শ্যাম্পুর পর কন্ডিশনার লাগানোর সময় কোনও ভুল করছেন না তো?

প্রকাশ : ১৭ অক্টোবর ২০২০, ০৭:১৩

অনলাইন ডেস্ক

চুল বেশ রুক্ষ হয়ে গেলে শ্যাম্পু করার পরে তাকে আঁচড়ে এক জায়গায় রাখা বেশ কঠিন হয়ে দাঁড়ায়। কারণ বেশ কিছু ছোট চুল উড়তে থাকে। চুল ঘষে মোছার পর জট পড়া শুরু হয়। ফলে দেখতে মোটেই ভাল লাগে না। চুল ছিঁড়ে যাওয়ার প্রবণতাও বাড়ে। এমন চুলের সমাধান হিসেবে কন্ডিশনার ব্যবহার করা যেতে পারে। কন্ডিশনার চুলকে নরম করে এবং সুরক্ষা দেয়। এটি কিউটিকলকে বন্ধ করে দেয়। এতে চুল তাপ থেকে সুরক্ষা পায়। তবে কন্ডিশনার ব্যবহারেরও কিছু নিয়ম রয়েছে। কন্ডিশনার ব্যবহারের সময় সঠিক নিয়ম জানা না থাকলে চুলের তেমন কোনো উপকার তো হয়ই না বরং ক্ষতিই হয়ে যায়। বেশি বেশি করে কন্ডিশনার লাগানো মানেই যে কাজও বেশি হবে, তা কিন্তু মোটেই নয়! বরং অতিরিক্ত কন্ডিশনার মাখলে চুল নেতিয়ে যায়, কন্ডিশনার ধুয়ে ফেলাও মুশকিল হয়ে যায়। অল্প করে কন্ডিশনার নিন যাতে সমস্ত চুলে মাখা হয়ে যায়, অথচ বাড়তিও না হয়।

চুলে প্রাণ পেতে আমরা অনেকেই শ্যাম্পু করার পরে চুলে কন্ডিশনার ব্যবহার করে থাকি। বেশিরভাগ মানুষ চুলে কন্ডিশনার ব্যবহার নিয়ম জানেন না। ফলে চুল রুক্ষ হয়ে ওঠে, জটবেঁধে যায় চুল পড়েও যেতে পারে। তাই এ ধরনের সমস্যা হলে আপনাকে অবশ্যই বুঝতে হবে কোথাও ভুল হচ্ছে। শ্যাম্পুর মধ্যে যে ডিটারজেন্ট রয়েছে তার প্রভাবে চুল যাতে রুক্ষ, আর্দ্রতাহীন না হয়ে পড়ে, তার জন্যই কন্ডিশনার ব্যবহারের পরামর্শ দেন বিশেষজ্ঞরা। কিন্তু অনেক সময়ই দেখা যায়, কন্ডিশনার মাখা সত্ত্বেও চুল সেভাবে কোমল, মসৃণ হয় না। চুলে কোমলভাব আনতে 'হেয়ার কন্ডিশনার' ব্যবহার করা হয়। তবে সঠিকভাবে ব্যবহার না করলে সেটা থেকে কোনো ফল পাওয়া যাবে না।

আসুন জেনে নেই কন্ডিশনার ব্যবহার করার সঠিক নিয়ম-

শ্যাম্পু

চুলে কন্ডিশনার ব্যবহারের আগে চুল শ্যাম্পু দিয়ে ভালোভাবে ধুয়ে ফেলুন। তারপর কয়েন বা পয়সার সমান কন্ডিশনার দুই তালুতে ঘষে নিন তারপর আঙ্গুলের সাহায্যে তা সম্পূর্ণ চুলে লাগান।

ম্যাসাজ করুন ধীরে ধীরে

চুলে শ্যাম্পু করা হয়ে গেলে চুলের আগা থেকে গোড়া পর্যন্ত ধীরে ধীরে কন্ডিশনার ম্যাসাজ করুন। মনে রাখবেন কন্ডিশনার মাথার স্কাল্পে যেন না লাগে। শ্যাম্পু লাগানোর সময় তাড়াহুড়ো করা যাবে না। খেয়াল রাখবেন মাথার ত্বকে যেন কন্ডিশনার না লাগে। কন্ডিশনার কেবল চুলে ব্যবহারের উপযোগী। মাথার ত্বকের জন্য না।

কন্ডিশনার সেট করুন

কন্ডিশনার ব্যবহার করার পরেও উপকার পান না অনেকে। তাই কন্ডিশনার লাগানোর সঙ্গে সঙ্গেই তা ধুয়ে ফেলবেন না । চুলে কন্ডিশনার লাগানোর পর ৫ মিনিট বা তার অধিক সময় অপেক্ষা করতে হবে। সবশেষে ঠাণ্ডা পানি দিয়ে কন্ডিশনার ধুয়ে ফেলুন। চুল মসৃণ ও কোমল অনুভূত না হওয়া পর্যন্ত তা ধুতে থাকুন।

কন্ডিশনার নির্বাচন

চুলের ধরন অনুযায়ী ভালো একটি কন্ডিশনার নির্বাচন করুন। কন্ডিশনার ব্যবহারের আগে চুলে শ্যাম্পু করে নিন। কন্ডিশনার ব্যবহারের আগে চুল থেকে পানি কিছুটা ঝড়িয়ে নিন। এর পর ব্যবহার করুন। চুলের ধরন ও দৈর্ঘ্য অনুযায়ী কন্ডিশনার ব্যবহার করুন।

ক্ষতিগ্রস্ত অংশ

কন্ডিশনার দেওয়ার সময় চুলের সবচেয়ে ক্ষতিগ্রস্ত অংশে বেশি করে লাগান। সাধারণত চুলের গোড়ায় ব্যবহার করতে নিষেধ করেন বিশেষজ্ঞরা। কন্ডিশনার লাগানোর পর কয়েক মিনিট অপেক্ষা করুন। এরপর ধুয়ে ফেলুন। তবে ডিপ কন্ডিশনিং করার ক্ষেত্রে একটু বেশি সময় রাখুন।

নিয়মিত কন্ডিশনার ব্যবহার করবেন না

মাঝেমধ্যে এক আধদিন কন্ডিশনার না লাগালেও চলে যেতে পারে, কিন্তু সাবধান, এটাই যেন অভ্যাসে পরিণত না হয়! কন্ডিশনার শ্যাম্পু করা চুলে আর্দ্রতা জুগিয়ে চুল নরম আর উজ্জ্বল করে তোলে। সূত্র: এইসময়

পিডিএসও/ জিজাক