কক্সবাজার প্রতিনিধি

  ১৩ সেপ্টেম্বর, ২০২১

টেকনাফে পাগলা কুকুরের কামড়ে আহত ১৬

টেকনাফের সাবরাং ইউনিয়নের শাহপরীরদ্বীপে বেওয়ারিশ পাগলা কুকুরের কামড়ে গত দুদিনে (১০ ও ১১ সেপ্টেম্বর) ১৬ জন আহত হয়েছেন। টেকনাফ উপজেলা স্বাস্থ্য কমপ্লেক্স থেকে এ তথ্য জানা গেছে। আহতরা হলেন উপজেলার সাবরাং ইউনিয়নের শাহপরীরদ্বীপের সুমাইয়া আক্তার (৪), সোনিয়া আক্তার (৪), ওয়াজ করিম (৩), ফরিদ উসমান (১৩), মোহাম্মদ তৈয়ব (১৭), তৌহিদা আক্তার (৮), খদিজা বিবি (৪), রবিউল হাসান (৭), রিনা আক্তার (১০), মোহাম্মদ ইব্রাহিম (৫), ফাতেমা বেগম (৯), শেফা মনি (৮), মোহাম্মদ শহীদুল্লাহ (৪), মোহাম্মদ ফোরকান (১০), কামরুন নাহার (২) ও নুরুল ইসলাম (৪)। আহতরা শাহপরীরদ্বীপ ডেইলপাড়া ও উত্তরপাড়ার বাসিন্দা।

এরই মধ্যে সুমাইয়া আক্তার, সোনিয়া আক্তার ও ওয়াজ করিমের অবস্থা আশঙ্কাজনক হওয়ায় তাদের কক্সবাজার সদর হাসপাতালে ভর্তি করা হয়েছে।

পাগলা কুকুরের কামড়ে ১৬ জনকে উপজেলার স্বাস্থ্য কমপ্লেক্সের জরুরি বিভাগে চিকিৎসা দেওয়া হয়েছে বলে নিশ্চিত করেছেন টেকনাফ উপজেলা স্বাস্থ্য কমপ্লেক্সের স্বাস্থ্য ও পরিবার-পরিকল্পনা কর্মকর্তা চিকিৎসক টিটু চন্দ্র শীল। অধিকাংশ শিশুর পায়ে ও শরীরের বিভিন্ন অংশে কামড়ের চিহ্ন রয়েছে।

আহত শিশু সুমাইয়া আক্তারের বড় ভাই রহমত উল্লাহ জানান, এলাকার গরিব মানুষ যদি সরকারি হাসপাতালে ভ্যাকসিন না পায়, তাহলে কার কাছ থেকে ভ্যাকসিন পাবে।

প্রতিটি ভ্যাকসিনের দাম ৯০০ টাকা করে কিনতে হয়েছে।

উপজেলা স্বাস্থ্য কর্মকর্তা ও পরিবার-পরিকল্পনা কর্মকর্তা ডা. টিটু চন্দ্র শীল জানান, সরকারিভাবে উপজেলাপর্যায়ে হাসপাতালে র‌্যাবিস ভ্যাকসিন সরবরাহ না থাকায় বাইরে থেকে অভিভাবকদের কিনতে হয়েছে। কুকুরে কামড়ানো প্রতিটি শিশুকে পাঁচটি করে ভ্যাকসিন (ইনজেকশন) পুশ করতে হয়।

 

 

"

প্রতিদিনের সংবাদ ইউটিউব চ্যানেলে সাবস্ক্রাইব করুন
আরও পড়ুন
  • সর্বশেষ
  • পাঠক প্রিয়
close