প্রতিদিনের সংবাদ ডেস্ক

  ১১ সেপ্টেম্বর, ২০২১

নারীদের নিয়ে অশালীন মন্তব্য তালেবানের

নারীর মর্যাদা দিতে নারাজ আফগানিস্তানের ক্ষমতায় আসা তালেবান গোষ্ঠীটি। নিজেদের অধিকার রক্ষায় কাবুলের রাজপথে নারীদের প্রতিবাদ ও নিন্দার মুখে তালেবানের এক নেতা বলেছেন, ‘মন্ত্রিসভায় নারীদের থাকার প্রয়োজন নেই, তাদের উচিত সন্তান জন্ম দেওয়া।’ শুধু তাই নয়, তালেবানের এক কর্মকর্তা বলেছেন, ‘হিজাব না পরা নারীরা ফালি তরমুজের মতো’। নারীদের নিয়ে তালেবানের ওই সদস্যের এমন অশালীন মন্তব্য সামাজিক যোগাযোগ মাধ্যমে ভাইরাল হয়েছে, উঠেছে নিন্দার ঝড়। খবর দ্য ইন্ডিপেনডেন্ট ও এনডিটিভির।

আফগানিস্তানে ১৯৯৬ থেকে ২০০১ সাল পর্যন্ত তালেবানের শাসনকালে নারীদের অধিকার ক্ষুণ্ন হওয়ার বিস্তর অভিযোগ আছে আন্তর্জাতিক মহলে। এবারও ক্ষমতায় আসা তালেবানের নতুন সরকার নারী অধিকার নিয়ে পশ্চিমা বিশ্বের কঠোর নজরদারির মধ্যে রয়েছে। যদিও এবার তালেবান নেতৃত্ব নারী-শিশুর অধিকার রক্ষার প্রতিশ্রুতি দিয়েছিল। তবে তাদের সদ্য ঘোষিত সরকারের তার কোনো প্রতিফলন দেখা যায়নি, মন্ত্রিসভায় রাখা হয়নি কোনো নারীকে। এ নিয়ে কাবুলে কয়েকদিন ধরে বিক্ষোভ করছেন নারীরা। এ বিষয়ে প্রশ্ন করা হলে আফগানিস্তানের স্থানীয় গণমাধ্যম টোলো নিউজকে দেওয়া সাক্ষাৎকারে তালেবানের মুখপাত্র সাইদ জিকরুল্লাহ হাসিমি বলেছেন, ‘নারীরা মন্ত্রী হতে পারে না, এটা এমন কিছু যে তাদের গলায় পরিয়ে দেওয়া হলো কিন্তু তারা তার ভার নিতে পারল না। মন্ত্রিসভায় নারীদের থাকার প্রয়োজন নেই, তাদের উচিত সন্তান জন্ম দেওয়া।’

সাক্ষাৎকার গ্রহণকারী পাল্টা প্রশ্ন করেন, ‘নারীরা সমাজের অর্ধেক’। এ কথার জবাবে হাসিমি বলেন, ‘কিন্তু আমরা তাদের অর্ধেক মনে করি না। কোন ধরনের অর্ধেক? অর্ধেক শব্দটিই ভুল। অর্ধেক মানেই তাদের মন্ত্রিসভায় রাখতে হবে এমন কোনো কথা নেই।’

তালেবান মুখপাত্র সাইদ জিকরুল্লাহ আরো বলেন, ‘আমি সব আফগান নারীর উদ্দেশে বলছি না। রাজপথে চার নারী প্রতিবাদ করেছেন, তারা আফগানিস্তানের সব নারীর প্রতিনিধি হতে পারে না। আফগানিস্তানের নারী তারাই, যারা আফগানিস্তানের জন্য সন্তানের জন্ম দেবে, আর তাদের ইসলামি মূল্যবোধের শিক্ষায় শিক্ষিত করবে।’

এদিকে এক তালেবান নেতা পর্দা না করা নারীদের ফালি তরমুজের সঙ্গে তুলনা করেছেন। আফগানিস্তানে বিবিসির সাংবাদিক জিয়া শাহরিয়ার ওই তালেবান নেতার একটি সাক্ষাৎকারের ভিডিও সামাজিক যোগাযোগমাধ্যম টুইটারে শেয়ার করেন। তাতে দেখা যায়, তালেবানের ওই সদস্য বলেন, ‘আপনারা কি কেউ কাটা তরমুজ কেনেন? নাকি আস্ত তরমুজ কেনেন? অবশ্যই গোটাটাই কেনেন। হিজাব না পরা নারীরা হলো ‘ফালি তরমুজ’।

তালেবান নেতার এমন বক্তব্যের ভিডিও টুইটারে আপলোডের পরপরই প্রচুর সংখ্যক মানুষ এটি দেখেন এবং শেয়ারও করেন। সামাাজিক যোগাযোগ মাধ্যমে ওঠে নিন্দার ঝড়।

 

 

"

প্রতিদিনের সংবাদ ইউটিউব চ্যানেলে সাবস্ক্রাইব করুন
আরও পড়ুন
  • সর্বশেষ
  • পাঠক প্রিয়
close