reporterঅনলাইন ডেস্ক
  ৩০ জুলাই, ২০২১

পর্নোগ্রাফি তৈরিতে রাজি না হওয়ায় স্ত্রীকে নির্যাতন

পর্নোগ্রাফি ভিডিও তৈরিতে রাজি না হওয়ায় স্ত্রীকে নির্যাতন করে বাড়ি থেকে বের দেয়ার অভিযোগ উঠেছে এক যুবকের বিরুদ্ধে। শুক্রবার সকালে স্বামী মোরসালিন আহমেদের (২৭) বিরুদ্ধে পর্নোগ্রাফি ও যৌতুকের অভিযোগে সোনারগাঁ থানায় একটি অভিযোগ দায়ের করেছেন স্ত্রী আমেনা বেগম (১৯)। 

এছাড়া বিষয়টি স্থানীয় উপজেলা নির্বাহী কর্মকর্তা আতিকুল ইসলামকে মৌখিকভাবে জানিয়েছেন বলে দাবি করেন বাদী।

অভিযোগ সূত্রে জানা যায়, এক বছর আগে আমেনাকে অপহরণ করে জোরপূর্বক বিয়ে করেন বৈদ্যের বাজার ইউনিয়নের পঞ্চবটি গ্রামের ফজর আলীর ছেলে মোরসালিন। বিয়ের একমাস পর থেকে তার স্বামী আমেনাকে দেহ ব্যবসা ও পর্নগ্রাফি ভিডিও করতে চাপ সৃষ্টি করে। তার প্রস্তাবে রাজি না হওয়ায় তিনি দেড়লাখ টাকা যৌতুক দিতে নানা সময়ে শারীরিক ও মানসিকভাবে নির্যাতন করেন। স্বামীর উপর্যোপুরি নির্যাতনে আমেনার দুইকান দিয়ে রক্তক্ষরণসহ নানাবিধ শারিরিক সমস্যা দেখা দেয়। বর্তমানে ওই স্ত্রী চিকিৎসাধীন।

নির্যাতিত গৃহবধূ আমেনা আক্তার বলেন, আমার স্বামী মাদক সেবন ও বিক্রির সঙ্গে জড়িত। তার অনৈতিক প্রস্তাবে রাজি না হওয়ায় সে আমাকে নানা সময়ে নির্যাতন করতো। ৮ জুলাই এমন একটি প্রস্তাবে রাজি না হওয়ায় আমাকে হত্যা করতে আসে। তার মোবাইল ফোনের ম্যাসেঞ্জার থেকে আমি জানতে পারি, তিনি বিভিন্ন মেয়েদের প্রলোভন দেখিয়ে তাদের মাধ্যমে পতিতাবৃত্তি ও পর্নোগ্রাফি তৈরি করে। বিষয়টি আমি জানার পর আমি আমার মামার বাড়িতে চলে আসি।

সোনারগাঁ থানার ভারপ্রাপ্ত কর্মকর্তা (ওসি) হাফিজুর রহমান জানান, এ ব্যাপারে একটি অভিযোগ নেয়া হয়েছে। তদন্ত সাপেক্ষে আইনি ব্যবস্থা গ্রহণ করা হবে। 

প্রতিদিনের সংবাদ ইউটিউব চ্যানেলে সাবস্ক্রাইব করুন
পর্নোগ্রাফি,নারী ও শিশু নির্যাতন
আরও পড়ুন
  • সর্বশেষ
  • পাঠক প্রিয়
close