সিরাজগঞ্জ প্রতিনিধি

  ১২ ডিসেম্বর, ২০২১

১২ ডিসেম্বর শুরু হয় শৈলাবাড়ী যুদ্ধ

সিরাজগঞ্জ শহর থেকে ৪-৫ কিলোমিটার দূরে শৈলাবাড়ী গ্রাম। ১৯৭১ সালের মহান মুক্তিযুদ্ধ চলাকালীন সময়ে এই গ্রামের হাই স্কুল মাঠে পাক বাহিনী ক্যাম্প গড়ে তোলে।

ক্যাম্পের পূর্ব দিকে যমুনা নদী আর কয়েক কিলোমিটার দূরেই বয়রা স্টিমার ঘাট। সেই সময় এই স্টিমারঘাট হয়েই রেলপথে ছিল ঢাকার সাথে সিরাজগঞ্জের যোগাযোগ। এই স্টিমার ঘাটের মাধ্যমে নদীপথে ওপারে বাহদুরাবাদ ঘাটের সাথে যোগাযোগ রক্ষা করত পাক বাহিনী। ৬ ডিসেম্বর মিত্রবাহিনীর বোমাবর্ষণের পর পাকিস্তান বাহিনীর একটি দল অবস্থান নেয় শৈলাবাড়ী হাই স্কুলে।

এরপরই শৈলাবাড়ী হানাদারদের ক্যাম্পে পাঁচশ মুক্তিযোদ্ধার একটি দল পরিকল্পিতভাবে আক্রমণ চালান।

১১ ডিসেম্বর ছোনগাছা মাদ্রাসার পাশে মুক্তিযোদ্ধারা শৈলাবাড়ী পাকিস্থানী বাহিনীর ক্যাম্পে আক্রমণের লক্ষে মুক্তিযোদ্ধারা প্রাথমিক অবস্থান নেন বলে জানান বীর মুক্তিযোদ্ধা সোলাইমান। ১২ ডিসেম্বর মুক্তিযোদ্ধারা অতর্কিত আক্রমণ চালান ঘাতক, স্বৈরাচারী পাকহানাদার বাহিনীর উপর ।

শৈলাবাড়ীতে সশস্ত্র শক্তিশালী পাক বাহিনীর ক্যাম্পের ওপর পরিকল্পিত এই যুদ্ধ চলে তিন দিন ব্যাপী। ১৪ ডিসেম্বর বীর মুক্তিযোদ্ধা সুলতান, বীর মুক্তিযোদ্ধা আহসান, বীর মুক্তিযোদ্ধা সামাদের রক্তের বিনিময়ে স্বাধীন হয় তৎকালীন সিরাজগঞ্জ মহকুমা শহর ।

প্রতিদিনের সংবাদ ইউটিউব চ্যানেলে সাবস্ক্রাইব করুন
শৈলাবাড়ী যুদ্ধ,১২ ডিসেম্বর
আরও পড়ুন
  • সর্বশেষ
  • পাঠক প্রিয়
close