মোহাম্মদ আলি সিদ্দিকী, অ্যাডভোকেট শাহ মো. বখতিয়ার, এম এ করিম, জাহাঙ্গীর মঞ্জুর চৌধুরী, জালাল উদ্দিন জলিল, টি মোল্লা, রোমানা আক্তার। এছাড়া বাংলাদেশ থেকে যুক্ত ছিলেন সাবেক বিচারপতি শামসুদ্দিন চৌধুরী মানিক, মোহাম্মদ এ আরাফাত, সিটির প্রতিনিধি ক্যাটলিনা রডরিগেজ, ডেভিড লিয়াম, শহিদুল ইসলাম প্রমুখ।

আওয়ামী লীগ নেতারা বলেন, জিয়ার নাম মুছে ফেলা হয়েছে। কারণ তিনি বাংলাদেশের প্রথম সামরিক শাসক ছিলেন যখন গণতন্ত্রকে আন্ডারলাইন করা হয়।

এর আগে বাল্টিমোরের ২০০ ওয়েস্ট সারাটগা স্ট্রিটে গত জুন মাসে ‘জিয়াউর রহমান ওয়ে’ নামফলক লাগানো হয়েছিল। সূত্র : ইউএনবি নিউজ।

 

 

"

প্রতিদিনের সংবাদ ইউটিউব চ্যানেলে সাবস্ক্রাইব করুন
আরও পড়ুন
  • সর্বশেষ
  • পাঠক প্রিয়
close