পূজার স্নিগ্ধ সাজ

প্রকাশ : ২৩ অক্টোবর ২০২০, ১০:৫৮

অনলাইন ডেস্ক

দুর্গাপূজা হিন্দু ধর্মাবলম্বীদের মূল উৎসব হলেও জাতি-ধর্ম-বর্ণ নির্বিশেষে সবাই মেতে ওঠেন একসঙ্গে। পঞ্চমী তিথি থেকে শুরু করে দশমীর বিসর্জনের মধ্য দিয়ে দুর্গাপূজা শেষ হয়। অন্যান্য বছরের মতো এ বছরের পূজাটা একটু আলাদা। বিশেষ সতর্কতা অবলম্বনে কেনাকাটাও হয়ে গেছে অনেকের। এখন শুধু সাজপোশাকে নিজেকে রাঙানোর পালা। ষষ্ঠী থেকেই মূলত পূজার আনন্দটা বাড়তে শুরু করে, এরপর দশমীতে দেবী বিসর্জনের মাধ্যমে শেষ হয় দুর্গাপূজা। তাই পূজার এই কটা দিন আনুষ্ঠানিকতা এবং সাজপোশাক থাকে তুঙ্গে। তাই জেনে নিন কেমন সাজে আপনি হয়ে উঠবেন অনন্য।

সপ্তমীর সাজ : পূজার এই দিনে আপনি হালকা আভায় নিজেকে রাঙিয়ে নিতে পারেন। ভারী মেকআপ না করে, সাজে আনুন স্নিগ্ধতা, যেন ন্যাচারাল লুকটা আসে। চাইলে বিবি ক্রিম ব্যবহার করতে পারেন। সে ক্ষেত্রে অবশ্যই আগে প্রাইমার লাগাতে ভুলবেন না। প্রাইমার লাগিয়ে নিলে মেকআপটা ত্বকে ভালোমতো বসে এবং সারা দিন থাকে। এ দিন আপনি সালোয়ার-কামিজ কিংবা ফতুয়া-স্কার্ট পরে বেশভুষায় আনতে পারেন ভিন্নতা। শাড়ি তো সব সময়ই পরেন, এবার পোশাকের ভিন্নতায় আনতে পারেন আলাদা লুক। শাড়ি বরং তুলে রাখুন বাকি দিনগুলোর জন্য। সপ্তমীতে দিনের সাজপোশাকে একটু হালকা রং এবং ফেব্রিক বেছে নিন। কারণ, গরম এখনো পুরোপুরি বিদায় নেয়নি। রাতের দিকে একটু গাঢ় কিছু পরতে পারেন।
 
অষ্টমীর সাজ : দুর্গাপূজার বিশেষ আকর্ষণ শুরু হয় মূলত অষ্টমীর দিন থেকেই। কুমারীপূজা অষ্টমীর মূল আকর্ষণ। এদিন সকালবেলা ঘুম থেকে উঠেই শুরু হয়ে যায় অঞ্জলি অর্পণের প্রস্তুতি। সব বয়সের মেয়েরাই এদিন সকালে শাড়ি পরতে পছন্দ করেন। অষ্টমীর সকালে লাল শাড়ি পরতে পারেন। এদিন সবাই সাজপোশাকে গাঢ় রংকে গুরুত্ব দিয়ে থাকেন। শাড়ির সঙ্গে চোখে টানা দিয়ে কাজল, আর কপালে লাল টিপ আর হাতভরা চুড়ি বেশ মানাবে। তবে দিনের সাজে মেকআপ হওয়া চাই হালকা। বিবাহিত মেয়েরা শাড়ির সঙ্গে সিঁথিতে মোটা করে সিঁদুর পরতে পারেন।

নবমীর সাজ : পূজার এই শেষ দুটি দিন অন্যান্য দিনের চেয়ে সাজপোশাকে আসে গর্জিয়াস লুক। এ দুই দিনের সাজ হয় বেশ জমকালো। মেকআপও হয় ভারী। নবমীতে সন্ধ্যাপূজা হয়। সন্ধ্যার পর মন্দিরে যায় অনেকেই। এদিন অনেকটা পার্টি লুকে সাজতে পছন্দ করে মেয়েরা। কাতান, জামদানি, বেনারসি কিংবা সিল্ক শাড়ি পরতে পারেন। সঙ্গে ভারী গহনা, ভারী মেকআপ আর মানানসই চুলের স্টাইলে আপনি হয়ে উঠতে পারেন অনন্য।

দশমীর সাজ : দুর্গাপূজার সবচেয়ে বড় আকর্ষণ হলো দশমী। এদিন সিঁদুর খেলা, এরপর ভাসানের মধ্য দিয়ে শেষ হয় পূজা। দশমীতে লাল পাড় সাদা শাড়ি পরার প্রচলন বহু বছর ধরেই। অনেকেই শুধু লাল কিংবা শুধু সাদা শাড়ি পরেন। দশমীতে নিজেকে মা দুর্গার মতো সাজাতে পছন্দ করেন সব মেয়েই। নবমীর মতো এদিনও চোখের সাজকে বেশি গুরুত্ব দিন। মোটা গাঢ় কাজলের টানায় রাঙিয়ে নিন আপনার চোখযুগল। সঙ্গে কপালে লাল টিপ। ঠোঁটে দিন লাল লিপস্টিক। স্নিগ্ধ মেকআপের সঙ্গে বিবাহিত মেয়েরা সিঁথিতে পরুন মোটা করে সিঁদুর। পূজার শেষ দিন লাল-সাদা শাড়ির সঙ্গে চুল করতে পারেন ঢিলে খোঁপা। মাঝবরাবর সিঁথি করার স্টাইল এখন আবার ঘুরেফিরে এসেছে। এটাও বেশ মানাবে।

পিডিএসও/ জিজাক