ব্রেকিং নিউজ

বিসিবির ভাবনায় ঘরোয়া ক্রিকেট

প্রকাশ : ২৪ সেপ্টেম্বর ২০২০, ০৯:১৬

ক্রীড়া প্রতিবেদক

শ্রীলঙ্কা সিরিজ পণ্ড হলেই শুধু ঘরোয়া ক্রিকেট ফেরাবে বাংলাদেশ ক্রিকেট বোর্ড (বিসিবি), বিষয়টা মোটেও এমন নয়। জাতীয় দলের সিরিজটি শেষ পর্যন্ত মাঠে গড়ালেও ঘরোয়া লিগ আয়োজনে বদ্ধপরিকর লাল-সবুজের ক্রিকেটের সর্বোচ্চ সংস্থা। আশার কথা হলো, এ মুহূর্তে দুটি বিষয় নিয়েই পরিকল্পনা করছে টাইগার প্রশাসন।

সপ্তাহ দুয়েক আগে বিসিবি সভাপতি নাজমুল হাসান পাপন বেশ দ্ব্যর্থহীন কণ্ঠেই বলেছিলেন, ‘বাংলাদেশের শ্রীলঙ্কা সফর বাতিল হলে আগামী মাসেই ঘরোয়া ক্রিকেট লিগ আয়োজনের মধ্য দিয়ে প্রায় আট মাস করোনায় অবরুদ্ধ ক্রিকেট ফেরানো হবে।’

বিসিবি সভাপতির ওই ঘোষণার প্রায় দুই সপ্তাহ পেরিয়ে গেলেও সিরিজ নিয়ে এখনো চূড়ান্ত কোনো সিদ্ধান্তে পৌঁছাতে পারেনি আয়োজক লঙ্কান ক্রিকেট বোর্ড (এসএলসি)। তাহলে টাইগারদের ভবিষ্যৎ কী? তিন ম্যাচের টেস্ট সিরিজ যদি শেষ পর্যন্ত আলোর মুখ না-ই দেখে, সে ক্ষেত্রে মুশফিক-তামিমরা কী করবেন? এমন প্রশ্নের উদ্রেক হওয়া নিশ্চয় অসংগত নয়।

না, এমন কোনো সম্ভাবনাই আসলে নেই। শেষ পর্যন্ত যদি সিরিজটি ভেস্তে যায়, তাহলে অবশ্যই দ্রুততম সময়ে ঘরোয়া ক্রিকেট ফেরাবে টাইগার ক্রিকেট প্রশাসন। আর সিরিজ হলেও ঘরোয়া লিগের আয়োজন দেখা যাবে।

গতকাল হোম অব ক্রিকেট মিরপুর শেরেবাংলা জাতীয় স্টেডিয়ামে গণমাধ্যমের মুখোমুখি হয়ে এ কথা জানালেন বোর্ডের প্রধান নির্বাহী নিজামউদ্দিন চৌধুরী সুজন। তিনি বলেন, ‘আমাদের অন্য পরিকল্পনাও আছে। সে ক্ষেত্রে সিদ্ধান্তটার জন্য আমাদের একটু অপেক্ষা করতে হবে। আমাদের কিন্তু এখনো পরিকল্পনা আছে যে, আমরা উভয় বিষয় (লঙ্কা সফর ও ঘরোয়া ক্রিকেট ফেরানো) নিয়েই সামনে এগোব। আমরা যদি এই সিরিজটাও করি, তারপরও আমাদের ঘরোয়া ক্রিকেট লিগ করার পরিকল্পনা রয়েছে।’

ঘরোয়া ক্রিকেট আয়োজন নিয়ে বোর্ডের বিভিন্ন মহলে বিভিন্ন মত শোনা যাচ্ছে। এই যেমন হাই-পারফরম্যান্স চেয়ারম্যান নাঈমুর রহমান দুর্জয় বলছেন করপোরেট ক্রিকেট লিগের কথা। আবার জাতীয় দলের প্রধান নির্বাচক মিনহাজুল আবেদীন নান্নু ভাবছেন ত্রিদলীয় চ্যালেঞ্জিং সিরিজের কথা। তবে ঢাকা প্রিমিয়ার লিগ (ডিপিএল) কিংবা জাতীয় ক্রিকেট লিগের (এনসিএল) ভাবনা একবারেই নেই। কেননা মহামারিকালে এই জাতীয় বড় আসর আয়োজনে এত বিপুলসংখ্যক ক্রিকেটারের জৈব সুরক্ষা নিশ্চিত আদতেই কঠিন।

করপোরেট ক্রিকেট লিগ নিয়ে দুর্জয়ের ভাবনাটি এমন, ‘জাতীয়, হাই-পারফরম্যান্স ও অনূর্ধ্ব-১৯ দল আছে। সবাইকে নিয়ে আমাদের অনেক চুক্তিবদ্ধ ক্রিকেটার আছে। তাদের একসঙ্গে করে যদি কোনো খেলা আয়োজন করতে পারি, সে খুব ভালো হয়।’

আর নান্নুর ত্রিদলীয় চ্যালেঞ্জ সিরিজের পরিকল্পনায় আছে জাতীয় দল, ‘এ’ দল ও হাই-পারফরম্যান্স স্কোয়াড। নেই অনূর্ধ্ব-১৯ দল।

করোনাভাইরাস প্রাদুর্ভাব ছড়ানোর আগে মার্চে গড়িয়েছিল দেশের ঘরোয়া ক্রিকেটের সবচেয়ে মর্যাদার আসর ঢাকা প্রিমিয়ার লিগ। তবে মহামারির সতর্কতায় প্রথম রাউন্ড শেষেই তা অনির্দিষ্টকালের জন্য বন্ধ ঘোষণা করা হয়। এ বছর ঢাকা লিগ আর মাঠে না গড়ালে নতুন পরিকল্পনা অনুয়ায়ীই ঘরোয়া ক্রিকেট ফেরাতে হবে বিসিবিকে।

পিডিএসও/হেলাল