সরিষাবাড়ী (জামালপুর) প্রতিনিধি

  ১২ অক্টোবর, ২০২১

২২ বছর পর ফিরলেন ছালেহা

সরিষাবাড়ী উপজেলার নিখোঁজের ২২ বছর পর পরিবারের কাছে ফিরলেন ছালেহা বেগম। এসআই জাফর মুন্সীগঞ্জ জেলা ও দায়রা জজ আদালতের অ্যাডভোকেট মো. দেলোয়ার হোসেনের বাড়ি থেকে তাকে উদ্ধার করেন।

পুলিশ ও ছালেহার পরিবার সূত্রে জানা যায়, সরিষাবাড়ী পৌর এলাকার চক বাঙ্গালী গ্রামের মরহুম বেলায়েত রাজের মেয়ে দীর্ঘ ২২ বছর আগে ভাইয়ের সঙ্গে অভিমান করে বাড়ি থেকে চলে যান। স্বজনরা দেশের বিভিন্ন জায়গায় খোঁজখবর নিলেও কোনো সন্ধান মেলেনি তার। এদিকে মুন্সীগঞ্জ জেলা ও দায়রা জজ আদালতের অ্যাডভোকেট মো. দেলোয়ার হোসেন তাকে দীর্ঘ ১০ বছর ধরে লালনপালন করে আসছেন। মানসিক ভারসাম্যহীন হওয়ায় ছালেহাকে তার পরিবারের কাছে পৌঁছাতে পারেননি তিনি। বিভিন্ন জায়গায় খোঁজখবর নিয়ে ছালেহা বেগমের ভাই সামছুল রাজ সরিষাবাড়ী থানায় গত ১০ অক্টোবর সাধারণ ডায়েরি করেন।

সাধারণ ডায়েরি করার পরই পুলিশের একটি টিম মুন্সীগঞ্জের কাঠাখালী গ্রামে অ্যাডভোকেট মো. দেলোয়ার হোসেনের বাড়ি থেকে ছালেহা বেগমকে উদ্ধার করে সরিষাবাড়ী থানায় নিয়ে যান। গতকাল সোমবার ছালেহাকে নতুন কাপড় কিনে দিয়ে তার স্বজনদের কাছে হস্তান্তর করা হয়। ছালেহার ভাতিজা লিটন রাজ বলেন, ২২ বছর আগে আমার ফুফু হারিয়ে গিয়েছিলেন। আমরা বিভিন্ন জায়গায় খোঁজাখুঁজি করে ফুফুকে ফিরে পাওয়ার আশা ছেড়ে দিয়েছিলাম। অ্যাডভোকেট ও পুলিশের সহযোগিতায় ফুফুকে ফিরে পেয়েছি। এর জন্য সবাইকে ধন্যবাদ।

মুন্সীগঞ্জ জেলা ও দায়রা জজ আদালতের অ্যাডভোকেট মো. দেলোয়ার হোসেন জানান, প্রায় ১০-১২ বছর তিনি আমার বাড়িতে ছিলেন। ছালেহা কাঠাখালী বাজার নিজে ঝাড়ু দিয়ে পরিষ্কার-পরিচ্ছন্ন করতেন। কারো কাছ থেকে কখনো টাকা নিতেন না। এর কারণে সব ব্যবসায়ীর সঙ্গে তার সুসম্পর্ক ছিল। বিভিন্নভাবে তার ঠিকানা সংগ্রহ করার চেষ্টা করেছি। সম্প্রতি ছালেহার কথামতো কাগজে লিখে কয়েকটি ঠিকানা নিয়ে মেলানোর চেষ্টা করি। পরে ইন্টারনেট থেকে এলাকার নাম সার্চ করে সরিষাবাড়ী থানা দেখতে পাই। এরপর থানায় যোগাযোগ করি। ওসি মীর রকিবুল হক বলেন, ২২ বছর আগে ছালেহা বাড়ি থেকে চলে যান। হঠাৎ কয়েক দিন আগে মুন্সীগঞ্জের কাঠাখালী গ্রামের অ্যাডভোকেট দেলোয়ার হোসেন বিষয়টি আমাদের জানালে খোঁজখবর শুরু করি। গত ১০ অক্টোবর ছালেহার ভাই সামছুল রাজ থানায় সাধারণ ডায়েরি করেন। পরে পুলিশ গিয়ে ছালেহাকে উদ্ধার করে সোমবার তার স্বজনদের কাছে হস্তান্তর করে।

 

 

"

প্রতিদিনের সংবাদ ইউটিউব চ্যানেলে সাবস্ক্রাইব করুন
আরও পড়ুন
  • সর্বশেষ
  • পাঠক প্রিয়
close