আফজাল হোসেন, ফুলবাড়ী (দিনাজপুর)

  ১৫ অক্টোবর, ২০২১

মেয়রের উন্নয়ন ভাবনা

মানুষ ভালো সেবা পেলেই আমি খুশি

ফুলবাড়ী পৌরসভার নির্বাচনে জয়ী হয়ে মেয়রের দায়িত্ব নেওয়ার পর ফুলবাড়ী পৌরসভার নতুন মেয়র মো. মাহমুদ আলম লিটন বিভিন্ন উন্নয়নমূলক কাজ করেছেন। তার এসব কাজকে পৌরবাসী উন্নয়নের চমক হিসেবে দেখছেন। চলতি বছরের ৩১ জানুয়ারি পৌরসভার নতুন মেয়র হিসেবে দায়িত্ব নেন মো. মাহমুদ আলম লিটন। তার দায়িত্ব পালনের ৯ মাস পার হয়েছে। অল্প সময়ের মধ্যেই ফুলবাড়ী পৌরসভার সবকিছু পরিবর্তন করেছেন তিনি। পৌরবাসী যেন পৌরসভায় এসে কোনো কাজের জন্য হয়রানির শিকার না হয়, সেসব ব্যবস্থা করেছেন। তার সঙ্গে কথা হলে তিনি জানিয়েছেন পৌরসভার উন্নয়ন তরান্বিত করা এবং মানুষকে সেবা দিতে নিরলসভাবে কাজ করছেন। মানুষ হয়রানির শিকার না হয়ে ভালো সেবা পেলেই তিনি আনন্দিত ও খুশি হন।

ফুলবাড়ী পৌরসভার স্বজনপুকুর (কানাহার) গ্রামের এক সম্ভ্রান্ত পরিবারে মাহমুদ আলম লিটন জন্মগ্রহণ করেন। তিনি মরহুম নুরুল হুদার তৃতীয় ছেলে। ১৯৮৩ সালে ফুলবাড়ী পৌরসভা স্থাপিত হয়। তারপর ধারাবাহিক নির্বাচনের মাধ্যমে অন্যরা চেয়ারম্যান হিসেবে দায়িত্ব পালন করেন। তার বাবা মরহুম নুরুল হুদা ১৯৮৯ সালে পৌরসভার মেয়র হিসেবে দায়িত্ব পালন করেন। তার বাবার সুনামের ওপর ভর করেই এখন তিনি পৌর মেয়র নির্বাচিত হয়েছেন। সাধারণ জনগণের ভালোবাসায় তিনি বিপুল পরিমাণ ভোট পেয়ে জয়লাভ করেন। তিনি সতন্ত্র প্রার্থী হিসেবে পৌর মেয়র হিসেবে দাঁড়িয়েছিলেন। তার মার্কা ছিল নারিকেল গাছ। তিনি এই প্রতিবেদককে জানান, নির্বাচনে জয়ী হওয়ার পর থেকেই তিনি উন্নয়ন পরিকল্পনা এবং ফুলবাড়ী পৌরসভাকে একটি মডেল পৌরসভা হিসেবে গড়ে তোলার চেষ্টা করছেন।

তিনি আরো জানান, মানুষের কার কী সমস্যা তদারক করছেন প্রত্যেকটি ওয়ার্ডে গিয়ে। আগে ফুলবাড়ী পৌরসভা ছিল অগোছানো, অপরিচ্ছন্ন শহর। বর্তমান পরিচ্ছন্ন শহর এখন ফুলবাড়ী পৌরসভা। ড্রেনেজ ও জলাবদ্ধতার যা সমস্যা ছিল তা পর্যায়ক্রমে সমাধা করছেন। প্রত্যেকটি বাসাবাড়ির পানি এখন জাইকা নির্মিত ড্রেন দিয়ে শহরের পানি নিষ্কাশন হচ্ছে।

পৌরসভার উন্নয়ন ও জনকল্যাণ তার আন্তরিকতা এসব নিয়ে মেয়র মো. মাহমুদ আলম লিটনের কথা হয় প্রতিদিনের ফুলবাড়ী প্রতিনিধি মো. আফজাল হোসেনের সঙ্গে তার পৌরসভার কার্যালয়ে। তিনি জানান, ২০২১-২২ অর্থবছরে ফুলবাড়ী পৌরসভার উন্নয়নে ৮৭ কোটি ৪৩ লাখ ৪৮ হাজার ৩৫৪ টাকার বাজেট ঘোষণা করা হয়েছে। বাজেটে উন্নয়ন খাতে বরাদ্দ হয়েছে ৮৭ কোটি টাকা। সরকারের পক্ষ থেকে বরাদ্দ পেলে সেই অর্থ দিয়ে জলাবদ্ধতা নিরসনে ড্রেনেজ ব্যবস্থা, রাস্তা নির্মাণসহ নানা রকম উন্নয়ন কাজ অব্যাহত থাকবে। ১ কোটি ৫৪ লাখ টাকা ব্যয়ে ২১টি গ্রুপে টেন্ডার দিয়ে কাজ শুরু করা হয়েছে। তার মধ্যে কালভার্ট, ড্রেন, ট্রয়লেট, তারা টিউবওয়েল, সড়ক লাইটিং।

ফুলবাড়ী পৌরসভার মেয়র মাহমুদ আলম লিটন বলেন, ‘বাংলাদেশের স্থপতি বঙ্গবন্ধু শেখ মুজিবর রহমানের কন্যা প্রধানমন্ত্রী শেখ হাসিনা হলেন উন্নয়নের প্রতীক। তিনি দেশকে উন্নয়নের দিকে নিয়ে যাচ্ছেন। আমাদের দেশের উন্নয়ন দেখে উন্নত দেশগুলো তারাও তাদের উন্নয়নের পরিকল্পনা পরিবর্তন করছে। আমি কোনো দল করি না। আমি মানুষের পাশে থেকে সেবা করে সময় কাটাতে চাই। ফুলবাড়ী পৌরসভাকে মডেল পৌরসভা হিসেবে গড়ে তুলতে যা যা করার দরকার তা করে যাব।’

 

আগামীকাল পড়ুন

সারিয়াকান্দি পৌর মেয়রের কথা

 

 

"

প্রতিদিনের সংবাদ ইউটিউব চ্যানেলে সাবস্ক্রাইব করুন
আরও পড়ুন
  • সর্বশেষ
  • পাঠক প্রিয়
close