নিজস্ব প্রতিবেদক

  ০১ মার্চ, ২০২১

কোভিড প্রতিরোধী গণ টিকাদান

গ্রহীতা ৩১ লাখ ছাড়াল

দেশে এ পর্যন্ত নভেল করোনাভাইরাস (কোভিড-১৯) প্রতিরোধী টিকা নিয়েছেন ৩১ লাখ ১০ হাজার ৫২৫ জন। এদের মধ্যে সামান্য পার্শ্বপ্রতিক্রিয়া (জ্বর, টিকা দেওয়া স্থানে লাল হওয়া ইত্যাদি) দেখা গেছে ৭৩৩ জনের। পাশাপাশি গতকাল রবিবার পর্যন্ত টিকার জন্য মোট নিবন্ধন করেছেন ৪৩ লাখ ১১ হাজার ৭০৮ জন। গতকাল রাতে স্বাস্থ্য অধিদপ্তরের এক সংবাদ বিজ্ঞপ্তিতে এসব তথ্য জানানো হয়েছে।

স্বাস্থ্য অধিদপ্তরের হেলথ ইমার্জেন্সি অপারেশন সেন্টার ও কন্ট্রোল রুমের তথ্যমতে, গতকাল সকাল সাড়ে ৮টা থেকে দুপুর আড়াইটা পর্যন্ত কোভিড-১৯ প্রতিরোধী টিকা নিয়েছেন ১ লাখ ২৫ হাজার ৭৫২ জন। এদের মধ্যে মাত্র ২২ জনের সামান্য পার্শ্বপ্রতিক্রিয়া দেখা গেছে। গতকাল যারা টিকা নিয়েছেন তাদের মধ্যে পুরুষ ৭৫ হাজার ১৫৫ এবং নারী ৫০ হাজার ৫৯৭।

------
স্বাস্থ্য অধিদপ্তর জানায়, গতকাল যারা টিকা নিয়েছেন তাদের মধ্যে আছেন ঢাকা বিভাগে ৪৫ হাজার ৯৪৫, ময়মনসিংহ বিভাগে ৪ হাজার ১২৯, চট্টগ্রাম বিভাগে ২৪ হাজার ৭৩৩, রাজশাহী বিভাগে ১১ হাজার ৮৭৯, রংপুর বিভাগে ১০ হাজার ২৫৭, খুলনা বিভাগে ১৮ হাজার ৪৫৬, বরিশাল বিভাগে ৫ হাজার ৩২১ এবং সিলেট বিভাগে ৫ হাজার ৩২ জন।

দেশে গতকাল পর্যন্ত মোট যতজন টিকা নিয়েছেন তাদের মধ্যে আছেন ঢাকা বিভাগে ৯ লাখ ৪১ হাজার ৩৩৯ জন, ময়মনসিংহ বিভাগে ১ লাখ ৩৫ হাজার ১২৪ জন, চট্টগ্রাম বিভাগে ৬ লাখ ৮১ হাজার ৮০৩ জন, রাজশাহী বিভাগে ৩ লাখ ৪৩ হাজার ৯১০ জন, রংপুর বিভাগে ২ লাখ ৮৪ হাজার ২৩০ জন, খুলনা বিভাগে ৩ লাখ ৮৪ হাজার ৫৫৬ জন, বরিশাল বিভাগে ১ লাখ ৪৭ হাজার ৪৭২ জন এবং সিলেট বিভাগে ১ লাখ ৯২ হাজার ৯১ জন।

ক্ষমতাসীন দল আওয়ামী লীগের সভাপতিমন্ডলীর সদস্য এবং সাবেক স্থানীয় সরকার প্রতিমন্ত্রী জাহাঙ্গীর কবির নানক ও তার সহধর্মিণী অ্যাডভোকেট সৈয়দা আরজুমান বানু (নার্গিস) কোভিড-১৯ প্রতিরোধী টিকা নিয়েছেন। গতকাল সকাল ১১টার দিকে রাজধানীর শেখ হাসিনা জাতীয় বার্ন অ্যান্ড প্লাস্টিক সার্জারি ইনস্টিটিউট টিকাদান কেন্দ্রে সপরিবারে টিকা নেন তিনি। টিকা নেওয়ার পর জাহাঙ্গীর কবির নানক আওয়ামী লীগ সভাপতি ও প্রধানমন্ত্রী শেখ হাসিনার প্রতি কৃতজ্ঞতা জানান। তিনি বলেন, টিকা নেওয়ার পর তার কোনো ধরনের পার্শ্বপ্রতিক্রিয়া দেখা দেয়নি এবং তিনি সুস্থ আছেন। একই সঙ্গে তিনি দেশবাসীর কাছে দোয়া চেয়েছেন।

গত ২৭ জানুয়ারি দেশে প্রথম কোভিড প্রতিরোধী টিকা নেন এক নার্স। প্রথম দিন টিকা দেওয়া হয় বিশিষ্ট ২৬ নাগরিককে। পরদিন রাজধানীর পাঁচ হাসপাতালে ৫৪১ ব্যক্তিকে টিকা দেওয়া হয়। আর ৭ ফেব্রুয়ারি সারা দেশে শুরু হয় কোভিড প্রতিরোধী গণটিকাদান কার্যক্রম।

বাংলাদেশে দেওয়া হচ্ছে ভারতের সিরাম ইনস্টিটিউটে তৈরি অক্সফোর্ড-অ্যাস্ট্রাজেনেকার কোভিড প্রতিরোধী টিকা কোভিশিল্ড। সবাইকে এ টিকার দুটি করে ডোজ নিতে হবে। সরকারের কেনা এ টিকার ৩ কোটি ডোজের মধ্যে প্রথম ৫০ লাখ ডোজ গত মাসে আসার পর প্রধানমন্ত্রী শেখ হাসিনা টিকাদান কর্মসূচির উদ্বোধন করেন। এ ছাড়া ভারতের উপহার হিসেবে আরো ২০ লাখ ডোজ অক্সফোর্ডের টিকা পেয়েছে বাংলাদেশ। গত সোমবার দ্বিতীয় চালানে এসেছে আরো ২০ লাখ ডোজ।

 

"

প্রতিদিনের সংবাদ ইউটিউব চ্যানেলে সাবস্ক্রাইব করুন
আরও পড়ুন
  • সর্বশেষ
  • পাঠক প্রিয়
close