গোয়ালন্দ (রাজবাড়ী) প্রতিনিধি

  ০৬ আগস্ট, ২০২০

দৌলতদিয়া-পাটুরিয়া নৌপথ

বৈরী আবহাওয়ায় বন্ধ ছোট লঞ্চ চলাচল

রাজবাড়ীর গোয়ালন্দ উপজেলার দৌলতদিয়া ও মানিকগঞ্জের পাটুরিয়ার নৌপথে পদ্মা এবং যমুনা নদীর পানি কমলেও বিপৎদসীমার ৭৩ সেন্টিমিটার ওপর দিয়ে প্রবাহিত হচ্ছে। গতকাল বুধবার সকাল থেকেই নদীতে বাতাসের গতি বৃদ্ধি পাওয়ায় ¯্রােতে এবং ঢেউয়ের গতি বৃদ্ধি পায়। ফলে দূর্ঘটনা এড়াতে মটর (ছোট) লঞ্চ চলাচল বন্ধ করে দেয় বিআইডব্লিউটিএ কর্তৃপক্ষ ।

সংশ্লিষ্ট সূত্র থেকে জানা যায়, ঈদের আনন্দ শেষে কর্মমুখী মানুষের চাপ বৃদ্ধি পাওয়ায় এ নৌপথে ২২টি লঞ্চ দিয়ে যাত্রী পারাপার করা হচ্ছে। কিন্তু হঠাৎ করেই নদীতে বাতাসের গতিবেগ বৃদ্ধি পাওয়ায় পদ্মা-যমুনা নদীতে বড় বড় ঢেউয়ের সৃষ্টি হয়। এ অবস্থায় নৌ-দূর্ঘটনা এড়াতে ২২টি ছোট-বড় লঞ্চের মধ্যে থেকে ৭টি ছোট লঞ্চ চলাচল বন্ধ রয়েছে। ছোট লঞ্চগুলো বন্ধ থাকায় দৌলতদিয়া-পাটুরিয়া নৌপথে দেখা দিয়েছে লঞ্চ স্বল্পতা।

------
দৌলতদিয়া লঞ্চ মালিক সমিতির ম্যানেজার নুরুল আনোয়ার মিলন। তিনি বলেন, বৈরী আবহাওয়ার কারনে যাত্রীদের জীবনের ঝুঁকি এড়াতে এ নৌপথে সকাল থেকে ছোট লঞ্চ চলাচল বন্ধ রেখেছি। পবিত্র ঈদুল আযহা উপলক্ষে কর্মমূখী মানুষের চাপ বৃদ্ধি পাওয়ায় বড় লঞ্চগুলো (মটর ভ্যাসেল) দিয়ে যাত্রী পরাপার করছি। ছোট লঞ্চ (মটর লঞ্চ) গুলো বন্ধ থাকায় যাত্রী পারাপারে সাময়িক সমস্যার সৃষ্টি হচ্ছে। বিআইডব্লিউটিএ আরিচা অঞ্চলের ট্রাফিক ইন্সেসপেক্টর (টিআই) মো. আফতাব উদ্দিন। তিনি বলেন, বৈরি আবহাওয়ার কারণে সমুদ্রে ৩ নাম্বার সর্তক সংকেত চলছে, পদ্মা-যমুনা নদীতে বাতাসের গতিবেগ বেড়ে যাওয়ায় নদীতে ¯্রােতে এবং ডেউয়ের গতিবেগ বেড়ে গেছে। যাত্রীদের কথা বিবেচনা করে ছোট লঞ্চ গুলো বন্ধ রেখেছি। বিকল্প হিসাবে যাত্রীদের জীবনের ঝুঁকি এড়াতে অনেক যাত্রী ফেরিতে পারাপার হচ্ছে।

 

"

আরও পড়ুন -
  • সর্বশেষ
  • পাঠক প্রিয়