চবি প্রতিনিধি

  ২৩ ফেব্রুয়ারি, ২০২১

পরীক্ষা বন্ধ চায় না চবি শিক্ষার্থীরা

শিক্ষামন্ত্রীর মৌখিক সিদ্ধান্তের পর বিভিন্ন বিশ্ববিদ্যালয় তাদের পরীক্ষাসমূহ স্থগিত বা বন্ধ করে দিয়েছে। চট্টগ্রাম বিশ্ববিদ্যালয়ে যথারীতি বিভিন্ন বিভাগের বর্ষসমূহের নির্ধারিত পরীক্ষা যথারীতি চলছে। তবে প্রজ্ঞাপন পেলে পরীক্ষা বন্ধ করার কথা জানিয়েছে বিশ্ববিদ্যালয় প্রশাসন। এতে করে চলমান ও নির্ধারিত পরীক্ষাসমূহ বাতিল হওয়ার শঙ্কায় রয়েছে হাজারো শিক্ষার্থী। বিশ্ববিদ্যালয়ের স্বাতন্ত্র্য, স্বায়ত্তশাসন ও কার্যকারিতা নিয়ে প্রশ্ন তুলে সামাজিক যোগাযোগমাধ্যমে নিন্দা ও ক্ষুদ্ধ প্রতিক্রিয়া জানিয়েছেন শিক্ষার্থীরা।

শিক্ষার্থীরা জানিয়েছেন, করোনার মধ্যেও সারা দেশ যেখানে বিশেষ ব্যবস্থায় চলাচলে উন্মুক্ত করে দেয়া হয়েছে, সেখানে বিশ্ববিদ্যালয়গুলোও খুলে দেয়া যেতে পারে। খুলে না দিলেও অন্তত পরীক্ষাগুলো চালু রাখা হোক। সময়মতো পরীক্ষা না হওয়ায় একদিকে সেশনজট, অন্যদিকে বাসাভাড়া ও যাতায়াতে আর্থিক চাপেও পড়তে যাচ্ছে বহু শিক্ষার্থী। করোনা মহামারিতে শিক্ষা প্রতিষ্ঠান বন্ধ থাকলেও বন্ধ নেই চাকরির নিয়োগ। সামনে বিসিএস, ব্যাংক নিয়োগ, এনএসআই, অডিট নিয়োগের মতো নানা পরীক্ষা চলমান রয়েছে। এসব পরীক্ষায় অংশগ্রহণ করতে তাদের অবশ্যই স্নাতক বা স্নাতকোত্তর সম্পন্ন করতে হবে। পরীক্ষা পেছানোর সাথে সাথে তারা হারাচ্ছেন আবেদনের যোগ্যতা। হল বন্ধ থাকায় পরীক্ষায় অংশগ্রহণের জন্য অধিকাংশ শিক্ষার্থী বিশ্ববিদ্যালয় সংলগ্ন এলাকায় বাসা বা মেস ভাড়া করে থাকছেন। কিন্তু অনেক শিক্ষার্থীর আর্থিক অবস্থা দুর্বল হওয়ায় সেখানে থাকতেও নানা সমস্যার সন্মুখীন হতে হচ্ছে। এসময় পরীক্ষা বাতিল করা মানে তাদেরকে মানসিক হয়রানি,আর্থিক অপচয় ও শিক্ষাজীবনকে চরমভাবে বাধাগ্রস্ত করা।

পরীক্ষা বন্ধের প্রাথমিক সিদ্ধান্তে চবির শিক্ষার্থীদের প্রতিক্রিয়া হুবহু তুলে ধরা হলো-

বাংলাদেশ ছাত্র ইউনিয়ন চবি সংসদের সভাপতি গৌরচাঁদ ঠাকুর লিখেন, "মন্ত্রণালয়ের সিদ্ধান্তেই যদি বিশ্ববিদ্যালয় পরিচালিত হবে তাহলে বিশ্ববিদ্যালয় প্রশাসন, সিনেট ইত্যাদি বিলুপ্ত করে দেওয়া হোক। ছাত্রদের সাথে উপর্যুপরি কাণ্ডজ্ঞানহীন আচরণ করা ছাড়া এই ফোরামগুলোর আর ঠিক কোন কোন কাজ দৃষ্টিগোচর হচ্ছে?"

আইন বিভাগের শিক্ষার্থী ও ছাত্রলীগের কর্মী ফোরকানুল আলম লিখেন, "বিভিন্ন বিভাগের বিভিন্ন সেশনের অধিকাংশ শিক্ষার্থীই চলমান কিংবা আসন্ন পরীক্ষার জন্য, অনেক টাকা এডভান্স দিয়ে কটেজ কিংবা মেস ভাড়া নিয়েছে।এই অবস্থায় মানবিক দিক বিবেচনায় পরীক্ষাগুলো চলমান রাখার জন্য বিশ্ববিদ্যালয়ের মাননীয় উপাচার্য মহোদয়ের সিদ্ধান্তের জন্য পরীক্ষার্থীরা চাতক পাখির মতো চেয়ে আছে। তাই সংশ্লিষ্ট শিক্ষার্থীদের পক্ষে... পরীক্ষাগুলো চলমান রাখার অনুরোধ জানাচ্ছি।"

মাস্টার্সের শিক্ষার্থী ও শাখা ছাত্রলীগলের কর্মী শহিদুল্লাহ কায়সার তার আইডিতে লিখেন," স্বায়ত্তশাসনের জানাযার পর খুব সুন্দরভাবে দাফন সম্পন্ন করা হয়েছে একটু আগে।ভালো থেকো স্বায়ত্তশাসন। বিদায় নাহি দিবহায় তবু বিদায় দিতে হয়।
ফ্যাক্ট- অনধিকার চর্চা।"

প্রাণিবিদ্যা বিভাগের শিক্ষার্থী ও ছাত্রলীগ কর্মী জাহিদুল হাসান লিখেন, "চলমান পরীক্ষা স্থগিত না করে যথাযথ স্বাস্থ্যবিধি মেনে পরীক্ষা নেওয়ার অনুরোধ জানাই।

বিশ্ববিদ্যালয়ের প্রশাসনিক নিজস্ব কিছু এখতিয়ার আছে বলে মনে করি !"

৫ বছর পার করেও ৩য় বর্ষে থাকা ইংরেজি বিভাগের শিক্ষার্থী নুরুল ইসলাম বিপ্লব লিখেন, "গতবছর জানুয়ারি/ফেব্রুয়ারিতে তে সেশন জ্যাম সহ তৃতীয় বর্ষের পরীক্ষা হওয়ার কথা ছিলো।তা আর হলো না করোনা সহ বিভিন্ন কারণে।ইমিডিয়েট বড় ভাইরা বিসিএস দিতে পারবে না তাই আমাদের সিরিয়াল আগে হওয়া সত্ত্বেও উনাদের পরীক্ষা মেনে নিছি।সব ঠিক থাকলে ৪ঠা মার্চ থেকে পরীক্ষা হওয়ার কথা ছিলো এখনো হবে কিনা জানি না কিন্তু শিক্ষা মন্ত্রীর ভাষণের পর একটা সংশয় কাজ করছে।আমাদের মানসিক অবস্থার কথা চিন্তা করেন। আমাদের জীবন নিয়ে ছিনিমিনি খেলার অধিকার উনাদের কেউ দে নাই।কেউ না।আল্লাহ ছাড়া আমরা কার কাছে বিচার দিবো?"

শিক্ষার্থীদের দাবির সাথে একাত্মতা পোষণ করে চবি ব্যবসায় প্রশাসন অনুষদের ডিন অধ্যাপক এস এম সালামত উল্ল্যা ভূঁইয়া বলেন, ‘৭৩ এর অধ্যাদেশ অনুযায়ী চট্টগ্রাম বিশ্ববিদ্যালয় একটি স্বায়ত্তশাসিত বিশ্ববিদ্যালয়। শিক্ষার্থীরা এখানে অনেক স্বপ্ন নিয়ে আসে। করোনা মহামারি তাদের স্বপ্নকে সত্যে রুপান্তরের পথে পিছিয়ে দিয়েছে অনেক গুণ। পরীক্ষাগুলো হয়ে গেলে আমাদের ছেলেমেয়েরা কর্মজীবনে প্রবেশ করতে পারবে। শিক্ষার্থীরা পাস করে গেলে তাদের অনেক মানসিক চাপ,আর্থিক হয়রানি কমবে। এতে করে তো আমাদের এক পয়সাও ক্ষতি নেই।

পরীক্ষা বন্ধের বিষয়ে এখনও সিদ্ধান্ত নেয়া হয়নি জানিয়ে চবি রেজিস্ট্রার অধ্যাপক এস এম মনিরুল হাসান বলেন, আমরা সরকারের সিদ্ধান্তের সাথে একমত। তবে এখনই পরীক্ষার বিষয়ে সিদ্ধান্ত নয়। প্রজ্ঞাপন পেলে ব্যবস্থা নেয়া হবে।

পিডিএসও/এসএম শামীম 

প্রতিদিনের সংবাদ ইউটিউব চ্যানেলে সাবস্ক্রাইব করুন
পরীক্ষা,বন্ধ চায় না,চবি শিক্ষার্থীরা
আরও পড়ুন
  • সর্বশেষ
  • পাঠক প্রিয়
close