অনলাইন ডেস্ক
  ২৭ নভেম্বর, ২০২০

স্কুলছাত্রীকে ধর্ষণ, ছাত্রলীগ নেতা গ্রেপ্তার

রায়পুরার বহুল আলোচিত ধর্ষণ মামলার আসামি রায়পুরা উপজেলার বহিষ্কৃত ছাত্রলীগ সভাপতি আসাদুল হক চৌধুরী শাকিলকে পুলিশ গ্রেপ্তার করতে সক্ষম হয়েছে। ধর্ষক শাকিল গ্রেপ্তার হওয়ায় রায়পুরার জনমনে স্বস্থি ফিরে এসেছে।

রায়পুরা থানা পুলিশের একটি সূত্র জানায়, ঘটনার পর থেকে শাকিল গা ঢাকা দেয়। পুলিশ তার পিছু ছাড়েনি। অবশেষে প্রায় ১মাস ৫দিনের মাথায় পুলিশ ব্রাহ্মণবাড়িয়া শহরের একটি রেস্তুরা থেকে শুকবার তাকে গ্রেপ্তার করে নরসিংদী জেলা পুলিশ।

নরসিংদী জেলা পুলিশের মিডিয়া সমম্বয়কারী ও জেলা গোয়েন্দা পুলিশের ইন্সপেক্টর রুপন কুমার সরকার পিপিএম জানান, শাকিলকে গ্রেপ্তার করে শুক্রবার আদালতে সোপর্দ করা হয়েছে।

উল্লেখ্য, গত ২২ অক্টোবর রাতে ভিকটিমক ১০ম শ্রেণির স্কুলছাত্রীকে বিয়ের প্রলোভন দেখিয়ে রাতে বাড়ি থেকে ডেকে নিয়ে রাজু অডিটোরিয়ামের একটি কক্ষে আটক রেখে ধর্ষণ করেন ছাত্রলীগ সভাপতি আসাদুল হক চৌধুরী শাকিল।

এসময় স্থানীয়রা টের পেয়ে অডিটোরিয়ামের চারদিক ঘেরাও  করলে শাকিল কৌশলে পালিয়ে যায়। পরে ভিকটিম ৯৯৯ এ কল করলে রায়পুরা থানা পুলিশ ভিকটিমকে আটকাবস্থা থেকে উদ্ধার করে থানায় নিয়ে আসেন।

এ ঘটনার পর ২৩ অক্টোবর দুপুরে উপজেলা ছাত্রলীগ সভাপতি আসাদুল হক চৌধুরী শাকিলসহ আরো একজনের বিরোদ্ধে ভিকটিম বাদী হয়ে রায়পুরা থানায় ধর্ষন ও নারী নির্যাতন আইনে মামলা দায়ের করেন (মামলা নং ৩৫)।

পরে ঐদিন রাতেই অডিটোরিয়ামের কেয়ারটেকার সুমনকে আটক করেন রায়পুরা থানার পুলিশ। পরদিন সকালে কেয়ারটেকার সুমনকে বরখাস্ত করে নরসিংদী জেলা পরিষদ কর্তৃপক্ষ।

পিডিএসও/এসএম শামীম

স্কুলছাত্রীকে,ধর্ষণ
আরও পড়ুন -
  • সর্বশেষ
  • পাঠক প্রিয়