তথ্যপ্রযুক্তি ডেস্ক

  ১২ অক্টোবর, ২০২১

গুগল ভুয়া তথ্য প্রচারের পথ বন্ধ করছে

নিজস্ব প্ল্যাটফরমে বৈশ্বিক জলবায়ু পরিবর্তন অস্বীকারকারীদের বিজ্ঞাপনের মাধ্যমে আয় ও ভুয়া তথ্য প্রচারের পথ বন্ধ করে দিচ্ছে সার্চ জায়ান্ট গুগল। বৃহস্পতিবার গুগল বলেছে, ‘জলবায়ু পরিবর্তনের অস্তিত্ব এবং কারণ বিষয়ে প্রতিষ্ঠিত বৈজ্ঞানিক মতবাদের বিরোধিতা করে এমন কন্টেন্টের পাশে’ বিজ্ঞাপন দিতে দেবে না তারা। বৈশ্বিক জলবায়ু পরিবর্তনের বাস্তবতা অস্বীকার করে এমন কোনো বিজ্ঞাপনও নিজস্ব প্ল্যাটফরমে নেবে না প্রতিষ্ঠানটি। সিএনএন জানিয়েছে, নভেম্বর মাস থেকে কার্যকর হবে গুগলের এই নতুন সিদ্ধান্ত। ইউটিউবসহ গুগলের অন্য সব প্ল্যাটফরমে ‘জলবায়ু পরিবর্তনকে ধাপ্পাবাজি বা প্রতারণা’ বলে আখ্যা দেয় এবং ‘জলবায়ু পরিবর্তনে গ্রিনহাউস গ্যাসের নিঃসরণ অথবা মানব কর্মকা-ের’ ভূমিকা অস্বীকার করে এমন সব কন্টেন্টের ওপর প্রযোজ্য হবে নতুন নীতিমালা। গুগল বলেছে, ‘জলবায়ু পরিবর্তন অস্বীকার করে বা ভুল তথ্য ছড়ায় এমন কন্টেন্টের পাশে থাকা বিজ্ঞাপন নিয়ে উদ্বিগ্ন বিজ্ঞাপনদাতা ও প্রকাশকের সংখ্যা ক্রমশ বাড়ছে এবং তাদের কাছ থেকে সরাসরি অভিযোগ পেয়েছি আমরা। বিজ্ঞাপনদাতারা এমন কন্টেন্টের পাশে তাদের বিজ্ঞাপন দিতে চায় না। প্রকাশকরাও চায় না ওই ভুয়া দাবি প্রচার করে এমন বিজ্ঞাপন তাদের পেজ বা ভিডিওতে রাখতে।’ সাম্প্রতিক বছরগুলোতে জলবায়ু পরিবর্তন মোকাবিলায় আরো তৎপর হওয়ার চাপ বেড়েছে শীর্ষস্থানীয় প্রযুক্তি প্রতিষ্ঠানগুলোর ওপরও; এর একটা বড় অংশ জুড়ে আছে নিজস্ব প্ল্যাটফরমে জলবায়ু পরিবর্তন নিয়ে ভুয়া তথ্য ঠেকানোর চাপ। সিএনএন বলছে, বড় পরিসরের প্ল্যাটফরমগুলোর ক্ষেত্রে অতীতে যে সমস্যাটি হয়েছে, একটি নীতিমালা ঘোষণা করার পর তার নিয়মিত ও কার্যকর প্রয়োগ নিশ্চিত করাই এখন সবচেয়ে বড় চ্যালেঞ্জ। সেপ্টেম্বর মাসে জলবায়ু নিয়ে ভুয়া প্রচারণা ঠেকাতে নিজস্ব চেষ্টার ঘোষণা দিয়েছিল ফেসবুক। জলবায়ু পরিবর্তন বিষয়ে ভুয়া দাবিগুলোর সত্যতা যাচাইয়ের জন্য ১০ লাখ ডলারের তহবিলও গঠন করেছে প্রতিষ্ঠানটি। জলবায়ু পরিবর্তন নিয়ে সচেতনতা বাড়াতে অক্টোবরের প্রথম সপ্তাহে একাধিক নতুন পণ্যও উন্মোচন করেছে গুগল। এর মধ্যে গুগল ম্যাপসের নতুন একটি ফিচার ব্যবহারকারীকে সবচেয়ে পরিবেশবান্ধব রুট দেখায়।

 

 

"

প্রতিদিনের সংবাদ ইউটিউব চ্যানেলে সাবস্ক্রাইব করুন
আরও পড়ুন
  • সর্বশেষ
  • পাঠক প্রিয়
close