কলিহাসান, দুর্গাপুর (নেত্রকোনা) প্রতিনিধি

  ২৭ সেপ্টেম্বর, ২০২১

ছাত্রীদের কমনরুমকে বাসস্থান বানালেন অধ্যক্ষ!

নেত্রকোণার দুর্গাপুর পৌরসদরের প্রাণকেন্দ্রে অবস্থিত আলিম মাদ্রাসা’র মেয়ে শিক্ষার্থীদের জন্য নির্ধারিত বিশ্রামখানা/কমনরুমটি ওই প্রতিষ্ঠানের অধ্যক্ষের আবাসস্থল হিসেবে ব্যবহৃত হচ্ছে। সরেজমিনে এর সত্যতাও মিলেছে।

নাম প্রকাশে অনিচ্ছুক ওই শিক্ষাপ্রতিষ্ঠানের কয়েকজন শিক্ষক, শিক্ষার্থী ও স্থানীয়রা জানান, কোভিড-১৯ পরিস্থিতিতে শিক্ষাপ্রতিষ্ঠান বন্ধ থাকায় প্রতিষ্ঠানের অধ্যক্ষ মো. আব্দুর রহমান কোনোরকম পরামর্শ বা মিটিং না করেই তার নিজ সিদ্ধান্তে কমনরুমকে বাসস্থান হিসেবে ব্যববহার করছেন।

অথচ দুর্গাপুর পৌর শহরের চকলেঙ্গুরা এলাকায় তার নিজস্ব বাসা রয়েছে। সেই বাসাটি ভাড়া দিয়ে রেখেছেন বলে খোঁজ নিয়ে জানা গেছে।

এদিকে ১২ সেপ্টেম্বর সরকার শিক্ষা প্রতিষ্ঠান খুলে দেওয়ায় চলছে রুটিন মাফিক নিয়মিত ক্লাস। অথচ শিক্ষার্থীদের কমনরুমটি এখনো খালি করেননি অধ্যক্ষ। ছাত্রীদের জন্য নির্ধারিত টয়লেট অধ্যক্ষের দখলে থাকায় বিড়ম্বনায় পড়ছেন শিক্ষার্থীরা।

অধ্যক্ষ মোহাম্মদ আব্দুর রহমানের কাছে এ বিষয়ে জানতে চাইলে তিনি বলেন, নতুন নির্মিত ভবন চালু হলে ছাত্রীদের সেখানে একটি কমনরুম দেওয়া হবে, ছাত্রীদেরকে বর্তমানে শিক্ষকদের টয়লেট ব্যবহারের সুযোগ দেওয়া হয়েছে।

তিনি আরো বলেন, ক্লাস শেষ করে শিক্ষক চলে আসার পর ছাত্রীরা ক্লাসেই অবস্থান করছে। তাই কমনরুমের বিশেষ একটা প্রয়োজন হয় না।

কমনরুম নিজের দখলে নেওয়ার বিষয়ে তিনি বলেন, আমি নেত্রকোণা থেকে এসে অফিস করি। অনেক সময় বিশ্রাম করতে হয়। তাই ওই রুমটি নিজের মতো করে ব্যবহার করছি।

মাদ্রাসার প্রাক্তন গভর্নিং বডির সভাপতি আব্দুল হান্নান বলেন, মাদ্রাসার কমনরুম ব্যবহার করে প্রিন্সিপাল বসবাস করা কোনভাবেই ঠিক নয়।

দ্বীন-ই আলিম মাদ্রাসার দায়িত্বে থাকা সভাপতি ও উপজেলা নির্বাহী কর্মকর্তা মোহাম্মদ রাজীব-উল আহসানের কাছে  এ বিষয়ে জানতে সোমবার বেলা ২টা ৪মিনিটে সরকারি ফোন নম্বরে কল করলে রিসিভ না করায় তার কোন বক্তব্য নেওয়া সম্ভব হয়নি।

প্রতিদিনের সংবাদ ইউটিউব চ্যানেলে সাবস্ক্রাইব করুন
অধ্যক্ষ,ছাত্রীদের কমনরুম
আরও পড়ুন
  • সর্বশেষ
  • পাঠক প্রিয়
close